BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লক্ষ্য করোনা ভ্যাকসিনের ২০০ কোটি ডোজ তৈরি, গোটা বিশ্বকে একজোট হতে বলল WHO

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 10, 2020 5:44 pm|    Updated: August 10, 2020 7:44 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) অনেক আগেই বলেছে, করোনা মোকাবিলায় ভ্যাকসিন সমহারে বণ্টন হওয়াটা খুব জরুরি। বিত্তবান দেশগুলি যদি অর্থের বলে ভ্যাকসিনগুলি কুক্ষিগত করে রাখে তাহলে কোনও কাজই হবে না। তাই ভ্যাকসিন যাতে উন্নয়নশীল এবং অনুন্নত দেশগুলিতেও সমানভাবে বণ্টন করা হয়, তা নিশ্চিত করতে বিশ্বের সব দেশকে একটা নতুন আন্তর্জাতিক জোটে আহ্বান করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। যার নাম দেওয়া হয়েছে কোভ্যাক্স।

কোভ্যাক্স (COVAX) নামের ওই জোটটি বেশ কিছুদিন আগেই তৈরি করা হয়েছিল। যাতে ইতিমধ্যেই ৭৫টি দেশ নাম লিখিয়েছে বলে দাবি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার। কিন্তু বিশ্বের তথাকথিত শক্তিধর দেশগুলির অনেকগুলি এই জোটে শামিল না হওয়ায় এটি ততটা গুরুত্ব পায়নি। এবার WHO নতুন করে বিশ্বের সব দেশকে অনুরোধ করছে এই জোটে যোগ দিতে। তাছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আগামী বছরের শেষের দিক পর্যন্ত করোনা ভ্যাকসিনের অন্তত ২ কোটি কার্যকরী ডোজ তৈরি করতে চায়। এবং সেজন্যও গোটা বিশ্বের একজোট জরুরি বলে মনে করছে তাঁরা।

[আরও পড়ুন: আগামী সপ্তাহেই বাজারে করোনা ‘ভ্যাকসিন’! রাশিয়ার দাবি ঘিরে শোরগোল বিশ্বজুড়ে]

বিশ্বজুড়ে ক্রমবর্ধমান করোনা আতঙ্কের মধ্যে আশার আলো দেখিয়েছে একাধিক ভ্যাকসিন। এই মুহূর্তে বিশ্বজুড়ে অন্তত গোটা ছয়েক ভ্যাকসিন ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল পর্যায়ে আছে। সব ঠিক থাকলে আগামী বছরের শুরুর দিকেই বাজারে করোনার প্রতিষেধক চলে আসতে পারে। কিন্তু WHO মনে করছে ভ্যাকসিন বণ্টনের ক্ষেত্রেও যদি ধনী-গরিবের ব্যবধান থাকে তাহলে কাজের কাজ হবে না। সেকারণেই ‘কোভ্যাক্স’ নামের জোটটি তৈরি। যার কাজই হল, ভ্যাকসিন তৈরির কাজে গরিব এবং উন্নয়নশীল দেশগুলিকে সাহায্য করা। এবং ভ্যাকসিন তৈরির পর কোনও দেশ যদি অর্থাভাবে তা কিনতে না পারে, তাহলে সেই দেশকে আর্থিক সাহায্য করা। যদিও, যে সমস্ত দেশ ইতিমধ্যেই ভ্যাকসিন তৈরির দৌড়ে অনেকটা এগিয়েছে, তাঁরা আদৌ এই জোটে থাকবে কিনা,সেটা নিয়ে সন্দেহ আছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement