BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরির নামের ‘হোম কোয়ারেন্টাইন’ নোটিস ডাকঘরের দেওয়ালে! তুঙ্গে বিতর্ক

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 7, 2020 8:44 pm|    Updated: April 7, 2020 8:55 pm

An Images

শংকরকুমার রায়, রায়গঞ্জ: নিয়ম অনুযায়ী ‘হোম কোয়ারেন্টাইনে’র নোটিস লাগানোর কথা ছিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরির (Debasree Chaudhuri) ফ্ল্যাটের বাইরে। কিন্তু নিয়ম বহির্ভূতভাবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর আবাসনের উপ-ডাকঘরের দেওয়ালে লাগানো হল স্বাস্থ্য দপ্তরের ‘হোম কোয়ারেন্টাইনের’ নোটিস! বিষয়টি আবাসনের সকলের নজরে পড়তেই শুরু হয়েছে চাপানউতোর।

দিল্লি থেকে রায়গঞ্জের সুদর্শনপুরের ফ্ল্যাটে ফিরেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরি (Debasree Chaudhuri)। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই ‘হোম কোয়ারেন্টাইনের’ নোটিস লাগাতে শনিবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর আবাসনে গিয়েছিলেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। কিন্তু বাধা দিয়েছিলেন দেবশ্রী চৌধুরি (Debasree Chaudhuri)। সতর্ক রয়েছেন বলেই জানিয়েছিলেন। এরপর মঙ্গলবার তাঁর আবাসনের ডাকঘরের দেওয়ালে লাগানো মন্ত্রীর নামের ‘হোম কোয়ারেন্টাইনে’র নোটিস নজরে পড়ল সকলের। এতেই সমস্যার সূত্রপাত। কেন নির্দিষ্ট ফ্ল্যাটের বাইরে না লাগিয়ে আবাসনের বাইরে এই নোটিস দেওয়া হল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। কেন সব আবাসিককে নোটিসের আওতায় ফেলা হল তা নিয়ে ক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠেন বাসিন্দারা। দিনাজপুর ডাকঘর বিভাগের সহকারি সুপার রবি লামা বলেন, “কোয়ারেন্টাইনের নোটিস ডাকঘরের দেওয়ালে লাগানো ঠিক হয়নি।”

[আরও পড়ুন: ‘করোনা নিয়ে তথ্য গোপন করলে মিলবে না বিমার সুবিধা’, ফের মমতাকে বিঁধলেন দিলীপ]

কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরি (Debasree Chaudhuri) বলেন, “কে কোথায় নোটিস ঝুলিয়েছে, তা আমার জানা নেই। সেই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিচ্ছি না। তবে এটা রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছু নয়।” এ প্রসঙ্গে বিজেপির জেলা সভাপতি বিশ্বজিৎ লাহিড়ী বলেন, “রাজনৈতিক নোংরামির একটা সীমা রয়েছে। প্রশাসনের একটা অংশকে কাজে লাগিয়ে শাসকদল রাজনীতি করছে।” প্রসঙ্গত, স্বাস্থ্যকর্মীদের ফিরিয়ে দেওয়ার পর দু’দিন আগেও পুলিশের পদস্থ কর্তা-সহ রায়গঞ্জ থানার পুলিশ ওই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর রায়গঞ্জের বাড়িতে গিয়েছিলেন। তাঁকে ‘হোম কোয়ারেন্টাইনে’ থাকার জন্য অনুরোধও করেন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তখন সাফ জানিয়ে দেন যে, দিল্লি থেকে কলকাতায় ফিরে ১৪ দিন নিজেকে গৃহবন্দি রেখেছিলেন। এরপর সড়কপথে রায়গঞ্জে এসেছেন। সম্পূর্ণ সুস্থ হওয়া সত্ত্বেও প্রশাসন বাধা দেওয়ায় নিজেকে ঘরবন্দি রেখেছেন বলেও জানান তিনি। মঙ্গলবারের ঘটনার পর দেবশ্রীদেবীর প্রশ্ন, সমস্ত নিয়ম মানার পর এই ধরনের কাজ কেন? তবে এবিষয়ে মুখ খোলেনি জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধান। প্রসঙ্গত, বিরোধীদের দাবি কলকাতা হয়ে নয় দিল্লি থেকে সোজা রায়গঞ্জে গিয়েছেন ওই মন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: প্রেমিকের সঙ্গে ঘরছাড়ার শাস্তি! চুল কেটে, মুখে কালি মাখিয়ে বধূকে গ্রামছাড়া করল প্রতিবেশীরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement