২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বুথে গুলি চালিয়ে কাঠগড়ায় তৃণমূল নেতা, অভিযোগ অস্বীকার শাসকদলের

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 18, 2019 5:55 pm|    Updated: April 18, 2019 7:50 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  দ্বিতীয় দফার নিবার্চনের শেষলগ্নে গুলি চলল ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা  জলপাইগুড়ির খারিজা বেরুবাড়ি এলাকায়। যদিও গুলিতে জখম হননি কেউ। তবে ভোট চলাকালীন গুলির ঘটনায় আতঙ্ক  ছড়িয়েছে স্থানীয়দের মধ্যে। অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত এক দুষ্কৃতীই গুলি চালিয়েছে। প্রিসাইডিং অফিসারকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। 

[আরও পড়ুন: কালিম্পংয়ে গুরুং ঘনিষ্ঠ নেতার গাড়িতে ভাঙচুর, আক্রান্ত সংবাদমাধ্যম]

দ্বিতীয় দফার ভোটের শেষলগ্নেও ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে জলপাইগুড়ি। অভিযোগ, জলপাইগুড়ির সতীশচন্দ্র কালীবাড়ি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোটকেন্দ্রে অস্ত্র নিয়ে হানা দেয় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্ক়ৃতীরা। কেন্দ্রের ভিতর ঢুকে শূন্যে গুলি চালায় তাঁরা। ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন ওই কেন্দ্রে থাকা ভোটকর্মী ও লাইনে থাকা ভোটাররা। অভিযোগ, গুলি চালানোর পর প্রিসাইডিং অফিসারকে মারধর করে অভিযুক্তরা। এরপরই ঘটনাস্থল থেকে চম্পট দেয় তাঁরা। সূত্রের খবর, বান্টি সরকার নামে এক তৃণমূল নেতা গুলি চালিয়েছে। এ প্রসঙ্গে জলপাইগুড়ির তৃণমূল জেলা সভাপতি সৌরভ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, তৃণমূলের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা হচ্ছে। তাঁরা কোনওভাবেই এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত নন।

এছাড়াও এদিন সকাল থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর প্রকাশ্যে এসেছে। রায়গঞ্জ ও দার্জিলিং লোকসভা কেন্দ্রের বিভিন্ন এলাকায় আক্রান্ত হয়েছেন অনেকেই। চোপড়ায় বোমাবাজির অভিযোগ ওঠে দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। পরিস্থিতি আয়ত্ত্বে আনতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। কালিম্পংয়ে ভাঙচুর করা হয় গাড়িতে। জলপাইগুড়ির বেলাকোবায় কোমরে রিভলভার নিয়ে ভোট দিতে বুথে ঢোকেন বনদপ্তরের রেঞ্জার সঞ্জয় দত্ত। এই নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক।  অভিযোগ করা হয় কমিশনে।

[আরও পড়ুন:‘মৌসম কংগ্রেস ছেড়ে ভাল করেছে’, মালদহের সভা থেকে বিরোধীদের সপাট জবাব মমতার]

তবে এধরনের বিক্ষিপ্ত কয়েকটি অশান্তি ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবেই ভোটগ্রহণপর্ব মিটেছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচনী পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে। ভোটদানের হারও বেশ ভালই৷ বিকেল ৫ টা পর্যন্ত দার্জিলিং-এ ভোটদানের হার ৭২.৩০ শতাংশ। জলপাইগুড়িতে ভোটের হার ৮২. ৭৬ শতাংশ। রায়গঞ্জে ৭৩.৩১ শতাংশ। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement