BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা ভাইরাসের জেরে বাংলাদেশে মৃত ১৪৫, আক্রান্ত বেড়ে ৫৪১৬

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: April 26, 2020 8:07 pm|    Updated: April 26, 2020 8:07 pm

An Images

ভারত থেকে পাঠানো চিকিৎসা সামগ্রীর সঙ্গে হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ

সুকুমার সরকার, ঢাকা: প্রাণঘাতী করোনা সংক্রমণের ৫০তম দিনে এসে বাংলাদেশে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৪৫ জন। আর আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ৪১৬। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে আরও ৪১৮ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের জীবাণু পাওয়া গিয়েছে। আর গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মধ্যে আরও পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে।

রবিবার প্রকাশিত সরকারি বুলেটিনে এই তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হওয়া পাঁচজনের মধ্যে দু’জন নারী এবং তিনজন পুরুষ রয়েছেন। ঢাকা শহরের চারজন এবং ঢাকার অধীনস্ত দোহার থানা এলাকার একজন। এর মধ্যে একজন শিশু মারা গিয়েছে। তার বয়স ১০ বছরের নিচে।

[আরও পড়ুন: করোনায় আক্রান্ত পুরোহিত-সহ ৩৬ জন, বন্ধ ঢাকার ইসকন মন্দির ]

 

এদিকে আজই করোনার সঙ্গে মোকাবিলা করার জন্য দ্বিতীয় দফার জরুরি চিকিৎসা সামগ্রী বাংলাদেশের হাতে তুলে দিল ভারত। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারত যেমন সর্বশক্তি নিয়োগ করেছিল এবারও এই মারণ ভাইরাসের মোকাবিলায় পাশে থাকল। ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ এই চিকিৎসা সামগ্রীগুলি হস্তান্তর করেন। এতে একলক্ষ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ট্যাবলেট এবং ৫০ হাজার জীবাণুমুক্ত সার্জিক্যাল ল্যাটেক্স গ্লাভস।

বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরবরাহ, প্রতিরক্ষামূলক সরঞ্জাম এবং সক্ষমতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে ভারত থেকে যে ধারাবাহিক সাহায্য করা হচ্ছে তার প্রশংসা করেন। বলেন, সংকটের সময়ে প্রতিবেশী বন্ধুর সহায়তাকে আমরা স্বাগত জানাই। হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশও কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বাংলাদেশ সরকারকে ভারতের তরফে সবরকম সাহায্য করা হবে বলেও প্রতিশ্রুতি দেন। সার্ক কোভিড-১৯ জরুরি তহবিলের আওতায় এর সংক্রমণ রোধে বাংলাদেশ সরকারের প্রচেষ্টায় সাহায্য করার উদ্দেশ্যে এই সাহায্য করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন। চিকিৎসা সামগ্রীগুলি বাংলাদেশ সরকারের কেন্দ্রীয় মেডিক্যাল স্টোর ডিপোতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে বিমান বাংলাদেশের সহায়তায় ওষুধগুলি ভারত থেকে আনা হয়। এই সময়োপযোগী সাহায্যের জন্য হাইকমিশন বিমান সংস্থার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে।

[আরও পড়ুন: বাংলাদেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৪০, আক্রান্ত পাঁচ হাজার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement