BREAKING NEWS

২২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শুক্রবার ৫ জুন ২০২০ 

Advertisement

জল খাচ্ছে তুলসীগাছ! ভাইরাল ভিডিও ঘিরে চাঞ্চল্য

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: November 7, 2019 1:06 pm|    Updated: November 7, 2019 1:07 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এতদিন শোনা যেত অমুক ঠাকুর জল খাচ্ছে, তমুক মূর্তি জল টানছে। তবে এবার ব্যাপার খানিক রহস্যজনক! জল খাচ্ছে তুলসীগাছ। শুনে নিশ্চয় অবাক হচ্ছেন! তাহলে ভিডিও দেখে তো চক্ষু চড়ক গাছ হওয়ার জোগাড় হবে মশাই! এমনটাই বলছে নেটিজেনদের একাংশ।

সম্প্রতি, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে তুলসীগাছের একটি ভিডিও। যেই ভিডিও শেয়ার করে অনেকেই দাবী করেছেন যে সেই তুলসীগাছ নাকি জল খাচ্ছে। ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ি জেলার পাহাড়পুর বড়ুয়াপাড়া এলাকায়। আর ওই ভিডিও ভাইরাল হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকা জুড়ে। এমনকী, জলপাইগুড়ি শহর সংলগ্ন গ্রামীণ এলাকায় যেন একপ্রকার হিড়িক পড়ে গিয়েছে ‘তুলসীগাছকে জল পান’ করানোর।

[আরও পড়ুন: দুর্গাপুরের শুটআউট, স্বর্ণ ব্যবসায়ীর গলা ফুঁড়ে বেরিয়ে গেল গুলি]

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে তুলসীগাছের সামনে এক মহিলা বাটি ধরে রয়েছেন। তবে ওই বাটির জল কমছে কি কমছে না, তা ওই ভিডিও দেখে ঠাহর করা দায়! অন্যদিকে, ভাইরাল ওই ভিডিও পুরোটাই ভুয়ো বলে দাবি করা হয়েছে জলপাইগুড়ি সায়েন্স অ্যান্ড নেচার ক্লাবের তরফে। শুধু তাই নয়, এধরনের ভুয়ো খবর ছড়ানোর জন্য প্রতিবাদে সরব হয়েছেন নেচার ক্লাবের সদস্যরা। জলপাইগুড়ি সায়েন্স অ্যান্ড নেচার ক্লাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই ধরনের গুজবের তীব্র নিন্দা করছেন তাঁরা। প্রযোজনে প্রতিবাদে পথে নামছেন। এবং খুব শিগগিরিই এসব গুজব রুখতে সচেতনতা প্রচারে নামতে চলেছেন তাঁরা।

সূত্রের খবর, এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ার পরই খবর যায় সায়েন্স অ্যান্ড নেচার ক্লাবের কাছে। এরপরই ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ তথা চিকিৎসক গৌতম ঘোষ সাফ জানান, তুলসী গাছের জল পান করার যে ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে, তা পুরোপুরি গুজব। গাছ জল পান করে একথা ঠিক, তবে তা পাতা দিয়ে নয়। গাছ জল শোষণ করে তাঁর শিকর দিয়ে। পাশাপাশি গৌতমবাবু এও উল্লেখ করেন যে, এই ঘটনা অনেকটা ‘গণেশ দুধ খাচ্ছে’ গোছের। ধর্মীয় উন্মাদনা বাড়াতে ইচ্ছে করেই কোনও কোনও মহল থেকে এ ধরনের অপপ্রচার করা হচ্ছে। অবিলম্বে সচেতনতা প্রচার চালু করা হবে।

দেখুন ভিডিও।

[আরও পড়ুন: ভরসা দিলীপের বচন! গোল্ড লোন চাইতে গরু নিয়ে হাজির কৃষক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement