BREAKING NEWS

১৯ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ৫ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

সিনেমা বানাতে সুন্দরী নায়িকাকে অপহরণ করেছিলেন কিম জং উনের বাবা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: May 29, 2020 10:04 pm|    Updated: May 29, 2020 10:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কিছুদিন আগে উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের শারীরিক অবস্থার খবর নিয়ে বিশ্বজুড়ে উত্তেজনা তৈরি হয়েছিল। গত ১৫ এপ্রিল প্রয়াত ঠাকুরদা তথা উত্তর কোরিয়ার জাতির জনক কিম ইল সুংয়ের (Kim Il Sung) জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থাকার পর থেকেই কিমের স্বাস্থ্যের বিষয়ে জল্পনা ছড়ায়। তাতে ইন্ধন জোগায় মার্কিন সংবাদমাধ্যমগুলি। কিম করোনার বলি হয়েছে বলেও রটে যায়। যদিও দক্ষিণ কোরিয়ার একটি সংবাদমাধ্যমের তরফে দাবি করা হয় যে হার্টের অস্ত্রোপচারের পর থেকে অনেকটাই সুস্থ আছেন কিম। এই সময়ে কিমকে নিয়ে বিভিন্ন ধরনের খবর প্রকাশিত হচ্ছিল বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা সংবাদমাধ্যমে। তখন জানা যায় তাঁর বাবা কিম জং ইলের ইচ্ছাতেই দীর্ঘদিন ধরে সিনেমায় অভিনয় করে আসছেন তিনি। দেশে প্রকাশ পাওয়া সমস্ত সিনেমাতেই তিনি নায়কের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন।

বিষয়টি নিয়ে খোঁজখবর করতে গিয়ে জানা যায়, জেমস বন্ডের চরম ভক্ত কিম জং ইলের হাতে ধরেই সিনেমা জগতে আর্বিভূত হন কিম জং উন। দিন বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাবার মতোই জেমস বন্ডের ভক্ত হয়ে ওঠেন তিনি। হয়ে ওঠেন একজন সিনেমা অনুরাগী মানুষ। তাঁর বাবা সিনেমার মাধ্যমে দেশের মানুষের মধ্যে কমিউনিজমের ভাবধারা প্রচার করার চেষ্টা করতেন। এর জন্যই সিনেমা বানানোর বিষয়ে কোনও কার্পণ্য করেননি তিনি। এমনকী সিনেমা তৈরি জন্য তৎকালীন সময়ে দক্ষিণ কোরিয়ার সবথেকে জনপ্রিয় পরিচালক ও তাঁর সুন্দরী অভিনেত্রীকে স্ত্রীকেও অপহরণ করেছিলেন। আর তাঁদের দিয়ে মোট ১৭টি সিনেমা তৈরি করেন।

[আরও পড়ুন: হিজবুল মুজাহিদিন প্রধান সালাউদ্দিনকে খুনের চেষ্টা আইএসআইয়ের, প্রকাশ্যে চাঞ্চল্যকর তথ্য ]

তারপর তাঁর মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে একের পর এক সিনেমা তৈরি করেন। তাঁর সময় থেকেই সরকারের নিয়ন্ত্রণে সিনেমা তৈরির পরম্পরা তৈরি হয়েছিল উত্তর কোরিয়ায়। সেই ধারাই বজায় রেখে চলেছে তাঁর সুযোগ্য পুত্র কিম জং উন। এই বিষয়ে ব্রিটেনের একটি ম্যাগাজিনে প্রতিবেদনও লিখেছিলেন হোসে সন্ডার্স নামে এক সাংবাদিক। তাঁর দাবি ছিল, জেমস বন্ডের জনপ্রিয়তা হাতিয়ার করে তাঁর ছবির মাধ্যমে দেশে নিজের আধিপত্য বিস্তার করেছিলেন কিং জং ইল। বর্তমানে সেই একই পথে হাঁটছেন কিম। তবে বাবার থেকে এককাঠি এগিয়ে দেশের তৈরি হওয়া প্রতিটি সিনেমাতে তিনিই নায়ক হন। আর সমস্ত গল্পের শেষে দেখা যায়, উত্তর কোরিয়ার বিপদের সময় কিম জং উন (Kim Jong-un) সবাইকে রক্ষা করছেন।

[আরও পড়ুন: সীমান্ত বিবাদে ট্রাম্পের মধ্যস্থতা চায় না ভারত, বুঝিয়ে দিল বিদেশমন্ত্রক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement