BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘বিজেপি করলে মাথা কেটে নিয়ে যাব’, হুমকি পোস্টারে চাঞ্চল্য মধ্যমগ্রামে

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: June 3, 2019 2:02 pm|    Updated: June 3, 2019 4:16 pm

An Images

ব্রতদীপ ভট্টাচার্য, বারাসত: ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দেওয়াকে কেন্দ্র করে যখন সরগরম রাজ্য রাজনীতি, তখন বিজেপি করলে মাথা কেটে নেওয়ার হুমকি দিয়ে পড়ল পোস্টার৷ আর তা ঘিরেই চাঞ্চল্য ছড়াল মধ্যমগ্রামে। ঘটনায় একে অপরের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস।

[ আরও পড়ুন: রাজনীতির বলি এক খুদে, তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে মৃত্যু ঘিরে ধুন্ধুমার]

লোকসভা ভোট মিটেছে। এ রাজ্যে ১৮টি আসনে জিতে তৃণমূল কংগ্রেসের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে বিজেপি। ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি ঘিরেও বিতর্ক তুঙ্গে। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে এখন তৃণমূল কর্মীদের দেখলেই  ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিচ্ছেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। এমনকী, দিন কয়েক আগে ভাটপাড়ায় খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কনভয়ের সামনেও শোনা দিয়েছিল ‘জয় শ্রীরাম’। তাতে মেজাজ হারান মুখ্যমন্ত্রী। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছায় যে, ‘জয় শ্রীরাম’-এর পালটা ‘জয় হিন্দ-জয় বাংলা’ স্লোগান তৈরি করেছে তৃণমূল। এই যখন পরিস্থিতি, ঠিক তখনই একটি হুমকি পোস্টারকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল মধ্যমগ্রামে।

মধ্যমগ্রাম পুর এলাকার পাটুলি শিবতলার একটি সেলুন চালান গোকুল শীল। সোমবার সকালে যখন দোকান খুলতে যান, তখন তিনি দেখেন, সেলুনের বন্ধ শাটারের গায়ে একটি পোস্টার পড়েছে। সাদা কাগজের ওই পোস্টারে লাল কালি দিয়ে লেখা, ‘বিজেপি করলে মাথা কেটে নিযে যাব।’ কিন্তু কারা দিল এমন পোস্টার? তা এখনও স্পষ্ট নয়। কারণ, পোস্টারের নিচে কোনও ব্যক্তি বা সংগঠনের নাম লেখা ছিল না। স্থানীয় বাসিন্দাদের অনুমান, রবিবার রাতে অন্ধকারে কেউ বা কারা ওই পোস্টার লাগিয়ে দিয়ে গিয়েছে। এদিকে এই ঘটনা জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে মধ্যমগ্রামে। বিজেপির অভিযোগ, এলাকায় রাজনৈতিক দাঙ্গা বাঁধানোর চেষ্টা করছে তৃণমূল কংগ্রেস। ওই পোস্টার লাগিয়েছেন এ রাজ্যের শাসকদলের কর্মী-সমর্থকরা। অন্যদিকে বিজেপির বিরুদ্ধে আবার পালটা চক্রান্তের অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। মধ্যমগ্রামে বারাসত লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত। এই কেন্দ্রে এবারও জিতেছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী ও বিদায়ী সাংসদ কাকলি ঘোষদস্তিদার। আর তারপর থেকে তৃণমূল কর্মীদের আস্ফালন আরও বেড়েছে বলেই অভিযোগ৷

[আরও পড়ুন: চায়ের দোকানে বিজেপি কর্মীদের উপর হামলা, চলল গুলি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement