BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা ভ্যাকসিন Sputnik V-এর ট্রায়াল ভারতে করাতে আগ্রহী রাশিয়া, কী প্রতিক্রিয়া কেন্দ্রর?

Published by: Sulaya Singha |    Posted: September 9, 2020 4:05 pm|    Updated: September 9, 2020 5:21 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

বিশেষ সংবাদদাতা, নয়াদিল্লি: করোনা মোকাবিলায় দেশীয় ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ চলছে। কিন্তু তার সঙ্গে রাশিয়ার ভ্যাকসিন নিয়েও ভাবনা চিন্তা করছে কেন্দ্র। ভারতীয় সংস্থারগুলির সঙ্গে কাঁধ মিলিয়ে ভ্যাকসিন তৈরি এবং তাদের ‘স্পুটনিক ফাইভ’ ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল ভারতে করায় আগ্রহ দেখিয়েছে রাশিয়া। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের সাপ্তাহিক সাংবাদিক বৈঠকে নীতি আয়োগের (স্বাস্থ্য) সদস্য ডঃ ভি কে পল এমনটাই জানিয়েছেন।

উল্লেখ‌্য, অক্সফোর্ডের (Oxford) তৈরি করোনা ভ্যাকসিন (Corona Vaccine) ‘কোভিশিল্ড’-এর কাজও ভারতে চলছে। দেশে সেই প্রতিষেধকের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের ছাড়পত্র পেয়েছে সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। কিন্তু সেই সঙ্গে দেশীয় ভ্যাকসিনের কাজও এগিয়ে চলেছে বলে জানিয়েছেন পল। ভারত বায়োটেকের তৈরি করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল মঙ্গলবার থেকেই শুরু হয়েছে। বিদেশে তৈরি ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ করলেও ভারতে সবার আগে দেশীয় ভ্যাকসিন চালুই সরকারের লক্ষ‌্য। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক দিন কয়েক আগে তেমনটাই জানিয়েছিলেন। পরে বিদেশী ভ্যাকসিনের জন্য দরজা খুলে দেওয়ার ভাবনা চিন্তা রয়েছে সরকারের।

[আরও পড়ুন: অর্থনীতি সংকুচিত হবে ১০ শতাংশেরও বেশি, ভারতের জিডিপি নিয়ে পূর্বাভাস ফিচের]

পল বলেন, “রাশিয়ার তৈরি ভ্যাকসিন নিয়ে ভারত বিবেচনা করছে। রুশ সরকারের পক্ষ থেকে আমাদের সরকারের কাছে দু’টি সংস্থার সাহায্য চাওয়া হয়েছে। যাতে আমাদের সংস্থাগুলির নেটওয়ার্কের মাধ্যমে তারা ভ্যাকসিন উৎপাদন এবং এদেশে তাদের ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চালাতে পারে। ভারত সরকার ‘অত্যন্ত বিশেষ বন্ধু’র কাছ থেকে যে অংশীদারিত্বের প্রস্তাব পেয়েছে তা গুরুত্ব দিয়েই বিবেচনা করেছে। এ বিষয়ে বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে, তারা রাজিও হয়েছে।”

রাশিয়ার পক্ষ থেকে ভারতের সঙ্গে ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ করার জন্য বেশ কিছুদিন আগেই আগ্রহ প্রকাশ করা হয়েছিল। ভারতে রুশ রাষ্ট্রদূত সেই প্রস্তাব নিয়ে সরাসরি কেন্দ্র সরকারের কাছে হাজিরও হয়েছিলেন। ভারত যে রাশিয়ার প্রস্তাব মেনে নেবে সেই জল্পনা কেন্দ্র সরকারের অন্দরমহলে আগে থেকে চলছিল। কেন্দ্রের রাজি হওয়ার পিছনে বিদেশ নীতির অঙ্ক রয়েছে। বিশেষ করে বর্তমান পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে চিনের সঙ্গে যখন ভারতের নানা বিষয় নিয়ে টানাপোড়েন চলছে, তখন দীর্ঘদিন বন্ধু রাশিয়াকে ভারত যে অসন্তুষ্ট করতে চাইবে না, সেই বিষয়টি মাথায় রেখেই সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে মনে করছেন কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

[আরও পড়ুন: দেশীয় সংস্থার হাত ধরে ফিরতে পারে PUBG, ভারতীয় পার্টনার খুঁজছে কোরীয় সংস্থা!]

অন‌্য ভ‌্যাকসিনগুলির প্রসঙ্গে পল জানিয়েছেন, দু’টি ভারতীয় ভ্যাকসিনের ট্রায়াল চলছে। আইসিএমআর-ভারত বায়োটেক ভ্যাকসিনের মঙ্গলবার দ্বিতীয় পর্বের পরীক্ষা শুরু হয়েছে। জাইডাস ভ্যাকসিন দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষায় রয়েছে। দু’টি ভ্যাকসিনেরই সন্তোষজনক ফিডব‌্যাক পাওয়া গিয়েছে। তৃতীয় ভ্যাকসিনটি অক্সফোর্ডের, যা সেরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদন করবে। এটি ইতিমধ্যে ব্রিটেন, আমেরিকা, ব্রাজিলে তৃতীয় পর্যায়ের মানব ট্রায়ালে রয়েছে। ভারতেও তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল আগামী সপ্তাহে ১৭টি অংশে ১৬০০ স্বেচ্ছাসেবকের উপর শুরু হবে। উল্লেখ্য, রাশিয়ার সঙ্গে ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ করার বিষয়ে কেন্দ্রের তরফ থেকে এদিন সরকারিভাবে জানানো হলেও মস্কো অবশ্য একদিন আগেই তা জানিয়েছিল। চলতি মাসেই ভারতে ‘স্পুটনিক ফাইভ’ ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের কাজ শুরু হবে বলে রাশিয়ার পক্ষ থেকে দাবিও করা হয়েছিল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement