BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৪ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

হতে পারে প্রাণহানিও! ঝুঁকি নিয়েই করোনা টিকার ‘হিউম্যান চ্যালেঞ্জ’ ট্রায়াল হবে ব্রিটেনে

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: September 24, 2020 2:11 pm|    Updated: September 24, 2020 2:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। হতে পারে প্রাণহানিও। তবু গবেষণার প্রয়োজনে ব্রিটেনে শুরু হচ্ছে করোনা টিকার ঝুঁকিপূর্ণ ‘হিউম্যান চ্যালেঞ্জ ট্রায়াল‘। ইতিমধ্যেই প্রায় ২ হাজার ভলান্টিয়ার এই ট্রায়ালে অংশ নেওয়ার জন্য নিজেদের নাম নথিভুক্ত করেছেন। এই ট্রায়ালে উতরে গেলেই করোনার টিকার কার্যকারিতা নিয়ে আর কোনও প্রশ্ন থাকবে না।

কী এই ‘হিউম্যান চ্যালেঞ্জ ট্রায়াল’?

যে কোনও টিকার পরীক্ষার জন্য ট্রায়ালের (Human challenge trials) এই পদ্ধতি বহু পুরনো। সেই ১৭৯৬ সালেই প্রথম ‘হিউম্যান চ্যালেঞ্জ ট্রায়াল’ হয়। এর প্রক্রিয়া ঝুঁকিপূর্ণ। এক্ষেত্রে প্রথমে সুস্থ, কোমর্বিডিটিহীন স্বেচ্ছাসেবকদের বেছে নেওয়া হবে। যারা হয়তো আক্রান্ত হলেও শরীরে উপসর্গ দেখা যাবে না। এই ধরনের স্বেচ্ছাসেবকদের শরীরে প্রথমে সম্ভাব্য ভ্যাকসিনগুলি প্রবেশ করানো হবে। তারপর নির্দিষ্ট সময়ের পর সম্ভাব্য অ্যান্টিবডি তৈরি হলে, ওই স্বেচ্ছাসেবকদের শরীরে ইচ্ছাকৃতভাবে প্রবেশ করানো হবে করোনা ভাইরাস। এরপর যদি ওই স্বেচ্ছাসেবক COVID-19 আক্রান্ত হন, তাহলে বুঝতে হবে ওই ভ্যাকসিনটি কার্যকর নয়। আর যদি যতজনের শরীরে এই পরীক্ষা করা হচ্ছে, তাঁরা কেউ আক্রান্ত না হন, তাহলে বুঝতে হবে ভ্যাকসিনটি উপযোগী। এই হিউম্যান ট্রায়াল চ্যালেঞ্জ নিঃসন্দেহে অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ যে সম্ভাব্য ভ্যাকসিনটি নিয়ে পরীক্ষা হচ্ছে, সেটি যদি কার্যকরী না হয় তাহলে করোনা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। যদিও, স্বেচ্ছাসেবক বাছাই করার সময় নিশ্চিত করা হবে যে, আক্রান্ত হলেও ওই স্বেচ্ছাসেবীর শরীরে ভাইরাসটি প্রতিরোধ করার মতো রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা আছে।

[আরও পড়ুন: লাগাতার ষষ্ঠদিন দেশে আক্রান্তের থেকে বেশি করোনাজয়ীর সংখ্যা! কমছে চিকিৎসাধীন রোগী]

এখনও পর্যন্ত জানা গিয়েছে, আগামী বছর জানুয়ারি মাসে পূর্ব লন্ডনের একটি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে এই ট্রায়ালের ব্যবস্থা করা হবে। 1Day Sooner নামের একটি সংস্থা এই হিউম্যান ট্রায়াল চ্যালেঞ্জের আয়োজন করার জন্য সরকারের অনুমতি চেয়েছে। সরকারি খরচেই এই ধরনের ট্রায়ালের আয়োজন করতে চায় তাঁরা। ব্রিটেনের সরকার এ নিয়ে সরকারিভাবে এখনও কিছু না জানালেও আয়োজকদের ধারণা, তাঁরা অনুমতি এবং আর্থিক সাহায্য দুইই পেয়ে যাবেন। ইতিমধ্যেই তাঁরা স্বেচ্ছাসেবকদের নাম নথিভুক্তকরণও শুরু করেছেন। ২০০০ জন স্বেচ্ছাসেবক নাম লিখিয়েছেন একদিনেই।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement