BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

চিনের মদতে পাক অধিকৃত কাশ্মীর ও গিলগিটে শিখদের নির্বিচারে খুন করছে ইমরানের প্রশাসন

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: August 28, 2020 1:43 pm|    Updated: August 28, 2020 1:43 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কয়েকদিন আগেই বালুচিস্তানে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের উপর ইমরানের প্রশাসন অকথ্য অত্যাচার চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছিল। এই বিষয়ে পাকিস্তানের মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্টকেই হাতিয়ার করেছিল ইউরোপীয় ইউনিয়নের থিঙ্ক ট্যাঙ্ক হিসেবে পরিচিত দ্য ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টারি রিসার্চ সার্ভিস (EPRS)। এবার জানা গেল ভারতের সঙ্গে নাড়ির টান ছিন্ন করতে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর ও গিলগিট-বালটিস্তান এলাকায় শিখ সম্প্রদায়ের মানুষদের নির্বিচারে গুম খুন করেছে ইমরানের সরকার। চিনের মদতে ও পাকিস্তানি সেনার সাহায্যে চলছে এই নৃশংস মারণযজ্ঞ।

ল অ্যান্ড সোসাইটি অ্যালায়েন্স নামে একটি আন্তর্জাতিক সংস্থার ‘হিউম্যান লাইভস ম্যাটার (Human Lives Matter)’ শীর্ষক রিপোর্টে পাক অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মীর এবং গিলগিট-বালটিস্তানে মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করা হয়েছে। তাতে জানা গিয়েছে, ভারত সরকার জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর থেকে পাক অধিকৃত এলাকাগুলিতে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের উপর প্রচণ্ড অত্যাচার চালাচ্ছে ইমরানের প্রশাসন। শিখ জনজাতির মানুষদের নির্বিচারে গুম খুন করার পাশাপাশি শিয়া মুসলিমদেরও হত্যা করছে। ইসলামাবাদের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে এই এলাকাগুলি থেকে ভারতের সম্পর্কে সহানুভূতির মনোভাব রাখা মানুষদের সমূলে ধ্বংস করা। ভারতীয় সংস্কৃতির কোনও ছাপ যাতে না থাকে তার জন্য এই এলাকায় বসবাসকারী শিখ সম্প্রদায়ের মানুষদের উপর জোর খাটিয়ে সমস্ত কাজে উর্দুর ব্যবহার চালু করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: শারীরিক অসুস্থতার জের, পদত্যাগ করছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে ]

ওই রিপোর্টে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, পাক অধিকৃত ওই এলাকাগুলিতে অর্থনৈতিক করিডর বানানোর নামে যথেচ্ছাচার করছে ইসলামাবাদ। পাকিস্তানের সংবিধানে উল্লেখিত কোনও অধিকারই দেওয়া হচ্ছে না ওখানকার মানুষদের। উলটে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতাতেও হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে। আইএসআইয়ের পরিকল্পনা অনুযায়ী সেখানে ভয়াবহ হত্যালীলা চালাচ্ছে পাকিস্তানের সেনা। কেউ কোনও প্রতিবাদ করার চেষ্টা করলেই রাতারাতি নিখোঁজ হয়ে যাচ্ছেন।

[আরও পড়ুন: করোনা নিয়ে তদন্ত চায় বহু দেশ, চাপে পড়ে চিনে আন্তর্জাতিক দল পাঠাচ্ছে WHO]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement