২  ভাদ্র  ১৪২৯  বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

অর্থনীতিতে চিনকে টেক্কা, ষাট হাজার কোটি ডলারের প্যাকেজ ঘোষণা G-7 সদস্যদের

Published by: Anwesha Adhikary |    Posted: June 27, 2022 1:18 pm|    Updated: June 27, 2022 1:55 pm

G-7 announces 60000 crore dollar package for developing countries | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত মহাসাগরীয় এলাকায় নিজেদের আধিপত্য বাড়াতে নানা দেশকে উন্নয়নমূলক কাজের জন্য ঋণ দেওয়ার পরিকল্পনা করেছিল চিন (China)। এবার সেই পদক্ষেপের পালটা দিতে চলেছে জি-৭। রবিবার নানা দেশের উন্নয়নের জন্য ষাট হাজার কোটি ডলারের প্যাকেজ ঘোষণা করেছে সদস্য দেশগুলি। ভারতের গ্রামোন্নয়নেও ব্যবহৃত হবে এই প্যাকেজের একটি অংশ। তবে এটাই প্রথম বার নয়। এর আগেও জি-৭ (G-7 Countries) এর পক্ষ থেকে উন্নয়ন প্রকল্প শুরু করার চেষ্টা হয়েছিল। কিন্তু তা বাস্তবায়িত হয়নি।

বেল্ট অ্যান্ড রোড প্রকল্পের মাধ্যমে মূলত দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলিকে উন্নয়নের জন্য আর্থিক সহায়তা দিত চিন। সাহায্যের নামে এই ঋণ নিয়ে পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কার মতো বেশ কিছু দেশে পরিকাঠামোর উন্নতি করা হয়েছে বলে জানা যায়। তবে সাহায্য করার নেপথ্যে অন্য উদ্দেশ্য ছিল চিনের। ঋণের জালে উন্নয়নশীল দেশগুলিকে বেঁধে ফেলে আধিপত্য বিস্তার করার পরিকল্পনা ছিল। তাদের আগ্রাসী মনোভাবকে আটকাতেই নতুন করে আর্থিক সাহায্যের প্যাকেজ ঘোষণা করেছে চিন বিরোধী দেশগুলি।

[আরও পড়ুন: রেল লাইনে প্রসব তরুণীর, মা ও সন্তানকে আগলে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পৌঁছে দিলেন রেলকর্মীরা]

এই প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে ‘পার্টনারশিপ ফর গ্লোবাল ইনফ্রাস্ট্রাকচার অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট’, সংক্ষেপে পিজিআইআই (PGII)। রবিবার জি-৭ সম্মেলনের প্রথম দিনেই এই প্রকল্প ঘোষণা করেন সাত দেশের রাষ্ট্রপ্রধান। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, “অনেক সময়েই উন্নয়নশীল দেশগুলিতে উপযুক্ত পরিকাঠামো থাকে না। তার ফলে অতিমারীর মতো বিশাল ধাক্কা সামলাতে সমস্যা হয়।” তিনি আরও জানিয়েছেন, শুধুমাত্র মানবতার খাতিরে নয়, নিরাপত্তার কারণেও এই প্যাকেজ (G-7 Package) ঘোষণা করা হয়েছে।

তবে পরিষ্কার ভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এই প্যাকেজ কোনও অনুদান নয়। ঋণ হিসাবেই আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে। ফলে লাভবান হবে ঋণদাতারাও। বাইডেন জানিয়েছেন, আমেরিকা থেকে এই প্রকল্পে কুড়ি হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগ করা হবে। মূলত পরিবেশ উন্নয়নের কাজেই অর্থ ব্যয় করতে চায় বাইডেনের দেশ। গণতান্ত্রিক দেশগুলির সঙ্গে সহযোগিতা করলে বিপর্যয়ের মধ্যে পড়তে হয় না, সেই কথাও বোঝা যাবে এই প্রকল্পের ফলে, এমনটাই দাবি করেছেন বাইডেন। ভারতীয় উদ্যোগপতিদেরও এই প্যাকেজের মাধ্যমে সাহায্য করা হবে। পরিবেশের উন্নতি, গ্রামীণ এলাকার বিকাশের কাজে এই অর্থ ব্যবহার করতে হবে। 

[আরও পড়ুন: নাইট ক্লাবের হুল্লোড়ের মাঝেই বিপর্যয়, দক্ষিণ আফ্রিকায় পদপিষ্ট হয়ে মৃত অন্তত ২০]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে