BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৪ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

৬ দশক ধরেই অরুণাচল ভারতের অংশ, বেজিংয়ের দাবি উড়িয়ে জানাল আমেরিকা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 2, 2020 3:35 pm|    Updated: October 2, 2020 3:35 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কিছুদিন আগে অরুণাচল প্রদেশকে ভারতের অংশ হিসেবে তারা কোনওদিন স্বীকৃতি দেয়নি বলে জানিয়েছিল চিন। তার জবাবে গত ৬ দশক ধরে অরুণাচল ভারতেরই অংশ বলে দাবি করল আমেরিকা। চিনের নাম না করে পরিষ্কার জানিয়ে দিল, অরুণাচল প্রদেশকে যারা নিজেদের সীমানার মধ্যে বলে দাবি করে তারা ভুল করে। কারণ, গত ৬ দশক ধরে অরুণাচল প্রদেশ (Arunachal Pradesh) ভারতেরই অংশ।

বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসে সাংবাদিক বৈঠক চলছিল। সেসময় আমেরিকার স্বরাষ্ট্র দপ্তরের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিককে চিনের আচরণ ও ভারতের সঙ্গে তাদের বিবাদ প্রসঙ্গে প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা। এর জবাবে ওই আধিকারিক বলেন, ‘আমরা জানি ওই এলাকার সীমান্তে কেউ কেউ অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে। কিন্তু, গত ৬ দশক ধরে অরুণাচল প্রদেশকে ভারতের অংশ বলেই স্বীকৃতি দিয়ে এসেছে আমেরিকা (United States)। স্পর্শকাতর এই ইস্যুর গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়েই সমঝোতা হওয়া উচিত বলে আমরা মনে করি। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় (LAC) কোনওরকম বিকৃতির চেষ্টা হলে আমরা তার তীব্র প্রতিবাদ জানাব। সীমান্তের যে জায়গাগুলি নিয়ে বিবাদের সূচনা হচ্ছে তা আলোচনার মাধ্যমে মীমাংসা করার পরামর্শ দেব ভারত ও চিনকে। এই সমস্যা মেটাতে কোনওভাবে যেন সেনাবাহিনীকে কাজে না লাগানো হয়।’

[আরও পড়ুন: H-1B ভিসা নিষেধাজ্ঞায় স্থগিতাদেশ মার্কিন আদালতের, স্বস্তিতে হাজার হাজার ভারতীয়]

পুরো পরিস্থিতির উপর হোয়াইট হাউস নজর রাখছে বলে উল্লেখ করেন তিনি আরও বলেন, ‘আমরা খুব কাছ থেকে পরিস্থিতির উপর নজর রাখছি। প্রকৃত সীমান্তটা কোথায় এই নিয়ে আলোচনা অত্যন্ত স্পর্শকাতর বিষয়। তাই অতীতেও যেমন আমরা এই ধরনের সমস্যার ক্ষেত্রে গণতান্ত্রিক উপায়ে হওয়া সমঝোতার উপর জোর দিয়েছি। এবারও সেই একই কাজ করব।’

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, লাদাখের গালওয়ান উপত্যকা নিয়ে টানাপোড়েনের সময়ই অরুণাচল প্রদেশকে তারা কোনওদিন ভারতের অংশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়নি বলেই দাবি করে চিন। এবিষয়ে চিনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাউ লিজিয়ান বলেন, অরুণাচল প্রদেশ দক্ষিণ চিনের তিব্বত অঞ্চলের অংশ। 

[আরও পড়ুন: জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ করতে লক্ষ লক্ষ শিশুকন্যাকে খুন করেছে চিন, অভিযোগ আমেরিকার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement