১ আশ্বিন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্যালিফোর্নিয়ার দুই অধ্যাপক আপাতত ওয়েবদুনিয়ায় বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। কারণ জানলে, আপনি অবাক তো হবেনই। পাশাপাশি আপনার ঠোঁটের কোণে এক চিলতে হাসি ফুটতেও বাধ্য। কারণ, দুই অধ্যাপকের কাজকর্ম  আপানাদের কাছে শিশুসুলভ বলেও ঠেকতে পারে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সাধের আমেরিকা-মেক্সিকো সীমান্তের পাঁচিল ফুটো করে ঢেঁকি দোলনা লাগিয়ে দিয়েছেন তাঁরা।   

[আরও পড়ুন: ৭ দিনে দ্বিতীয়বার, ফের জাপান সাগরে আছড়ে পড়ল কিমের মিসাইল  ]

রোনাল্ড রায়েল এবং ভার্জিনিয়া সান ফ্রাটেলো নামে ক্যালিফোর্নিয়ার ওই দুই অধ্যাপক আসলে ট্রাম্পের এই বিভেদনীতিতে বিশ্বাসী নন। আর তাঁর বিরোধিতা করতেই তাঁরা এধরনের উদ্যোগ নিয়েছেন। গোলাপি রঙের তিনটে ঢেঁকি দোলনা পাঁচিলের এফোঁড় ওফোঁড় করে বসিয়ে দিয়েছেন। তাতে চড়েই হেলেদুলে খেলে বেড়াচ্ছে বাচ্চারা। বড়রাও অবশ্য এই খেলার স্বাদ নেওয়া থেকে বঞ্চিত হননি। ছোটদের সঙ্গে তাঁরাও সীমান্তের এপারে থেকে ওপারের মানুষগুলির সঙ্গে মেতে উঠেছেন খেলার আনন্দে। ওয়েবদুনিয়ায় সেই ছবি আপাতত ভাইরাল। নেটিজেনদের নজর কেড়েছে ওই দুই অধ্যাপকের অভিনব ভাবনা।

[আরও পড়ুন: ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল আফগানিস্তান, নিহত ৩৪]

প্রসঙ্গত, মার্কিন প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর থেকেই আমেরিকা-মেক্সিকো সীমান্তে ২০০০ মাইলজুড়ে পাঁচিল তোলার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাঁর লক্ষ্য, মেক্সিকো থেকে আসা অনুপ্রবেশকারীদের আটকানো। মেক্সিকোর শরণার্থীদের মার্কিন সীমানার এপারে আসা আটকানো অবশ্য তাঁর নির্বাচনী প্রতিশ্রুতিগুলির মধ্যে অন্যতম গুরত্বপূর্ণ বিষয় ছিল। তবে মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধীতা করে বরাদ্দ অর্থ আটকে দিয়েছিলেন ডেমোক্র্যাটরা। ট্রাম্পের সিদ্ধান্তে স্থগিতাদেশ জারি করেছিল ক্যালিফোর্নিয়ার আদালত। মার্চ অবধি সেই কাজে হাত দিতে পারেননি ট্রাম্প। তবে সম্প্রতি, সেই স্থগিতাদেশ উঠে গিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায় গিয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্টের পক্ষেই। তবে অবশেষে শুরু হয়েছে আমেরিকা-মেক্সিকো সীমান্তে পাঁচিল তৈরির কাজ। ট্রাম্পের ইচ্ছেপূরণ করার দায়িত্ব নিয়েছেন কোসিমো কাভালারো নামে এক মেক্সিকান শিল্পীই। তবে সেই তিন তিনটে ঢেঁকিই আপাতত দায়িত্ব নিয়েছে দুই দেশের মানুষের মধ্যে দূরত্ব ঘোঁচানোর। যেন হয়ে উঠেছে একতার প্রতীক। আর ক্যালিফোর্নিয়ার অধ্যাপকদ্বয় রোনাল্ড রায়েল এবং ভার্জিনিয়া সান ফ্রাটেলোর এহেন অভিনব ভাবনায় মজেছে নেটদুনিয়াও।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং