BREAKING NEWS

৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ওমিক্রনকে ‘কম বিপজ্জনক’ বলাটা মারাত্মক ভুল, সতর্ক করল WHO

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: January 7, 2022 8:50 am|    Updated: January 7, 2022 8:50 am

Coronavirus: Calling Omicron 'mild' is a mistake, warns WHO | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার নতুন এবং অতি সংক্রামক ওমিক্রন স্ট্রেনকে অনেক বিশেষজ্ঞই দেগে দিয়েছেন ‘কম বিপজ্জনক’ স্ট্রেন হিসাবে। বিশেষজ্ঞদের একাংশের বক্তব্য ওমিক্রন আগের স্ট্রেনগুলির তুলনায় দ্রুত ছড়ালেও এর মারণ ক্ষমতা আগের থেকে অনেকটাই কম। এর ফলে মৃত্যু এবং হাসপাতালে ভরতি দুটি সংখ্যাই আগের থেকে কম হবে। বিশেষজ্ঞদের এই ধারণাকে এবার মারাত্মক ভুল বলে দেগে দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। WHO‘র বক্তব্য, করোনার নতুন এই প্রজাতিকে ‘কম বিপজ্জনক’ বলাটা বড়সড় ভুল।

Coronavirus: Calling Omicron 'mild' is a mistake, warns WHO

বিশ্ব স্বাস্থ‌্য সংস্থার ডিরেক্টর জেনারেল টেড্রোস আধানম ঘেব্রিয়াসুস (Tedros Adhanom Ghebreyesus) বলছেন,”ওমিক্রন আগের থেকে কম মারাত্মক বা যাদের টিকা নেওয়া হয়ে গিয়েছে তাঁদের জন্য কম ক্ষতিকারক। তার মানে এই নয় যে, এটাকে কম বিপজ্জনক বলা হবে। ” ঘেব্রিয়াসুসের বক্তব্য, আগের ভ্যারিয়েন্ট গুলির মতোই ওমিক্রন বহু মানুষকে হাসপাতালে ভরতি হতে বাধ্য করছে। বহু মানুষের প্রাণ কাড়ছে। বস্তুত, আক্রান্তের সংখ্যার সুনামি এতটাই বিপজ্জনক যে অনেক দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার জন্যই এটা বাড়তি চাপ তৈরি করছে।

[আরও পড়ুন: টিকা না নিলে নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়তে হবে, দেশবাসীকে হুঁশিয়ারি ফরাসি প্রেসিডেন্টের]

WHO জানিয়েছে, শুধু গত এক সপ্তাহে বিশ্বজুড়ে প্রায় ৯৫ লক্ষ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। যা কিনা আগের সপ্তাহ থেকে প্রায় ৭১ শতাংশ বেশি। আমেরিকা, ব্রিটেন, ফ্রান্স, দক্ষিণ আফ্রিকার পর উদ্বেগের তালিকায় ঢুকে পড়েছে ভারতও। এভাবে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকলে ওমিক্রনও মারাত্মক বিপদ ডেকে আনতে পারে বলে মনে করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

[আরও পড়ুন: বাজল না বাড়ির ফায়ার অ্যালার্ম, আমেরিকায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত ৭ শিশু-সহ ১৩ জন]

ডেল্টার (Delta) যেমন বৃদ্ধি হয়েছিল এবার ওমিক্রনের (Omicron) ধাক্কায় তেমনই এক সুনামির দিকে এগিয়ে চলেছে গোটা বিশ্ব। সম্প্রতি এমনই আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন বিশ্ব স্বাস্থ‌্য সংস্থার ডিরেক্টর জেনারেল টেড্রোস আধানম ঘেব্রিয়াসুস। আবার, বছরের প্রথম দিনই WHO প্রধান দাবি করেছিলেন, বিশ্বের সব দেশ একযোগে লড়াই করলে ২০২২ সালেই পরাজিত হতে পারে করোনা ভাইরাস (Coronavirus)। তাঁর সেই বয়ানের পর ওমিক্রন নিয়ে এই বক্তব্য অনেকটা স্ববিরোধী বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে