৪ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বস্তির বাণী শোনাল হাওয়া অফিস। উত্তরবঙ্গে ইতিমধ্যেই পসরা সাজিয়েছে বর্ষা। এবার তার টার্গেট দক্ষিণবঙ্গ। এখানেও চুটিয়ে ব্যাট করার জন্য তৈরি দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু। তবে এখনই ময়দানে নামছে না বর্ষা। আরও কিছুটা সময় চাই তার। তবে তার আগে বিক্ষিপ্ত ভারী বর্ষণে দক্ষিণবঙ্গের রাস্তা পাকা করে নিতে চাইছে বর্ষা। যাতে ইনিংস খেলতে তার কোনও অসুবিধা না হয়।

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, মঙ্গলবার বিকেলে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে তার মানে এই নয় যে এর হাত ধরেই ঢুকবে বর্ষা। দক্ষিণবঙ্গে কবে বর্ষা ঢুকবে, তা এখনও নিশ্চিত নয়। বরং আরও কিছুদিন আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি বজায় থাকবে বলে খবর। গত কয়েকদিন ধরে ক্রমাগড় বেড়ছে তাপমাত্রা। মঙ্গলবার ৩৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে থাকবে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। ফলে গরম কমার কোনও সম্ভাবনাই নেই। তবে সাধারণত এই সময়ে বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয় নিম্নচাপ। এবারও সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছেন আবহবিদরা। কারণ সেই নিম্নচাপের হাত ধরেই দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু দক্ষিণবঙ্গে ঢুকবে।

[ আরও পড়ুন: রবীন্দ্রভারতীতে বর্ণবিদ্বেষের শিকার অধ্যাপিকা, ইস্তফা বিভাগীয় প্রধানদের ]

এবছর ভারতের মূল ভূখণ্ডে খানিকটা দেরিতেই ঢুকেছে বর্ষা। কেরলে ঢুকতেই প্রায় ১০ তারিখ পার করে দিয়েছে মৌসুমী বায়ু। উত্তরবঙ্গে কিছুদিন আগে ঢুকেছে বর্ষা। তার জেরে উত্তরবঙ্গ ও সিকিমে পর্যটকরা ভোগান্তির মুখে পড়েছে। প্রবল বর্ষণে জলস্তর বাড়তে শুরু করেছে। ফুলে উঠেছে তিস্তা। আগামী চার-পাঁচদিনের মধ্যে উত্তরবঙ্গে ভরা বর্ষা নেমে যাবে।

পূর্বাভাস, পূর্ব মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনা, নদিয়া-সহ কয়েকটি জেলায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হতে পারে। তবে বর্ষার অপেক্ষায় এখন তীর্থের কাকের মতো অপেক্ষা করা ছাড়া গতি নেই। এখনও পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গে বর্ষা সবচেয়ে দেরিতে এসেছে ২২ জুন। এবার পরিস্থিতি সেদিকেই গড়ায় কিনা, সেটাই দেখার। কারণ দক্ষিণবঙ্গে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি এখনই কাটবে না বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। তবে যদি বর্ষার আগে বৃষ্টির স্বাদ পাওয়া যায়, তাই বা মন্দ কী?

[ আরও পড়ুন: ‘চোরদের দলে রাখব না’, কাউন্সিলরদের বৈঠকে ফের চূড়ান্ত হুঁশিয়ারি মমতার ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং