৩০ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিয়ন্ত্রণ রেখায় যুদ্ধের আবহ তৈরি করে গত কয়েকদিন ধরে সেনা মোতায়েন করতে শুরু করেছে পাকিস্তান৷ আর এবার ভারতে নাশকতার লক্ষ্যে আরও বড় ছক কষছে ইসলামাবাদ৷ ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা ইনটেলিজেন্স ব্যুরো সূত্রে খবর, ইতিমধ্যে অত্যন্ত সন্তর্পণে পাঠানকোট হামলার মূলচক্রি মাসুদ আজহারকে জেল থেকে মুক্তি দিয়েছে ইমরান খানের দেশ৷ তাদের একমাত্র উদ্দেশ্য জইশ-ই-মহম্মদ প্রধানকে ব্যবহার করে শিয়ালকোট-জম্মু ও রাজস্থান সীমান্ত দিয়ে ভারতে জঙ্গি অনুপ্রবেশ করানো এবং ভারতের রক্ত ঝড়ানো৷

[ আরও পড়ুন: মৃতপ্রায় পাক অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে ১০০ কোটি ডলারের দাওয়াই দিল চিন]

কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার পর থেকেই ভারতের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের ষড়যন্ত্র করেছে ইসলামাবাদ৷ প্রথমবার মার্কিন সফরে গিয়েই কাশ্মীর ইস্যুতে ট্রাম্পের দ্বারস্থ হন ইমরান খান৷ এরপর মার্কিন মধ্যস্থতার প্রস্তাব ভারত খারিজ করে দিলে, ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়কে আন্তর্জাতিক ইস্যু তৈরির চেষ্টা করে পাকিস্তান৷ সব ঋতুর বন্ধু চিনের সাহায্য নিয়ে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে ভারতকে বেকায়দায় ফেলতে চেষ্টা করে তারা৷ কিন্তু সেখানেও ভারতেরই পাশে দাঁড়ায় চিন বাদে আমেরিকা, ব্রিটেন, রাশিয়া, ফ্রান্সের মতো রাষ্ট্রগুলি৷ ভারতের সুরে সুর মিলিয়েই কাশ্মীরকে ভারতে অভ্যন্তরীণ ইস্যু বলে দাবি করে তারা৷ সেখান থেকেও হতাশ হয়েই ফিরতে হয় ইসলামাবাদকে৷ এরপর নয়াদিল্লিকে প্যাঁচে ফেলতে কাশ্মীর সম্পর্কিত ফেক নিউজ ও ফেক ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়াতে থাকে পাকিস্তান৷ কিন্তু তাও কাজে আসেনি৷ গোয়েন্দা সূত্রে খবর, এত জায়গা থেকে ধাক্কা খেয়ে, এবার ভারতের বিরুদ্ধে তাদের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য অস্ত্র ‘সন্ত্রাসবাদ’কে ব্যবহার করতে চলেছেন ইমরান খান৷ ভারতের বিরুদ্ধে জইশ-লস্কর-হিজবুলের মতো জঙ্গি সংগঠনগুলিকে ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাক সেনা ও আইএসআই৷

[ আরও পড়ুন: আসছে তালিবানের যম ‘কালো ভ্রমর’, আফগানিস্তানে নয়া অস্ত্র আমেরিকার ]

আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ৫ আগস্ট কাশ্মীর থেকে বিতর্কিত ৩৭০ ও ৩৫এ ধারা বিলুপ্তির যে সিদ্ধান্ত ভারত নিয়েছে, তা বিষয়ে বিন্দুমাত্র আঁচ করতে পারেনি পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই৷ যা রাওয়ালপিণ্ডির অন্যতম ব্যর্থতা হিসাবেই গণ্য মনে করছে আন্তর্জাতিক মহল৷ এই পরিস্থিতিতে ভারতের বিরুদ্ধে প্রতিহিংসার আগুনে জ্বলছে পাকিস্তান৷ আর তাই মুখ বাঁচাতে এবং ভারতবিরোধী লড়াইয়ে এবার মাসুদ আজহার, হাফিজ সইদদের শরণাপন্ন হয়েছেন ইমরান খানরা৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং