BREAKING NEWS

১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ভাইফোঁটার আগেই সুখবর, দ্বিতীয় দফায় ওপার বাংলা থেকে রাজ্যে এল ২২ টন ইলিশ

Published by: Sayani Sen |    Posted: October 28, 2021 9:20 pm|    Updated: October 28, 2021 9:20 pm

Bangladesh exports hilsa fish in West Bengal । Sangbad Pratidin

সুকুমার সরকার, ঢাকা: সামনেই ভাইফোঁটা। ভাইয়ের কপালে ফোঁটা দিয়ে তাঁদের দীর্ঘায়ু কামনা করবেন বোনেরা। বিশেষ দিনে ভাইদের পাত ভালমন্দ খাবারে সাজিয়ে দিতে কার না মন চায়। আর যদি ইলিশের (Hilsa) রকমারি পদে সাজিয়ে দেওয়া যায় তাদের পাত তবে তো কথাই নয়। বোনেদের চাহিদাপূরণ হওয়া অসম্ভব কিছুই নয়। কারণ, কালীপুজো ও ভাইফোটার আগে পশ্চিমবঙ্গবাসীর জন্য সুখবর। ২৫ দিন বন্ধ থাকার পর আবারও ভারতে ইলিশ মাছ রপ্তানি শুরু হল।

বৃহস্পতিবার সন্ধে সাড়ে ৬টা নাগাদ ২২ টন ইলিশ মাছ ভারতে রপ্তানি করা হয়। প্রতি কেজি ইলিশের রপ্তানি মূল্য ১০ মার্কিন ডলার ধরা হয়েছে। ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশের কাস্টমস থেকে শুল্কমুক্ত সুবিধায় ইলিশের এসব চালান রপ্তানি করা হচ্ছে। কালীপুজো ও ভাইফোটা উৎসব সামনে রেখে ভারতে ইলিশ রপ্তানির সময়সীমা বাড়িয়ে আগামী ৫ নভেম্বর পর্যন্ত নির্ধারণ করেছে বাণিজ্য মন্ত্রক। এর আগে দুর্গাপুজো উপলক্ষে ৪০ মেট্রিক টন করে মোট ১১৫টি প্রতিষ্ঠানকে ৪ হাজার ৬০০ মেট্রিক টন ইলিশ মাছ রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। 

[আরও পড়ুন: আরিয়ানের জামিনে স্বস্তি, হাসিমুখে লিগাল টিমের সঙ্গে ছবি তুললেন শাহরুখ]

এর আগে কথা ছিল ঢাকা ৪৬০০ মেট্রিক টন ইলিশ পাঠাবে। গিয়েছিল ১০৮৫ মেট্রিক টন ইলিশ। ইলিশের প্রজনন মরশুম বলে ২২ দিন ইলিশ ধরাও বন্ধ হয়ে যায় বাংলাদেশে। তখন থেকেই সুখবরের অপেক্ষায় ছিলেন পশ্চিমবঙ্গবাসী। মঙ্গলবারই ঢাকার সচিবালয় জানিয়ে দেয়, আবার কিছুটা ইলিশ পাঠানো সম্ভব। ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম ৪ হতে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত সারা দেশে ইলিশ মাছ ধরা, মজুত, বাজারজাতকরণ, ক্রয়-বিক্রয় ও বিনিময় নিষিদ্ধ থাকায় নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ওই প্রতিষ্ঠানগুলি অনুমোদনকৃত ইলিশ রপ্তানি করতে পারেনি। তাই অনুমোদিত অবশিষ্ট ৩ হাজার ৪৯১ টন ৭২০ কেজি ইলিশ রপ্তানি আগামী ৫ নভেম্বরের মধ্যে পাঠানো হবে।

ইলিশ রপ্তানিকারক বিশ্বাস ট্রেডার্সের মালিক নূরুল আমিন বিশ্বাস বলেন, “এবার পুজোয় ভারতে চার হাজার ৬০০ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানি করার কথা ছিল। কিন্তু বাজারে ইলিশ সংকট থাকায়  মাছ ধরা,  মজুত, বাজারজাতকরণ, ক্রয় বিক্রয় ও বিনিময় নিষিদ্ধ থাকায় নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ইলিশ মাছ রপ্তানি করা যায়নি। সে কারণে বাকি ইলিশ রপ্তানির জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয় অনুমতি দিয়েছে। আগামী ৫ নভেম্বর পর্যন্ত ইলিশ মাছ রপ্তানি করা যাবে।” বেনাপোল মৎস্য পরিদর্শন ও মান নিয়ন্ত্রণ অফিসের পরিদর্শক আসওয়াদুল ইসলাম বলেন, “২৫ দিন বন্ধ থাকার পর ভারতে ইলিশ রপ্তানি আবার শুরু হয়েছে। বেনাপোল বন্দর দিয়ে গত ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত মোট ১ হাজার ১০৮ মেট্রিক টন ২৮০ কেজি ইলিশ রপ্তানি হয়েছিল।”

[আরও পড়ুন: স্ত্রীর গলায় কোপ স্বামীর, কাটা গলা জুড়ে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচালেন এসএসকেএমের চিকিৎসকরা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে