৭ ফাল্গুন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

বিক্রম রায়, কোচবিহার: কোচবিহার থেকে ফের মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ দাগলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করে কোনও লাভ নেই, সাফ জানালেন তিনি। নজর ঘোরাতেই পাহাড় সফরে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী, কটাক্ষ করলেন দিলীপ।

নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনে জেলায় জেলায় অভিনন্দন যাত্রার আয়োজন করা হচ্ছে। মঙ্গলবার কোচবিহারে অভিনন্দন যাত্রার আয়োজন করে গেরুয়া শিবির। অভিনন্দন যাত্রায় যোগ দিতে সকালেই কোচবিহার পৌঁছন বিজেপি সাংসদ। CAA’র সমর্থনে মিছিলে যোগ দেন তিনি। সেখান থেকেই মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করেন বিজেপি সাংসদ। বলেন, “নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় মুখ্যমন্ত্রী যাই করুন, তাতে কোনও লাভ নেই।” পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রীর উত্তরবঙ্গ সফরকেও কটাক্ষ করেন তিনি। দাবি করেন, নাগরিকত্ব ইস্যুতে বাংলা অশান্ত, তাই রাজ্যবাসীর নজর ঘোরাতেই পাহাড়ে পাড়ি দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মিছিল শেষে কোচবিহারেই সভাও করেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। এ দিনের সভা থেকে ফের  ৫০ লক্ষ অনুপ্রবেশকারীকে দেশ ছাড়া করার হুঁশিয়ারি দেন তিনি। 

[আরও পড়ুন: CAA’র প্রচারে বাধা, বিজেপি কর্মীদের মারধরের অভিযোগ কাউন্সিলরের ছেলের বিরুদ্ধে]

জনসভা থেকে সাংসদ বলেন, “রাজ্যে ৭০ লক্ষ মুসলিম অনুপ্রবেশকারী ছড়িয়ে রয়েছে। তাঁদের মধ্যে ৫০ লক্ষ মুখ্যমন্ত্রীর ভোটার। সেই ৫০ লক্ষকে শনাক্ত করার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। তাঁদের দেশ ছাড়তেই হবে।” মুখ্যমন্ত্রী কোনওভাবেই তাঁদের বাঁচাতে পারবেন না, এমনই হুংকার তোলেন দিলীপ। দাবি করেন, মুখ্যমন্ত্রী ভোটবাক্সের জন্য নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করছেন। তাঁর কথায়, “নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় রাজ্যে যে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল তাঁর জন্য দায়ী লুঙ্গিবাহিনী। আর মুখ্যমন্ত্রী ভোটের জন্যই তাঁদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন।” অনুপ্রবেশকারীদের পাশে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী ভূমিপুত্রদের অবহেলা করছেন এমন অভিযোগও করেন। এদিন ফের তিনি বলেন, কাগজ সবাইকে দেখাতেই হবে। বিজেপি সাংসদের মন্তব্যকে কেন্দ্র করে সমালোচনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। 

[আরও পড়ুন: লটারি কেটে রাতারাতি কোটিপতি হলেন মেকানিক, আতঙ্কে থানার দ্বারস্থ বনগাঁর বাসিন্দা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং