১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  সোমবার ২৭ মে ২০১৯ 

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ দেশের রায় LIVE রাজ্যের ফলাফল LIVE বিধানসভা নির্বাচনের রায় মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ক্ষমতায় ফেরা নিয়ে চূড়ান্ত আত্মবিশ্বাসী বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব৷ মাত্র দু’দফা ভোটের পরই জনরায় তাদের দিকে যাচ্ছে বলে ইঙ্গিত পেয়েছেন নেতারা৷ সোমবার, রাজ্য সফরে এসে কলকাতার এক পাঁচতারা হোটেলে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে দলের সর্বভারতীয় সভাপতি সাফ জানালেন, দিল্লিতে মোদির ফেরা নিশ্চিত৷ বাংলায় পদ্মের বিকাশ কেউ আটকাতে পারবে না৷

[ আরও পড়ুন : এক দশক ধরে নিখোঁজ, হ্যাম রেডিওর সৌজন্যে ঘরে ফিরলেন ভিনরাজ্যের প্রৌঢ়া]

১১ এবং ১৮ এপ্রিল, লোকসভা নির্বাচনের সবে দু’ দফা শেষ হয়েছে৷ এখনও বাকি ৫ দফা ভোটগ্রহণ পর্ব৷ প্রাথমিকভাবে এনডিএ বনাম বিরোধী জোট – দ্বিমুখী লড়াই বিজেপির কাছে কিছুটা কঠিন হলেও, দু’দফা ভোটের পরই তাঁদের আত্মবিশ্বাসের পারদ চড়তে শুরু করেছে৷ এদিন নিউটাউনের পাঁচতারা হোটেলে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে অমিত শাহ বললেন, ‘মানুষ এবার ভোট দিয়েছেন বাংলায় বদল আনার জন্য৷ বাংলায় এবার পদ্ম ফুটবেই৷ দু’দফা ভোটের পরই আমরা বুঝতে পারছি, মোদির পক্ষেই জনরায়৷ গত ৫ বছরে মোদি সরকার দেশের সুরক্ষা, অর্থনৈতিক ক্ষেত্র, দারিদ্র দূরীকরণে এত কাজ করেছে, যার উপর ভরসা রেখে মানুষ আগামী ৫ বছরের জন্য ফের মোদিকেই নির্বাচিত করতে চান৷ জনতা ঠিক করে নিয়েছে, তৃণমূলকে সরিয়ে বিজেপিকে আনবে৷’

এই প্রসঙ্গে মোদি জমানার কাজের সংক্ষিপ্ত খতিয়ানও পেশ করেন অমিত শাহ, যা সাধারণত প্রচারসভায় বলে থাকেন৷ রাজ্যে বিজেপি বিরোধী মূল শক্তি তৃণমূলকে বিঁধলেন স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে৷ মুখ্যমন্ত্রীর জনসভাগুলিকে নিশানা করে তাঁর কটাক্ষ, ‘বাংলায় সংবাদমাধ্যমগুলিও পক্ষপাতিত্ব করছে৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভাগুলির মঞ্চ দেখানো হয়, ভিড় দেখানো হয় না৷ কারণ, ভিড় দেখাতে গেলে তার আসল ছবি স্পষ্ট হয়ে যাবে৷ ভিড় হচ্ছে না বলেই মমতাকে হেঁটে প্রচার করতে হচ্ছে৷ নিজে এরাজ্যে গণতন্ত্র হত্যা করেছেন৷ তারপর এখন ওনার মুখে শুনছি গণতন্ত্রের কথা৷যাক, ভাল লাগছে শুনে৷’ পুলিশ রাজনৈতিক নেতাদের মতো আচরণ করছে বলেও অভিযোগ করেছেন অমিত শাহ৷

[আরও পড়ুন: ভাগ্নেকে অপহরণ করে ৩০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি, জালে অভিযুক্ত মামা]

এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে ফের এনআরসি এবং নাগরিকত্ব বিল কার্যকর করার কথা বলেন অমিত শাহ৷ ফের স্পষ্ট করে দেন, বাংলাদেশ-সহ প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলি থেকে এদেশে আশ্রয় নেওয়া হিন্দু, বৌদ্ধ শরণার্থীদের নাগরিকত্ব প্রদান করবে পরবর্তী সরকার৷ ইস্তেহারে উল্লেখিত ৩৭০ এবং ৩৫-এ ধারা সংশোধনের বিষয়টি নিয়ে ফের অমিত শাহ বলেন, ভবিষ্যৎ কর্মসূচি ঠিক করেই ইস্তেহার বানিয়েছে বিজেপি৷ কিন্তু বিরোধীদের কারও ইস্তেহারে কোনও দিশা নেই৷ কাজের নয়, ইস্তেহার তৈরি হয়েছে কুর্সিতে বসার লড়াইয়ে টিকে থাকার জন্য৷ এদিন পুরুলিয়ায় নিহত তরুণ বিজেপি কর্মী শিশুপাল সহিসের মৃত্যুর দায় রাজ্যের শাসকদলের উপর চাপিয়েছেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি৷   

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং