BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

ইরানের বিয়ে বাড়িতে জঙ্গি হামলা, মৃত কমপক্ষে ১১

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: December 6, 2019 9:17 am|    Updated: December 6, 2019 9:17 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইরানে একটি বিয়ে বাড়িতে বিস্ফোরণের ফলে মৃত্যু হল কমপক্ষে ১১ জনের। এর মধ্যে পাঁচ শিশুও আছে। গুরুতর জখম বৃহস্পতিবার ঘটনা ঘটেছে ইরানের বন্দর শহর হোদেইদার নিকটবর্তী মানকাম গ্রামে। খবর পেয়ে স্থানীয় প্রশাসনের কর্মী ও আধিকারিকরা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। জখমদের উদ্ধার করে হাসপাতালেও নিয়ে যাওয়া হয়। পুলিশ সূত্রে খবর, আল হাউতি জঙ্গি গোষ্ঠীর সদস্যরাই এই বিস্ফোরণের পিছনে রয়েছে।

[আরও পড়ুন: বিয়ের জন্য পাকিস্তান থেকে নাবালিকা ও মহিলা কিনছে চিন!]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার ইরানের বন্দর শহর হোদেইদার দক্ষিণ দিকে অবস্থিত মানকাম গ্রামের একটি বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। সেসময় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়ে সেখানে আগুন ধরে যায়। এর ফলে চোখের নিমিষে পুড়ে যান শতাধিক মানুষ। পরে তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান কর্তব্যরত ডাক্তাররা। মৃতদের মধ্যে বেশিরভাগই শিশু ও নাবালক। যাদের বয়স সাত থেকে ১৩ বছরের মধ্যে। এর মধ্যে পাঁচজন ইয়েমেনি শিশুও আছে। বর্তমানে গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন। পরে জানা যায়, আল হাউতি জঙ্গিরা  ওই গ্যাস সিলিন্ডারে বিস্ফোরক লাগিয়ে ঘটনাটি ঘটিয়েছে।

হোদেইদা শহরের পুলিশের দাবি, দীর্ঘদিন ধরে ইরানের এই বন্দর শহরে আল হাউতি গোষ্ঠীর জঙ্গিদের প্রভাব রয়েছে। মাঝে মাঝে বিভিন্ন জায়গায় নাশকতামূলক কাজ চালায় তারা। এই ঘটনার পিছনে তারাই রয়েছে। তবে এখনও তদন্ত চলছে। তারপরই দোষীদের পরিচয় সামনে আনা হবে।

[আরও পড়ুন: মানসিক বিকৃতি! মৃত মহিলার স্তন নিয়ে কুকীর্তি পুলিশ আধিকারিকের]

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত পাঁচ বছর হোদেইদার বিভিন্ন জনবসতি এলাকায় ল্যান্ডমাইন ও আইইডি বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে আল হাউতি জঙ্গিরা। এর ফলে কয়েকশ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। প্রশাসনের তরফে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চেষ্টা করা হলেও সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি। স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে গন্ডগোলের কারণে আল হাউতি জঙ্গিরা এখানে মাঝে মধ্যেই হামলা চালায়। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement