২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘ভুল হলে রাগ নয়, মমতাকে মনে করে ভোট দিন’, করজোড়ে আবেদন অনুব্রত মণ্ডলের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 24, 2020 10:17 am|    Updated: August 24, 2020 10:20 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একগুচ্ছ দুর্নীতি, অনিয়মের দায়ভার মাথায় নিয়ে ২০১৬র বিধানসভা নির্বাচনী প্রচারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) বলতে হয়েছিল, ”২৯৪ টি কেন্দ্রে আমিই প্রার্থী।” নামেমাত্র প্রার্থীদের দাঁড় করানো হয়েছে, কিন্তু ভোট হবে এক ও একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামেই। হয়েছেও তাই। ২০১১র চেয়ে বেশি জনসমর্থন পেয়ে ২০১৬এ ফের রাজ্যের ক্ষমতায় আসীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। এবার প্রায় সেই একই নরম সুর শোনা গেল দলের দাপুটে নেতা অনুব্রত মণ্ডলের গলায়। কার্যত করজোড়ে তিনি বললেন, ”ভুল হলে রাগ করবেন না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মনে করবেন। এই ভোট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভোট।”

কিন্তু দলের এমন দোর্দন্ডপ্রতাপ নেতা, যাঁর নামেই নিয়ন্ত্রিত হয় লালমাটির রাজনীতি, যাঁর ‘পাঁচন’, ‘চড়াম চড়াম’ শব্দের প্রয়োগ প্রায় সকলের মুখে মুখে ঘোরে, তাঁর হঠাৎ এমন নরম সুর কেন? এই নিয়েও শুরু হয়েছে গুঞ্জন। আসলে আমফান পরবর্তী সময়ে রাজ্যবাসীর ক্ষতিপূরণ নিয়ে দুর্নীতির ভুরি ভুরি অভিযোগের মুখে পড়তে হয়েছিল শাসকদলকে। তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নিয়ে সেসবের বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী তথা দলনেত্রী পদক্ষেপ নেন। অভিযোগ উঠলেও শোকজ করা হয় দলের ছোট, বড় নেতাকে। ত্রাণের টাকা নিয়ে দুর্নীতি হয়েছে, এর বিন্দুমাত্র প্রমাণ পেলেই পদ খোয়াতে হয়েছে অনেককে। সেই পরিস্থিতি থেকেই কি ‘ভুলের’ কথা বললেন অনুব্রত? তিনিও কি মমতার মতোই বলতে চাইলেন, কোনও নেতার ইমেজ নয়, তৃণমূলের এক ও একমাত্র ভরসা আসলে এখনও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরই ইমেজ? তাই নেতাদের কোনও ভুলে যেন তাঁর প্রতি সমর্থন থেকে কেউ সরে না আসেন?

[আরও পড়ুন: ‘রবীন্দ্রনাথকে বহিরাগত বলতে পারে অসুস্থ এবং পাগলরাই’, উপাচার্যকে তীব্র আক্রমণ অনুব্রতর]

আসলে, সামনে একুশের লড়াই। সেই লড়াইয়ে জিতে হ্যাটট্রিকের হাতছানি মমতা সরকারের সামনে। তাই তার গুরুত্ব এবার আরও বেশি। তার উপর গত লোকসভা ভোটে উত্তরবঙ্গ এবং জঙ্গলমহলে গেরুয়া উত্থান বেশ চাপে রেখেছে রাজ্যের শাসকদলকে। এবারের লড়াইয়ে তাই একচুল ফাঁকফোকর রাখতে নারাজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অ্যান্ড কোং। বিশেষত জনসমর্থন টেনে ধরে রাখতে মরিয়া তৃণমূল নেতৃত্ব।

ইতিমধ্যে সংগঠনে বড়সড় রদবদল করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। স্বচ্ছ ভাবমূর্তির নেতাদের তুলে এনেছেন। লড়াইয়ে তাঁরাই থাকবেন সামনের সারিতে। জনপ্রিয়তাও একটা বড় ফ্যাক্টর, যে দৌড়ে সর্বাগ্রে রয়েছেন অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mandal)। রাজনৈতিক মহলের একাংশের মত, হয়ত সেই জনপ্রিয়তা অটুট রাখতেই কৌশল সাময়িক বদলালেন তিনি। কড়া মনোভাবের বদলে নরম সুরে কথা বলে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে পরোক্ষে ভোটপ্রার্থনাই করছেন অনুব্রত মণ্ডল।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে সুস্থতার হার প্রায় ৭৮ শতাংশ, চিন্তায় রাখছে উঃ ২৪ পরগনার করোনা পরিস্থিতি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement