BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

Operation Blue Star: থ্যাচার সরকারের ভূমিকা নিয়ে তদন্তের দাবি ব্রিটিশ এমপি’র

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: June 8, 2020 9:03 pm|    Updated: June 8, 2020 9:03 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রায় চার দশক কেটে গেলেও অপারেশন ব্লু স্টার নিয় আজও বিতর্কের শেষ নেই। থেকে থেকেই অতীতের সেই রক্তাক্ত ইতিহাস ছায়া ফেলেছে ভারতের বর্তমানে। অমৃতসরের স্বর্ণমন্দিরে হওয়া এই সেনা অভিযান শিখ সম্প্রদায়ের কাছে আজও ক্ষতচিহ্নের মতো। এবার তা নিয়েও তৎকালীন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী মার্গারেট থ্যাচার সরকারের ভূমিকা নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি তুলেছেন ব্রিটেনের শিখ এমপি তনমনজিৎ সিং ধেসি।

[আরও পড়ুন: নিরাপত্তায় বজ্র আঁটুনি, প্রধানমন্ত্রীর জন্য আসছে দুই অত্যাধুনিক বিমান]

১ জুন অপারেশন ব্লু স্টারের (Operation Blue Star) ৩৬ বছর পূর্ণ হয়েছে। তারপরই ৫ তারিখ লেবার পার্টির এমপি তনমনজিৎ সিং ধেসি থ্যাচার সরকারের ভূমিকা নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি তোলেন। এই প্রসঙ্গে হাউস অব কমন্সে তিনি বলেন, “এই অপারেশনের ফলে মন্দিরের ঐতিহাসিক স্থাপত্য ধ্বংস এবং শিখ গণহত্যা হয়েছিল। পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল শিখদের গ্রন্থাগার। সেদিনের ঘটনার কথা শিখ ধর্মাবলম্বীরা আজও ভোলেননি।” তিনি আরও বলেন, “অপারেশন ব্লু স্টারের অত্যাচার এবং বহু মানুষের বিচার না পাওয়া নিয়ে সকলে আমার সঙ্গে নিশ্চিতভাবে একমত হবেন। তাহলে ব্রিটেনে বসবাসকারী শিখ সম্প্রদায়, লেবার পার্টি এবং অন্যান্য বিরোধী দলের দাবি মেনে এই অভিযানে তৎকালীন মার্গারেট থ্যাচার সরকারের ভূমিকা নিয়ে কেন নিরপেক্ষ তদন্ত হবে না কেন?”

কী এই ‘অপারেশন ব্লু স্টার’? ইতিহাস বলছে, ১৯৮৪ সালের জুন মাস তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দ্রিরা গান্ধীর সময় স্বর্ণমন্দিরে বব্বর খালসা জঙ্গিদের বের করতে ব্লু স্টার অভিযান চালিয়েছিল সেনাবাহিনী৷ ওই অভিযানে ভারতীয় সেনাবাহিনী ও খলিস্তানি জঙ্গিদের মধ্যে চলে তুমুল গুলির লড়াই৷ সেনার গুলিতে মৃত্যু হয় বহু জঙ্গির৷ ‘অপারেশন ব্লু স্টার’-এর সেই ভয়াবহ দিন আজও তাড়া করে ফেরে শিখ সম্প্রদায়কে৷ তবে, দাগ মিলিয়ে গেলেও ক্ষত আজও টাটকা। আজও ভারত সরকারের প্রতি ক্ষোভ রয়েছে কানাডার শিখ সম্প্রদায়ের মনে। ক্ষোভে এতটাই, কানাডার ওন্টারিও প্রদেশের ১৪টি গুরুদ্বারে আজও ঢুকতে পারেন না কেন্দ্রীয় সরকারের আধিকারিকরা৷ মনে করা হয়, খলিস্তানি আন্দোলনের শিকড় রয়েছে কানাডাতেই৷ সম্প্রতি পাঞ্জাবে ফের মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে খলিস্তানি আন্দোলন। পুলিশের জালে পড়েছে ‘বব্বর খালসা’ জঙ্গি সংগঠনের একাধিক সদস্য।

[আরও পড়ুন: প্রতিরক্ষায় ‘আত্মনির্ভর’ হবে ভারত, আসছে ‘মেড ইন ইন্ডিয়া’ যুদ্ধবিমান]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement