১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘বাংলা বোমার কারখানা, সরকারের কোনও কিছুতেই নিয়ন্ত্রণ নেই’, মালদহ বিস্ফোরণ কাণ্ডে তোপ দিলীপের

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: November 19, 2020 4:38 pm|    Updated: November 20, 2020 1:35 pm

An Images

ছবি: মুকুলেসুর রহমান

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: বর্ধমান আদালতে হাজিরা দিয়ে জামিন নিলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বছরখানেক আগে পুলিশকে নিয়ে আপত্তিকর এবং উসকানিমূলক মন্তব্যের অভিযোগে রায়না থানায় মামলা দায়ের হয়েছিল বিজেপি সাংসদের বিরুদ্ধে। তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছিল বর্ধমান আদালত (Burdwan Court)। বর্ধমান থেকেই এদিন মালদহ বিস্ফোরণ প্রসঙ্গে শাসকদলকে আক্রমণ করেন দিলীপ ঘোষ।

নির্দেশ মেনে বৃহস্পতিবার দুপুরে বর্ধমান আদালতে পৌঁছন দিলীপ ঘোষ। সেখানে জামিনের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হওয়ার পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি। সেখানে দাঁড়িয়েও পুলিশ সম্পর্কে করা পূর্বের মন্তব্যকে সমর্থন করেন দিলীপ। বলেন, “এখন পুলিশের অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে। ডিএ না পেয়েই পে স্লিপে সই করতে হচ্ছে তাঁদের। শুধু পুলিশ না, চাকরি থেকে স্কুল-কলেজ সব জায়গাতেই টাকা-পয়সার ব্যাপার। এটা এখন সবার কাছেই পরিস্কার হয়ে গিয়েছে। এই সরকার থাকলে এর পরিবর্তন হবে না।”

[আরও পড়ুন: ভয়াবহ বিস্ফোরণ মালদহের প্লাস্টিক কারখানায়, ঘটনাস্থলেই মৃত ৫]

মালদহ বিস্ফোরণ প্রসঙ্গেও এদিন শাসকদলকে একহাত নেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি। বলেন, “এই সরকার যেদিন এসেছে তখন থেকেই একের পর এক বিস্ফোরণ হচ্ছে। বাংলা বোমা-বন্দুকের কারখানা হয়ে গেছে। বাইরে থেকে বিস্ফোরক আসছে, উগ্রপন্থী আসছে। এই সরকারের কোনও কিছুতেই কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। এরা শুধু বিজেপিকে আটকাতে ব্যস্ত।” মালদহ বিস্ফোরণে ঘটনায় এনআইএ তদন্তের দাবিও জানিয়েছেন তিনি। গরুপাচার কাণ্ড নিয়ে নাম না করে আক্রমণ করেছেন শাসকদলকে। দিলীপের মন্তব্যের পালটা দিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম। বলেন, “পুলওয়ামায় একটা বিস্ফোরক বোঝাই গাড়ি ঢুকে এতজনকে মেরে ফেলল, সেখানেও এনআইএ, কারখানার বিস্ফোরণেও এনআইএ! কেন্দ্রীয় এজেন্সির কি এতই সময় যে ছোটখাটো বিষয়েও তদন্তে নামবে?” প্রসঙ্গত, পুলিশকে নিয়ে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্যের অভিযোগে দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে যে মামলাটি দায়ের হয়েছিল সেটি বারাসত আদালতে স্থানান্তর করা হচ্ছে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর পরবর্তী শুনানি।

 

[আরও পড়ুন: গভীর রাতে তৃণমূল কর্মীকে কুপিয়ে খুন, ব্যাপক বোমাবাজি, উত্তপ্ত জগদ্দল]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement