১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘সব থেকে বড় কয়লা মাফিয়া বাবুল’, মুনমুনের প্রচারসভায় তোপ অরূপের

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 20, 2019 8:41 am|    Updated: April 20, 2019 8:55 am

An Images

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল: “যিনি নিজে কয়লার সঙ্গে যুক্ত। কয়লা মাফিয়াদের সঙ্গে যুক্ত। সেই মানুষটি কয়লা নিয়ে এত বড়বড় কথা বলে। বাবুলের থেকে বড় কয়লা মাফিয়া আর কেউ আছে বলে আমার জানা নেই।” শুক্রবার আসানসোলে দলীয় প্রচারে এসে বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়কে এইভাবেই তীব্র আক্রমণ করলেন রাজ্যের পূর্ত, ক্রীড়া ও যুবকল্যাণ মন্ত্রী তথা তৃণমূলের পশ্চিম বর্ধমান জেলার পর্যবেক্ষক অরূপ বিশ্বাস

[ আরও পড়ুন: ভোটপ্রচারে বাবুলের পাশে স্ত্রী ও কন্যা, বিঁধলেন মুখ্যমন্ত্রীকে]

শুক্রবার সকালে সীতারামপুরে হনুমান মন্দিরে পুজো দিয়ে প্রচার শুরু করেন তিনি। নিয়ামতপুরের বেলরুই মাঠের সভা, বিকেলে বিশাল রোড-শো, তারপর আসানসোলের মহিশীলা বটতলা বাজারে বিশাল জনসভা করেন। এই সভাস্থলের অদূরেই বাবুল সুপ্রিয়র বাড়ি। সেই সভা থেকেও বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে তোপ দাগেন আরূপবাবু। তিনি বলেন, “বাবুলের থেকে বড় কয়লা মাফিয়া আর কেউ আছে বলে আমার জানা নেই। ওর সম্পর্কে যত কম বলা যায় ততই ভাল। আমরা এই অঞ্চলের মানুষ। আমরা উন্নয়নে বিশ্বাস করি। সেটা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বেই হচ্ছে।” এতদিন প্রচারে নেমে বাবুল সুপ্রিয় তৃণমূল নেতাদের কয়লা, লোহা, বালি মাফিয়া বলে কটাক্ষ করছিলেন। বারাবনিতে গিয়ে সরাসরি তৃণমূলের ব্লক সভাপতিকে কয়লাচোর বলেছিলেন। এবার রাজ্যের মন্ত্রী সেই বাবুলকেই পালটা একহাত নিলেন।
এদিন সীতারামপুরে মন্দিরে পুজো দিয়ে মেয়র জিতেন্দ্র তেওয়ারিকে নিয়ে প্রচারের কাজ শুরু করেন অরূপ বিশ্বাস। নিয়ামতপুরের বেলরুই মাঠের সভায় বিজেপির বিভেদের রাজনীতি নিয়ে সরব হন অরূপবাবু। তিনি বলেন, “সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিয়ে ভোট চাইছে বিজেপি। ওরা আমাদের সবাইকে আলাদা করে লড়াই লাগিয়ে বিভেদের রাজনীতি করছে। মনে রাখতে হবে আল্লাহ ভগবান কোনও দলের এজেন্ট নয়।”

[ আরও পড়ুন: বিজেপিকে ঠেকাতে অভিনব কৌশল, জঙ্গলমহলে হনুমানের নামে দল গড়ল তৃণমূল]

এদিনের সভায় হনুমানজির বিশল্যকরণী আনতে গিয়ে হিমালয় পর্বত নিয়ে আসার প্রসঙ্গ টেনে তৃণমূলের জেলা পর্যবেক্ষক বলেন, “দিদি আসানসোল আসনটি চেয়েছেন। মুনমুন সেনকে জয়ী করার কথা বলেছেন। শুধু জয় নয়, আমরা যেন সাতটা বিধানসভা আসনেই লিড নিয়ে আসতে পারি। বিশেষ করে কুলটি বিধানসভাটিও বিপুল পরিমাণে ভোটে জিতিয়ে দিদির কাছে সমর্পণ করতে পারি। সেই কাজটা করতে পারে উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায় ও জিতেন্দ্র তেওয়ারি। তবেই ৪২-এ ৪২ আসনের লক্ষ্যপূরণ হবে।” বিকেলে তৃণমূলের তারকা প্রার্থী মুনমুন সেনকে নিয়ে অরূপ বিশ্বাস, মেয়র, বারাবনির বিধায়ক বিধান উপাধ্যায়রা রোড শো করেন। খোলা গাড়িতে ছিলেন প্রার্থী। আগে পিছনে ছিল বিশাল বাইক মিছিল। ছিল টোটোর মিছিলও। বাবুলের থিম সংয়ের পালটা ‘দিদি তোমায় আবার চাই’ গানটি এদিনের শোভাযাত্রায় বাজতে থাকে। হাজার হাজার মানুষের বিশাল শোভাযাত্রাটি হয় গিরমিন্ট থেকে দোমহানি পর্যন্ত। রাস্তার দু’পাশে গ্রামের মানুষ অভিবাদন করেন মহামিছিলটিকে। পরে সভায় হিন্দিভাষীদের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী কী করেছেন তা তুলে ধরেন অরূপবাবু। মেয়র জিতেন্দ্র তেওয়ারিকে দরাজ সার্টিফিকেট দিয়ে জানান, হিন্দিভাষীদের জন্য মেয়রের বুকে কতটা জায়গা আছে তা হনুমানজির মতো বুক চিরে দেখালেই বোঝা যাবে। অরূপবাবুর এদিনের বক্তব্যে প্রতিবাদ করে বাবুল সুপ্রিয় টুইট করেছেন। তিনি বাংলা প্রবাদের মাধ্যমে অরূপবাবুর নামে কটাক্ষ করে লিখেছেন, ওনার স্বরূপ সবার জানা আছে। করুণা হয় এদের জন্য।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement