৩০ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

ভাঙড়ে আক্রান্ত জমি আন্দোলনের সমর্থকরা, কাঠগড়ায় শাসকদল

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: May 24, 2019 3:49 pm|    Updated: May 24, 2019 3:49 pm

An Images

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর:  ভোটের ফল ঘোষণা হতেই উত্তপ্ত রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত। একাধিক জায়গায় আক্রান্ত তৃণমূলের কর্মী, সমর্থকরা। কোথাও আবার আক্রমণের শিকার বিজেপি। এবার ঘটনাস্থল দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড়। জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ভাঙড়ে জমি আন্দোলনের সক্রিয় সমর্থকদের বাড়িতে হামলা চালায় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এদিন রাতেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। শুক্রবার সকালেও থমথমে এলাকা। 

[আরও পড়ুন: নিহত সত্যজিতের গড়ও হাতছাড়া তৃণমূলের, কৃষ্ণগঞ্জ উপনির্বাচনে জয়ী বিজেপি]

ভোটের ময়দানে যাদবপুর কেন্দ্রের ক্ষেত্রে ভাঙড় ছিল একটা বড় ইস্যু। আর লোকসভা নির্বাচনের দিন ঘোষণা হতেই যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রে বামফ্রন্ট মনোনীত সিপিএম প্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যকে সমর্থন করার কথা ঘোষণা করে জমি জীবিকা বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষা কমিটি এবং সিপিআই(এমএল) রেড স্টার। কমিটির নেত্রী শর্মিষ্ঠা চৌধুরী জানিয়েছিলেন, “আমরা যাদবপুর আসন থেকে না লড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বিকাশ ভট্টাচার্য আমাদের আন্দোলনকে সমর্থন করেছিলেন এবং যখন যেমন প্রয়োজন হয়েছিল, উনি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। তাই আমরাও সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এই কেন্দ্রে তাঁকেই সমর্থন করা হবে”। এরপর থেকে বাম প্রার্থীর সমর্থনে প্রচার চালায় জমি আন্দোলেনর সমর্থকরা। সেই সময় একাধিকবার শাসকদলের রোষের মুখে পড়তে হয় তাঁদের। ফলাফল ঘোষণার পরেও ছবিটা একই।  বৃহস্পতিবার ভোটের ফলাফল প্রকাশ্যে আসার পরই ভাঙড়ে জমি আন্দোলনের সক্রিয় নেতাদের বাড়িতে হামলা চালানোর অভিযোগ ওঠে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। ভাঙচুর চালানো হয় তাঁদের বাড়িতে। মারধর করা হয় বাড়ির সদস্যদের।

bhangar-2

[আরও পড়ুন: সরকারি কর্মীদের অসন্তোষ! পোস্টাল ব্যালট গণনার পর বিজেপির দখলে ৩৯টি আসন]

এরপরই ঘটনার প্রতিবাদে রাতেই ভাঙড়ের কাশীপুর থানার পদ্মপুকুর এলাকায় বিক্ষোভ দেখান আক্রান্তরা। বেশ কিছুক্ষণ চলে বিক্ষোভ। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে ঘটনাস্থলে যায় কাশীপুর থানার পুলিশ ও আধাসেনা। আক্রান্তদের অভিযোগ, লোকসভা ভোটে বামপ্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যের সমর্থনে প্রচার চালিয়েছেন তাঁরা। সেই কারণেই ভোট জয়ের পরই তাঁদের উপর চড়াও হয় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে অভিযুক্তেরা। পুলিশ সূত্রে খবর, আপাতত স্বাভাবিক রয়েছে এলাকা। মোতায়েন রয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement