BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ভারত সফরে আসছে ‘দ্য বিস্ট’, জেনে নিন এর বৈশিষ্ট্য

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: February 23, 2020 12:00 pm|    Updated: February 23, 2020 12:00 pm

An Images

দ্য বিস্ট

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আগামিকাল দুদিন সফরে সস্ত্রীক ভারতে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাঁদের নিরাপত্তার জন্য প্রচুর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে ভারত সরকারের তরফে। কিন্তু, অন্য দেশের সফরের সময়ে যা হয় এখানেও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। সুদূর আমেরিকাতে বসেই মার্কিন প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তায় নজরদারি চালাবে হোয়াইট হাউস ও ইউনাইটেড স্টেটস সিক্রেট সার্ভিস(USSS)। আর এই কাজে তাদের সাহায্য করবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের জন্য বিশেষভাবে নির্মিত অত্যাধুনিক ক্যাডিলাক লিমুজিন ‘দ্য বিস্ট (The beast)’।

স্টিল, টাইটেনিয়াম, অ্যালুমিনিয়াম ও সেরামিকস দিয়ে তৈরি বডির এই লিমুজিনটিকে সাঁজোয়া গাড়ি বললেও অত্যুক্তি হবে না। পাঁচ ইঞ্চি মোটা ধাতুনির্মিত এই গাড়ির শরীরও প্রচণ্ড শক্ত। ২০১৮ সালে আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের জন্য বিশেষভাবে নির্মিত এই গাড়ির জানালাতে কাচ ও পলিকার্বনেটর পাঁচটি স্তর রয়েছে। চালকের পাশের জানালা ছাড়া আর কোনওটার কাঁচই খোলা যাবে না। আর চালকের আসনের পাশে থাকা জানালাটিও মাত্র ৩ ইঞ্চি নিচে নামানো যাবে। বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট ভেদ করে যাওয়া গুলিও ভাঙতে পারবে না এই জানলার কাঁচ।

[আরও পড়ুন: ‘শখের দাম লাখ টাকা’, হাজার ডলার দিয়ে ভাল্লুক শিকার করবেন ট্রাম্পের ছেলে! ]

 

আরও জানা গিয়েছে, এই গাড়ির উপর যদি কেউ হামলা চালায় তা প্রতিহত করার জন্য পাম্প অ্যাকশন শটগানস, নাইট ভিশন ক্যামেরা ও কাঁদান গ্যাসের গ্রেনেড লঞ্চার রয়েছে। অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র ও প্রেসিডেন্টের প্রয়োজন মেটানোর জন্য রক্তের ব্যাগ ও অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা থাকছে। পেন্টাগনের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগের জন্য গাড়িতে রয়েছে স্যাটেলাইট ফোনও। বিস্ফোরকরোধী ফোম দিয়ে তৈরি জ্বালানি ট্যাংকের জন্য বিস্ফোরণের সম্ভাবনাও নেই। স্টিল রিমের টায়ার থাকার জন্য তা ফেটে গেলেও চালকের গাড়ি চালাতে কোনও অসুবিধা হবে না। গাড়ির পুরো শরীরটা স্টিল দিয়ে তৈরি হওয়ার কারণে বোমা এবং মাইন বিস্ফোরণেও কোনও ক্ষতি হবে না। অত্যাধুনিক সেন্সার লাগানো থাকার কারণে যে কোনও হামলার আগে গাড়ির চালকের কাছে সিগন্যাল পৌঁছে যাবে। গাড়িতে থাকা ওয়াচ টাওয়ারের অ্যান্টেনার মাধ্যমে রাস্তায় থাকা যেকোনও ডিভাইসকে জ্যাম করা যেতে পারে। চালকবিহীন স্বয়ংক্রিয় গাড়িকে শনাক্ত করতে সক্ষম এটি।

[আরও পড়ুন: মার্কিন প্রেসিডেন্টের অভ্যর্থনায় এলাহি আয়োজন, জানেন কী থাকছে মেনুতে? ]

 

মার্কিন সিক্রেট সার্ভিসের বিশেষ প্রশিক্ষিত ব্যক্তিকে বিশ্বের সবচেয়ে সুরক্ষিত গাড়ির চালক হিসেবে বেছে নেওয়া হয়। যেকোনও পরিস্থিতিতে রাষ্ট্রপতিকে সুরক্ষিত স্থানে পৌঁছে দেওয়াই তাঁর প্রধান কাজ। এর জন্য ১৮০ ডিগ্রি অ্যাঙ্গেলে গাড়ি ঘোরানোর ক্ষমতাও ধরেন তিনি। গাড়িটির চালক ও রাষ্ট্রপতির মধ্যে একটি কাচের দেওয়াল আছে। সুইচের সাহায্যে তা ব্যবহার করা যায়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement