BREAKING NEWS

১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

প্রত্যাশামতোই পেনসিলভেনিয়া পেল ডেমোক্র্যাটরা, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত বিডেন

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: November 7, 2020 10:23 pm|    Updated: November 7, 2020 10:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অপেক্ষার অবসান। প্রত্যাশামতোই পরবর্তী মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন সেদেশের প্রাক্তন উপ–রাষ্ট্রপতি জো বিডেন। আমেরিকার ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হতে চলেছেন তিনি।

শনিবার পঞ্চম দিনের ভোট গণনা শুরু হতেই পেনসিলভেনিয়ার ২০টি ইলেক্টোরাল ভোট চলে যায় বিডেনের ঝুলিতে। ফলে সহজেই ২৭০টি ইলেক্টোরাল ভোটের ম্যাজিক ফিগার পার করে ফেলেন তিনি। তাঁর ইলেক্টোরাল ভোটের সংখ্যা এখন ২৭৩। অন্যদিকে, ডোনাল্ড ট্রাম্প আটকে রইলেন ২১৩তেই। ফলে আমেরিকার সবচেয়ে বেশি বয়স্ক প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন বিডেন। ইতিমধ্যেই মার্কিন প্রেসিডেন্সিয়াল নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি ভোট পাওয়ারও নজির গড়ে ফেলেছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ‘রাবণবধের মতো আলোর উৎসবে করোনাবধ হোক’, আগাম দীপাবলি-বার্তা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর]

পেনসিলভেনিয়ার ফল আসার আগে পর্যন্তও অবশ্য হুঙ্কার দিয়ে যাচ্ছিলেন ট্রাম্প। ভোটে পিছিয়ে থাকলেও হার মানতে নারাজ ছিলেন তিনি। কখনও আদালতে যাওয়ার হুমকি, কখনও আবার ভোটে কারচুপির অভিযোগ তুলছেন। আবার নিজেই ঘোষণা করে দিচ্ছেন, ‘‘‌আমি এই ভোটে জিতে গিয়েছি।’‌’ এছাড়াও‌ একাধিক ভুয়ো অভিযোগ তুলে টুইটও করেছেন। যার কোনও নির্দিষ্ট প্রমাণও নেই। কিংবা আদালত খারিজ করে দিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করে দেয় জো বিডেন শিবির।

ট্রাম্পের নাম না করেই বিডেনের শিবিরের মুখপাত্র অ্যান্ড্রু বেটস জানান, হোয়াইট হাউসে কোনও ‘‌অনুপ্রবেশকারীকেই’‌ রেয়াত করা হবে না। কেউ থাকলে তাঁকে অবশ্যই বের করে দেওয়া হবে। অর্থাৎ তাঁরা কোনওভাবেই ট্রাম্পের উদ্ধত আচরণ বরদাস্ত করবেন না। আগামী জানুয়ারি মাসে মেয়াদ শেষ হলেই হোয়াইট হাউস থেকে বেরিয়ে যেতে হবে। নাহলে নেওয়া হবে আইনানুগ ব্যবস্থা। এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে বেটস বলেন, ‘‌‘১৯ জুলাই আমরা বলেছিলাম, আমেরিকার সাধারণ মানুষই এবারের ভোটের ফলাফল ঠিক করবে। আর মার্কিন সরকার হোয়াইট হাউস থেকে যেকোনও অবৈধ বসবাসকারীকে বের করে দিতে সক্ষম।‌’‌’ বিশ্লেষকদের মতে, এই ‘‌অনুপ্রবেশকারী’ হিসেবে ট্রাম্পকেই ইঙ্গিত করতে চেয়েছেন বেটস।

উলটোদিকে, ট্রাম্প হার না মানলেও তাঁর শিবির এবং অন্যান্য রিপাবলিকান (Republican) নেতারা কিন্তু ইতিমধ্যে ভোটের হাওয়া বুঝতে পেরে গিয়েছেন। CNN–এর খবর অনুযায়ী, ট্রাম্পের এক অ্যাডভাইজার স্বীকারও করে নিয়েছেন, ভোটে কারচুপির যে অভিযোগ ট্রাম্প তুলছেন, তাঁর নির্দিষ্ট প্রমাণও তাঁদের হাতে নেই। এই পরিস্থিতিতে পরবর্তীতে নতুন করে ভোট গণনার আবেদন জানালেও সুবিধা হবে না ডোনাল্ড ট্রাম্পের।

[আরও পড়ুন: ‘পাক সেনায় বিদ্রোহের বীজ রোপণ করছেন শিয়াল নওয়াজ শরিফ’, তীব্র আক্রমণ ইমরানের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement