BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘মমতাকে না সরালে ISIS হামলার মুখে পড়বে বাংলা’, কৈলাসের মন্তব্য ঘিরে শোরগোল

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: April 28, 2019 7:00 pm|    Updated: April 28, 2019 7:00 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘শীঘ্রই আসছি’, বাংলা ভাষায় এরাজ্যে হামলার হুমকি এসেছিল ইসলামিক স্টেটের তরফে৷ তারপর ২৪ ঘণ্টাও কাটেনি৷ এর মধ্যেই এই পোস্টারের নেপথ্যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘তোষণ রাজনীতি’কে দায়ী করলেন পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়৷ হাওড়া কেন্দ্রের প্রচারে জনসভা থেকে তাঁর তীব্র কটাক্ষ, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে না সরালে কলকাতায় হামলা চালাতে পারে আইএস৷’

[ আরও পড়ুন : বুথে নজরদারির দায়িত্বে নাবালকরা! বিতর্ক তুঙ্গে আউশগ্রামে]

এমন মন্তব্যের পিছনে যুক্তিও সাজিয়েছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়৷ তাঁর কথায়, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেভাবে তোষণের রাজনীতি করছেন, তার জন্যই আইএস এমন পোস্টার দেওয়ার সাহস করেছে৷ পশ্চিমবঙ্গের বিপদের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই দায়ী৷ মমতাকে না সরালে, এরাজ্যের অবস্থাও জম্মু-কাশ্মীরের মতোই হবে৷’ চতুর্থ দফা ভোটের আগে কৈলাস বিজয়বর্গীয়র তাঁর এই মন্তব্য নিয়ে যথারীতি তোলপাড় হচ্ছে রাজ্য রাজনীতি৷ সঙ্গে সঙ্গেই প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তৃণমূল মহাসচিব৷ পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের পালটা জবাব, ‘এসব বলে দেশে ভাঙন ধরাতে চাইছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়৷ তাঁরা হতাশা থেকেই এসব বলছেন৷ এসব বলে তাঁরা উত্তেজনা ছড়াতে চাইছেন৷’

[ আরও পড়ুন : প্রাণে বাঁচতে ক্রেন থেকে মরণঝাঁপ অপারেটরের! হলদিয়া বন্দরের ঘটনায় চাঞ্চল্য]

শনিবার আইএস-এর নাম দিয়ে স্পষ্ট বাংলায় পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছিল, যাতে লেখা ছিল – ‘শীঘ্রই আসছি’৷ টেলিগ্রাম নামে একটি মেসেজিং অ্যাপে এই পোস্টার প্রকাশিত হয়৷ গোয়েন্দাদের আশঙ্কা, এবার বাংলাদেশ এবং পশ্চিমবঙ্গই তাদের মূল টার্গেট৷ পোস্টার প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে নড়েচড়ে বসেছে গোয়েন্দা দপ্তর৷ বিভিন্ন স্তরে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে৷ কিন্তু দেশের নিরাপত্তাজনিত এমন একটা বিষয়ও যে রাজনীতির বেড়াজালে জড়িয়ে পড়বে, তা বোধহয় ভাবতে পারেনি কেউ৷ কিন্তু রবিবার কৈলাস বিজয়বর্গীয়র মন্তব্যের পর স্পষ্ট হচ্ছে, ভোটের মরশুমে কোনও ইস্যুই রাজনীতির আগল গলে যেতে পারবে না৷

[ আরও পড়ুন : ভুটান পাহাড়ে তুমুল বৃষ্টি, বন্যায় ভাসল ডুয়ার্সের বিন্নাগুড়ি ও বানারহাট]

এর আগে পুলওয়ামা হামলার জবাবে বালাকোটে এয়ারস্ট্রাইকের প্রমাণ দাবি করেছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেসময় বিজেপি নেতৃত্বের কটাক্ষ ছিল, পাকিস্তান প্রীতি রয়েছে মমতার৷ তাই জঙ্গিদের মৃত্যুতে তাঁর কষ্ট হয়েছে৷ মমতার বিরুদ্ধে আগেও একাধিকবার সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ তুলেছিল বিজেপি৷ এবারও প্রায় সেই একই ভাষায় কটাক্ষ করে গেলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়৷ যা নজিরবিহীন৷ এনিয়ে কমিশনের দ্বারস্থ হতে পারে তৃণমূল৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement