×

২ চৈত্র  ১৪২৫  সোমবার ১৮ মার্চ ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

২ চৈত্র  ১৪২৫  সোমবার ১৮ মার্চ ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক :“পাকিস্তানে  বহাল তবিয়তে আছি। একদম সুস্থ।” পাক সরকার যতই তাকে প্রচণ্ড অসুস্থ, শয্যাশায়ী বলে আড়াল করার চেষ্টা করুক না কেন, নিজেই নিজেকে ফিট সার্টিফিকেট দিয়ে দিল মাসুদ আজহার। বুধবার রাষ্ট্রসংঘে মাসুদকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী তকমা দিতে চিন বাধা দেওয়ার পরেই অডিও টেপের মাধ্যমে এই বিবৃতি দিয়েছে জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি গোষ্ঠীর প্রধান।

মাসুদ আজহারের মুখপাত্র তালহা সইফ এই অডিও টেপ প্রকাশ করে। সেখানে মাসুদ স্পষ্ট জানিয়েছে, পাকিস্তানে সে মোটেই অসুস্থ নয়, সম্পূর্ণ সুস্থ আছে। বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনা জইশ ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়ার পর পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি জানিয়েছিলেন, মাসুদ কিডনির অসুখে ভুগছে। সেনা হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে। মাসুদের শারীরিক অবস্থা এতটাই খারাপ যে বাড়ির বাইরে বেরতে পারে না। কুখ্যাত জঙ্গিকে এভাবে আড়াল করার চেষ্টা যে কতটা মিথ্যা ছিল তার প্রমাণ মিলল মাসুদের এই ফিট বয়ানেই।

[ফের মাসুদকে আগলে রাখল চিনা প্রাচীর, রাষ্ট্রসংঘে অসহায় ভারত]

এদিকে রাষ্ট্রসংঘে চিনের বাধায় ফের মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী বলে ঘোষণা করা গেল না। চিনের এই পদক্ষেপে ক্ষুব্ধ বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। এই ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির চিন নীতির তীব্র সমালোচনা করে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী টুইট করেন, “গুজরাতে মোদি চিনা প্রেসিডেন্ট জি’র সঙ্গে দোলনায় দুলেছিলেন। দিল্লিতে জড়িয়ে ধরেছিলেন। তাঁর সামনে ঝুঁকে অভিবাদন জানিয়েছিলেন। দুর্বল মোদি জিকে ভয় পান। মাসুদ ইস্যুতে চিন যখন ভারতের বিরোধিতা করছে তখন তার প্রতিবাদ করে মোদি একটা কথাও বলতে পারছেন না।”

[পাক চা বিক্রেতার দোকানে অভিনন্দনের ছবি প্রশংসা কুড়োচ্ছে নেটদুনিয়ার]

কংগ্রেসের এই আক্রমণের পাল্টা জবাব দিতে বৃহস্পতিবার সকালেই সাংবাদিক সম্মেলন করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ। রাহুলকে সরাসরি তোপ দেগে তিনি বলেন, “মোদিজি জিংপিংকে ভয় পাচ্ছেন বলে রাহুল গান্ধীর টুইটবার্তা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। টুইটারে দেশের বিদেশ নীতি চলে না। রাহুল, আপনার সঙ্গে তো চিনের ভাল সম্পর্ক। তাহলে আপনি মাসুদ প্রসঙ্গে কেন চিনের সঙ্গে কথা বলছেন না ? চিনের দূতাবাসে রাহুল কেন গিয়েছিলেন ?” কংগ্রেসকে চুপ করাতে রবিশংকর আরও বলেন, “২০০৯ সালে ইউপিএ সরকারের আমলেও রাষ্ট্রসংঘে চিন একইরকম বাধা দিয়েছিল। রাহুল, তখন কি আপনি বা আপনার দল সরকারকে কোনও প্রশ্ন করেছিলেন ?”

[বালাকোট থেকে জঙ্গিদের মৃতদেহ সরিয়েছে পাক সেনা, দাবি সমাজকর্মীর]

মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী হিসেবে চিহ্নিতকরণে এই নিয়ে চারবার বাধা দিল চিন। রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে ব্রিটেন, ফ্রান্স ও আমেরিকা মাসুদকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা করতে চেয়ে প্রস্তাব এনেছিল। কিন্তু চিন পদ্ধতিগত সমস্যা তুলে সেই প্রস্তাব বুধবার আটকে দিয়েছে। এদিন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, সন্ত্রাসদমন নিয়ে পাকিস্তান সক্রিয় পদক্ষেপ না করলে পাকিস্তানের সঙ্গে কোনও কথাই বলবে না ভারত। চিনের সিদ্ধান্ত শান্তির পরিপন্থী বলে জানিয়েছে আমেরিকাও। সন্ত্রাস ও শান্তি আলোচনা এক সঙ্গে হতে পারে না বলে দাবি ওয়াশিংটনের। ঠিক এই সময়ে পুলওয়ামা কাণ্ডের চক্রী মাসুদ যেভাবে পাকিস্তানে বহাল তবিয়তে থাকার কথা ঘোষণা করলেন তাতে কুরেশির মিথ্যাচার ফের প্রমাণিত হল।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং