BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনার ভ্যাকসিন তৈরিতে ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ WHO’র নেতৃত্ব মানতে নারাজ আমেরিকা

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: September 2, 2020 5:47 pm|    Updated: September 2, 2020 5:47 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার ভ্যাকসিন তৈরি নিয়েও শুরু হয়ে গেল WHO এবং আমেরিকার বিবাদ। দিনকয়েক আগেই শোনা গিয়েছিল, করোনা থেকে বাঁচতে সব পর্যায়ের ট্রায়াল শেষের আগেই ভ্যাকসিন বাজারে আনতে পারে আমেরিকা। মঙ্গলবার যা নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেয় WHO। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আধিকারিকরা দাবি করেন, ভ্যাকসিন তৈরিতে তাড়াহুড়ো করলে বিপর্যয় নেমে আসতে পারে। তাই সব ট্রায়াল যত্নসহকারে শেষ করার পরই তা বাজারে আনার কথা ভাবা উচিত।  মঙ্গলবার এর পালটা এল আমেরিকার তরফে। তাঁরা স্পষ্ট ইঙ্গিত দিল, ভ্যাকসিনের ব্যাপারে WHO এর নজরদারি তাঁরা মানবে না। এই ভ্যাকসিন যাতে নিরাপদ হয়ে মানুষের কাছে পৌঁছায় সেটা আমেরিকা নিশ্চিত করবে। তবে, WHO‘র নেতৃত্বে নয়। 

উল্লেখ্য, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনেক আগেই বলেছে, করোনা (CoronaVirus) মোকাবিলায় ভ্যাকসিন সমহারে বণ্টন হওয়াটা খুব জরুরি। বিত্তবান দেশগুলি যদি অর্থের বলে ভ্যাকসিনগুলি কুক্ষিগত করে রাখে তাহলে কোনও কাজই হবে না। তাই ভ্যাকসিন যাতে উন্নয়নশীল এবং অনুন্নত দেশগুলিতেও সমানভাবে বণ্টন করা হয়, তা নিশ্চিত করতে বিশ্বের সব দেশকে একটা নতুন আন্তর্জাতিক জোটে আহ্বান করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। কিন্তু আমেরিকা সাফ জানিয়ে দিল, তাঁরা ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নেতৃত্বে কোনও যৌথ প্ল্যাটফর্মে অংশ নিতে পারবে না।

মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসের (White House) এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, “এই ভাইরাসটিকে পরাস্ত করার জন্য আমেরিকা বিশ্বের বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে কাজ করবে। তবে, চিন বা দুর্নীতিগ্রস্ত WHO পরিচালিত কোনও সংগঠনে আমরা শামিল হতে চাই না।” হোয়াইট হাউসের সাফ কথা, দুর্নীতিগ্রস্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নেতৃত্বে ভ্যাকসিন তৈরি বা সমহারে বিতরণের কোনও উদ্যোগেই অংশীদার হবে না মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (USA)। তাঁরা জানিয়েছে, আমেরিকা নিশ্চিত করতে চায় যে তাঁদের তৈরি ভ্যাকসিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ম মেনে সমস্ত পরীক্ষা নিরীক্ষার ধাপ পেরিয়ে তারপর সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছচ্ছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সাধারণ নাগরিকদের বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়ার চেষ্টা করছে বলেও জানানো হয়েছে হোয়াইট হাউসের তরফে।

[আরও পড়ুন: ইসলামের জন্য ‘হারাম’, করোনার সম্ভাব্য টিকা বয়কটের ডাক এই ইমামের]

আসলে করোনা ইস্যুতে শুরু থেকেই চিন এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে কাঠগড়ায় তুলে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প (Donald Trump)। শুরু থেকেই তাঁর দাবি, করোনার উৎস এবং ক্ষতিকর প্রভাব সম্পর্ক তথ্য গোপন করেছে চিন। আর WHO সেই কাজে চিনকে সাহায্য করেছে। এই অভিযোগ তুলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে অর্থ সাহায্য করাও বন্ধ করে দিয়েছেন তিনি। এবার WHO’র নেতৃত্বে কাজ করতে পুরোপুরিই অস্বীকার করল আমেরিকা। এর পাশাপাশি এদিন চিনকে আরও একবার তোপ দাগলেন ট্রাম্প। তাঁর অভিযোগ, করোনায় মৃতের সংখ্যা হাজার হাজার গুণ কমিয়ে বলেছে বেজিং।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement