১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

হয়েও হল না চিনের করোনামুক্তি, ফের বেজিংয়ে লকডাউন ঘোষণা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: June 13, 2020 1:36 pm|    Updated: June 13, 2020 4:10 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হয়েও হল না শাপমুক্তি। ফের লকডাউন করা হল চিনের রাজধানী বেজিংয়ের একাংশ। শনিবার ফের সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়িয়ে শহরটিতে নতুন করে ছয় জন বাসিন্দার শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া যায়। তারপরই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে শি জিনপিং সরকার।

[আরও পড়ুন: কাশ্মীরকে ভারতের অংশ হিসেবে স্বীকারের জের, কাজ হারালেন পাকিস্তানের দুই সাংবাদিক]

সংবাদ সংস্থা এএফপি সূত্রে খবর, দক্ষিণ বেজিংয়ের ফেংতাই জেলার ১১টি এলাকায় বাসিন্দাদের চলাফেরায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন। ওই এলাকার নিকটেই একটি বাজার থেকে ফের করোনা ভাইরাস ছড়াচ্ছে বলে মত বিশেষজ্ঞদের। উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার প্রায় দু’মাস পর বেজিংয়ে করোনার মামলা সামনে এসেছে। আক্রান্তরা জিনফাদি মাংসের বাজারে গিয়ে সংক্রমিত হয়েছেন বলে খবর। ইতিমধ্যে ওই বাজারটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে স্কুলও। এছাড়াও, পাশের আরও একটি সামুদ্রিক প্রাণির বাজারও বন্ধ করেছে প্রশাসন। সব মিলিয়ে আপাতত বেজিংয়ের বেশ কয়েকটি এলাকাজুড়ে কড়া নিশেষধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।  

গত বছরের শেষের দিকে হুবেই প্রদেশের রাজধানী ইউহান শহরে প্রথম করোনা ভাইরাসের দেখা পাওয়া যায়। তারপর থেকে গোটা চিনেই হানা দেয় মারণ ভাইরাস। ক্রমে তা ছড়িয়ে পড়ে গোটা বিশ্বে। প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই করোনা নিয়ে একটি শ্বেতপত্র প্রকাশ করে জিনপিং সরকার। তাতে উল্লেখ, ২০১৯এর ডিসেম্বরের ২৭ তারিখ প্রথম বোঝা যায় যে, নিউমোনিয়া ইউহানের মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছে। তখনও ভাইরাসের পরিচয় বোঝা যায়নি। তাই উপসর্গগুলিকে স্রেফ নিউমোনিয়া বলে ভাবা হয়েছিল। তবে খটকা লেগেছিল, সংক্রমণের প্রকৃতি দেখে। সাধারণ নিউমোনিয়া তো এভাবে ছড়ায় না। একই রকম উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভরতি হচ্ছিলেন অনেকেই। সবটা স্পষ্টভাবে বুঝতে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি তৈরি করে প্রশাসন। পাশাপাশি বাড়ানো হয় সতর্কতাও।

[আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত মার্কিনীর শরীরে সফল ফুসফুস প্রতিস্থাপন, বিরল কৃতিত্ব ভারতীয় বংশোদ্ভূত ডাক্তারের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement