৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

হাত ধরাধরি করে থাকুক মানুষ-বন্যপ্রাণ, প্রকৃতি দিবসে পোস্টারে বার্তা স্কুলপড়ুয়াদের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: April 22, 2019 6:33 pm|    Updated: April 22, 2019 6:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বন্যপ্রাণ বাঁচান, প্রজাতির যত্ন করুন, বিশ্বকে সুন্দর রাখুন৷ এই বার্তা নিয়েই প্রকৃতি দিবসে পোস্টার আঁকল স্কুল পড়ুয়ারা৷ ছোটদের কাঁচা হাতের কাজ হলেও, সেসব ছবিতে ছিল অন্তরের ছোঁয়া৷ যে অন্তর পশুপ্রেমী, প্রকৃতিপ্রেমী৷

কোনও পাতায় অনভিজ্ঞ হাতের রেখায় ফুটে উঠেছে এক শরীরে তিন প্রাণীর অবয়ব৷ কোথাও আবার হলুদ-কালো ডোরাকাটা বাঘ৷ ছবির সঙ্গে সতর্কতা প্রচারমূলক কিছু লেখা৷ স্যাংচুয়ারি এশিয়া, শের এবং কিডস ফর টাইগারসের তরফে সোমবার প্রকৃতি দিবস উদযাপন করল এভাবেই৷ শামিল হয়েছিল বেহালার এমপি বিড়লা স্কুলের পড়ুয়ারাও৷ মূল উদ্যোক্তা রাজ্যের বন্যপ্রাণ সংরক্ষণ বোর্ডের সদস্য এবং ‘শের’ সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা জয়দীপ কুণ্ডু৷ বিকেল ৩টে থেকে হওয়ার পোস্টার তৈরি অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছে প্রায় ৭৭০ জন ছাত্রছাত্রী৷ একেকজন একেকরকম ভাবে ভাবনাচিন্তা করে তৈরি করেছে পোস্টার৷

[আরও পড়ুন : বিশ্ব বাংলার গেটের নিচে ডিজিটাল স্পেস, শহরে নতুন চমক]

জয়দীপ কুণ্ডু বলছেন, ‘যে যাই এঁকে থাকুক, বার্তা খুব স্পষ্ট৷ প্রকৃতির অস্তিত্ব তার নিজের জন্য নয়৷ বরং প্রকৃতিক সদস্যদের পরস্পরের জীবন পরস্পরের উপর নির্ভরশীল৷ নদী যেমন আশেপাশের জমিকে সজল, সতেজ করতে করতে বয়ে যায়, গাছ যেমন প্রাণিকূলকে অক্সিজেন জোগানোর জন্য বেঁচে থাকে, ঠিক সেভাবেই প্রকৃতির ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য বন্যপ্রাণের অস্তিত্ব জরুরি৷ বাঘ, হাতি, গণ্ডাররা প্রকৃতি বন্ধু৷’ কিন্তু ইদানিং গহন অরণ্যে থাকা এসব জীবজন্তুর সংখ্যা কমছে নগরায়ণের দাপটে৷ বাসস্থান হারাচ্ছে চারপেয়ের দল৷ ২০১৯এর প্রকৃতি দিবসে আমরা যেন তাদের জন্য জায়গা করে দিই৷ এই আবেদন নিয়েই মনের মতো পোস্টার আঁকল বাচ্চারা৷ শুধু জঙ্গলের বাসিন্দারাই বা কেন? নিজেদের চারপাশের গাছ, পাখি, ফুল-এদের যত্নও তো নিতে পারি৷ সেই বার্তাই রয়েছে খুদেদের ছবির পাশে৷

[আরও পড়ুন : ‘বাংলায় পদ্ম ফুটছেই’, কলকাতায় এসে দাবি আত্মবিশ্বাসী অমিত শাহর]

যে কটি বন্যপ্রাণ প্রজাতি ঝুঁকির মুখে, তার মধ্যে অন্যতম বাংলার গর্ব রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার৷ বিভিন্ন কারণে সংখ্যা কমছে৷ যারা রয়েছে, তাদেরও জীবন বিপন্ন৷ এমপি বিড়লার ছোট পড়ুয়াদের আবেদন, মানুষ যেমন নিজের জায়গা সুরক্ষিত রাখতে তৎপর, তেমনই বন্যপ্রাণীদের থাকার নিরাপদ, যথাযথ পরিবেশও দরকার৷ আর বাঘ, গণ্ডার, পাখির মতো প্রকৃতির আরেক দল সদস্যের জন্য যেন আমরাই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিই৷ নাহলে প্রতিবারের মতো এবারও ব্যর্থ হবে প্রকৃতি দিবস উদযাপন৷

drawing

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement