BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

কাশ্মীরে ইন্টারনেট চালুর কথা বলে হাসির খোরাক পাকিস্তানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 15, 2019 2:48 pm|    Updated: November 15, 2019 3:33 pm

An Images

পাকিস্তানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ফাওয়াদ হুসেন চৌধুরি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাশ্মীরের কথা কোনও ভাবেই ভুলতে পারছে না পাকিস্তান। গত ৫ আগস্ট জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বাতিল হয়েছে। তারপর থেকে বিভিন্ন দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থার কাছে ভারতের নামে অভিযোগ জানায় পাকিস্তান। কাশ্মীরের বিষয়ে হস্তক্ষেপ করার অনুরোধ করে। কিন্তু, তাতে লাভের থেকে বেশি ক্ষতি হয় তাদের। কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে এড়িয়ে যাওয়ার পাশাপাশি পাকিস্তানকে সন্ত্রাসে মদত দেওয়া বন্ধ করতে বলে। রাষ্ট্রসংঘ থেকে আন্তর্জাতিক আর্থিক সংস্থা এফএটিএফ সবাই চরম হুঁশিয়ারি দেয়। কিন্তু, তারপরও তাদের শিক্ষা হয়নি। এবার কাশ্মীরে ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়ার কথা বলে সোশ্যাল মিডিয়াতে হাসির খোরাক হল পাকিস্তানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ফাওয়াদ হুসেন চৌধুরি।

[আরও পড়ুন: স্কুলের ভিতরে ঢুকে নৃশংস হত্যালীলা চালাল ছাত্র, মৃত্যু অন্তত ২ জনের]

বৃহস্পতিবার করা ওই টুইটে ইমরানের মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ফাওয়াদ উল্লেখ করে, ‘ইন্টারনেটকে এখন মৌলিক অধিকার বলে উল্লেখ করা হয়। কাশ্মীরের মানুষকেও সেই অধিকার পাইয়ে দিতে চাই আমরা। এই বিষয়ে ইতিমধ্যে পাকিস্তান স্পেস অ্যান্ড আপার অ্যাটমসফিয়ার রিসার্চ কমিশন (এসইউপিএআরসিও) ও চিনের ন্যাশনাল স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের আধিকারিকদের সঙ্গে কথাও হয়েছে।’

পাকিস্তানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রীর এই টুইটের পরেই বিতর্কের ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফাওয়াদ হুসেন চৌধুরিকে পাকিস্তানের বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী কে বানাল তা নিয়ে প্রশ্ন যেমন উঠছে। তেমনি পাকিস্তানের তরফে এটা সেরা কৌতুক বলেও কটাক্ষ করছেন অনেকে। একজন টুইটারাট্টি লিখেছেন, দয়া করে স্যাটেলাইট যুদ্ধ শুরু করবেন না। তাহলে পাকিস্তানের পক্ষে খুবই খারাপ হবে।

[আরও পড়ুন: হংকং যেন আগ্নেয়গিরি, ভয়ে শহর ছাড়ছে চিনা পড়ুয়ারা]

আরও একজনের কথায়, স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ইন্টারনেট পরিষেবা পাইয়ে দেওয়ার জন্য মানুষের উচিত তাদের অভিনন্দন জানানো। এটাই মনে হয় নতুন পাকিস্তান। আর উনি হলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী। সত্যিই কী অসম্ভব মজার ঘটনা।

তৃতীয় একজন আবার পাকিস্তানের এই দুঃসাহস দেখে চমকে উঠেছেন। ব্যঙ্গ করে বলেছেন, পাকিস্তানের পাঞ্জগুর এলাকায় কোনও কারণ ছাড়াই দেড়মাস ধরে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রয়েছে। আগে নিজেদের দেশের মানুষকে ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়ার ব্যবস্থা করো। তারপর অন্যদের বিষয়ে চিন্তাভাবনা করো।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement