৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রবল বৃষ্টির জেরে মায়ানমারে ধসে পড়ল একটি পাহাড়ের একাংশ। এর জেরে মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৩৪ জনের। নিখোঁজ হয়েছেন আরও অনেকে। ভয়াবহ এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মায়ানমারে একটি গ্রামে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করেছেন উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা। ধসের নিচে চাপা পড়া মৃতদেহগুলি উদ্ধারের পাশাপাশি জখমদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এখনও ৮০ থেকে ১০০ জন মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন বলে খবর।

[আরও পড়ুন: মৃত্যুহীন প্রাণ! রাষ্ট্রসংঘে সুষমা স্বরাজকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ৫১ টি দেশের কূটনীতিবিদদের]

স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার রাতে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে মায়ানমারের মন প্রদেশে থায়ে প্যায়ার কোনে গ্রামের কাছে। প্রবল বৃষ্টির জেরে সেখানে থাকা একটি পাহাড়ের একাংশ ধসে পড়ে। এরপরই ধসে পড়া ওই পাহাড় থেকে প্রচুর পরিমাণে বাদামি রঙের গ্যাস বেরোতে থাকে। এর ফলে আতঙ্ক ছড়ায় স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে। আতঙ্কের জেরে একটি বৌদ্ধ মঠ ও ১৬টি বাড়ি থেকে মানুষজন রাস্তায় বেরিয়ে পড়েন। শুক্রবার রাত থেকেও এখনও নিখোঁজদের সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছেন উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা। তবে বৃষ্টি না থামায় উদ্ধার কাজে অসুবিধা হচ্ছে।

মন প্রদেশের এক আধিকারিক মিও মিন তুনের কথায়, এখনও পর্যন্ত ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ৪৭ জনকে উদ্ধারও করা হয়েছে। বাকি নিখোঁজদের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। ধসের নিচে কমপক্ষে এখনও ৮০ জন মানুষ চাপা পড়ে রয়েছেন।

[আরও পড়ুন: ভারতের পাশে রাশিয়া, কাশ্মীরে নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদেও মুখ পুড়ল পাকিস্তানের]

৩২ বছরের হায়াতে উইন নামে এক যুবক জানান, তাঁর দুই মেয়ে এবং আরও পাঁচজন আত্মীয়কে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। বরাতজোরে তিনি বেঁচে গিয়েছেন। কারণ ধস নামার কিছুক্ষণ আগেই তিনি বাড়ি ছেড়ে বেরিয়েছিলেন। ধসের প্রসঙ্গে বলেন, ‘আচমকা আমার পিছনে বিকট একটা আওয়াজ শুনতে পাই। সেটা শুনে পিছন ঘুরে দেখি কাদার নিচে চাপা পড়েছে আমার বাড়ি।’ মৃতের সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা করছে প্রশাসন৷  

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং