BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিপদের দিনেও অন্য রাষ্ট্রকে সাহায্য, ভারতকে ‘স্যালুট’ রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিবের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 18, 2020 12:25 pm|    Updated: April 18, 2020 12:25 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে মহামারির আকার নিয়েছে করোনা। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর পৃথিবীকে আর এত বড় বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হয়নি। সাম্প্রতিক অতীতে মানবজাতির সবচেয়ে বড় শত্রু এই COVID-19। বিশ্বের প্রায় সব দেশেই প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে এর মারক প্রভাব পড়েছে। ভারতেও ধীরে ধীরে জাল বিস্তার করছে করোনা। লকডাউনের প্রভাবে দেশে আর্থিক সংকটের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। অথচ, এ হেন সংকটের দিনেও ভারত আরও বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলির দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। যা প্রশংসাযোগ্য বলে মনে করছেন রাষ্ট্রসংঘের (United Nations) মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস (António Guterres)।

Antonio Guteres

[আরও পড়ুন: চিনের মতো করোনার সঠিক তথ্য দিচ্ছে না অনেক দেশই! ইঙ্গিত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার]

প্যারাসিটামল ও হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন, যা কিনা করোনা সংকট রুখতে বিশ্ববাসীর কাছে একমাত্র হাতিয়ার হিসেবে উঠে এসেছে। সংকটকালে সেই মহামুল্যবান হাতিয়ারগুলিই সংক্রমিত দেশগুলিকে দিয়ে সাহায্য করছে ভারত। বিদেশমন্ত্রক সুত্রের খবর, এখনও পর্যন্ত বিশ্বের মোট ৫৫টি দেশে এই দুটি ওষুধ রপ্তানি করেছে ভারত। তালিকায় আছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ইজরায়েল, ব্রাজিলের মতো দেশগুলির নাম। যা কিনা রাষ্ট্রসংঘের নজরে পড়েছে। বিপদের দিনে ভারতের এই মহানুভবতা প্রশংসাযোগ্য বলে মনে করছেন রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিবও।

[আরও পড়ুন: ‘আসলের ধারেকাছে নয়’, চিনে করোনা মৃত্যুর নতুন পরিসংখ্যান নিয়েও তোপ ট্রাম্পে]

এই দেশগুলির রাষ্ট্রপ্রধানরা আলাদা আলাদা করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (Narndra Modi) ধন্যবাদ জানিয়েছেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট থেকে শুরু করে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত সকলেই ভারতের এই ভূমিকায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এবার অ্যান্তোনিও গুতেরেসও ভারতের ভুমিকার প্রশংসা করলেন। বিশ্বপ্যাপী ভারত যেভাবে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন রপ্তানি করছে, তা নিয়ে রাষ্ট্রসংঘের প্রতিক্রিয়া কি? এই প্রশ্নের উত্তরে রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিবের তরফে তাঁর মুখপাত্র বলছেন, “রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব গোটা বিশ্বকে এই লড়াইয়ে যৌথভাবে কাজ করতে অনুরোধ করেছেন। অর্থাৎ, যেসব দেশের এই পরিস্থিতিতে অন্যদের সাহায্য করার ক্ষমতা আছে তাদের তা করা উচিত। যেসব দেশ এখন অন্যদের সাহায্য করছে, তাদের আমরা স্যালুট জানাই।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement