BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

ভরসা দিলীপের বচন! গোল্ড লোন চাইতে গরু নিয়ে হাজির কৃষক

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: November 7, 2019 11:20 am|    Updated: November 7, 2019 11:20 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাকিরা মশকরা করলেও, দিলীপ ঘোষের বচনেই ‘ভরসা’ রাখলেন বাংলার এক কৃষক। ঋণদানকারী সংস্থার অফিসে গিয়ে তাঁর সাফ কথা, ‘গরু নিয়ে এসেছি। এর দুধে সোনা আছে। এটিকে জামিন রেখে লোন দিন। ‘

শুনতে হাস্যকর হলেও ঘটনাটি ঘটেছে হুগলি জেলার ডানকুনিতে। ঋণদানকারী সংস্থা ‘মনপ্পুরম ফাইনান্স লিমিটেড’-এর অফিসে হাজির হয়ে এমন আজব দাবিই জানিয়েছেন এক গোপালক। তাঁর যুক্তি, “দিলীপ ঘোষ বলেছেন গরুর দুধে সোনা থাকে। আমার ২০টি গাই রয়েছে। দুধ বেঁচেই আমার সংসার চলে। ভাবছি এদের বদলে গোল্ড লোন নিয়ে করবার আরও বাড়াব। ” স্বাভাবিকভাবেই, দিলীপবাবুর কথায় মোটেও আস্থা রাখতে পারেনি সংস্থাটি। গড়ালগাছা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মনোজ সিংয়ের দাবি, দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের পর থেকেই বিপাকে পড়েছেন তিনি। প্রায়ই গরু নিয়ে তাঁর কাছে আসছেন গ্রামের লোকজন। সবার মুখে একই প্রশ্ন, দুধে সোনা রয়েছে, এবার গরু বন্ধক রেখে কত লোন পাওয়া যাবে?

উল্লেখ্য, গত সোমবার বর্ধমান টাউন হলে ঘোষ ও গাভী কল্যাণ সমিতির এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি। সেখানেই গরু নিয়ে দীর্ঘ এক বক্তৃতায় নানা দিক তুলে ধরেন দিলীপ ঘোষ। বিদ্যা জাহির করে ওই অনুষ্ঠানে তিনি বলেন যে বিদেশ থেকে যেসব গরু আনা হয়েছে, তারা আদতে ‘গরু’ই নয়। তাদের দুধে কোনও গুণ নেই। ভারতীয় গরুর বৈশিষ্ট্য, তার দুধের মধ্যে সোনার ভাগ থাকে। তার জন্য দুধের রঙ একটু হলদেটে হয়। দেশি গরুর যে কুঁজ থাকে, তা বিদেশী গরুর মধ্যে থাকে না। তাদের পিঠটা সমান, মোষের মত। গরুর কুঁজের মধ্যে একটা নাড়ি থাকে তাকে স্বর্ণনাড়ি বলে। সেখানে সূর্যের আলো পড়লে সোনা তৈরি হয়। সেই জন্য গরুর দুধ হলদে হয়, সোনালি হয়। তাঁর এই মন্তব্য ঘিরে তৈরি হয় বিতর্ক।

[আরও পড়ুন: শক্তিবৃদ্ধি ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের, সপ্তাহান্তে ঝোড়ো হাওয়া-ভারী বৃষ্টির আশঙ্কা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement