BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘মেরে ঠ্যাং ভেঙে দেবে বাংলার মানুষ’, অমিত শাহকে হুঁশিয়ারি ফিরহাদের

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 22, 2019 7:50 pm|    Updated: April 22, 2019 7:50 pm

An Images

নন্দন দত্ত, সিউড়ি: ফের বিস্ফোরক ফিরহাদ হাকিম৷ এবার সরাসরি নির্বাচন কমিশনকেই আক্রমণ করলেন তিনি। রামপুরহাটে রোড শো করে নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তৃণমূল নেতা। তিনি বলেন, “বাংলায় সব কটা বুথে শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন হচ্ছে। তা সত্ত্বেও বাংলায় এসে নির্বাচন কমিশন মস্তানি দেখাচ্ছে। এটা মোদির ষড়যন্ত্র। তাই এর জবাব দিতে হবে ভোটে৷’’ সোমবার রামপুরহাটে বীরভূম লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী শতাব্দী রায়ের সমর্থনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিজেপিকেও আক্রমণ করেন পুরমন্ত্রী তথা কলকাতা কর্পোরেশনের মেয়র ফিরহাদ হাকিম। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের পা ভেবে দেওয়ারও হুমকি দেন তিনি।

[ আরও পড়ুন: বারাকপুরে তৃণমূলে ভাঙন, অর্জুনের হাত ধরে বিজেপিতে বিধায়কের ছেলে]

সোমবার সকালে রামপুরহাটের পাঁচমাথা মোড়ে সভা করেন ফিরহাদ হাকিম। সভায় পুরমন্ত্রী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কৃষিমন্ত্রী তথা এলাকার বিধায়ক আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, বীরভূম জেলার তৃণমূলের সহ সভাপতি অভিজিৎ রানা সিংহ, সৈয়দ সিরাজ জিম্মি। সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে আগাগোড়া বিজেপিকে আক্রমণ করেন ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেন, “কেন্দ্র সরকার বাংলার মানুষকে অপমানিত করার জন্য বাংলাকে সব সময় শৃঙ্খলাহীন বলে গলা ফাটাচ্ছে। অথচ, নির্বাচন কমিশনের কোমরের জোর নেই। যখন শহিদ সেনাদের নিয়ে মোদি নির্বাচনী প্রচার করেন, তখন মোদির মুখ বন্ধ করার ক্ষমতা নির্বাচন কমিশনের নেই।’’

[ আরও পড়ুন: শান্তনুর নাম না করেই প্রচার যোগীর, নেপথ্যে অন্তর্কলহ দেখছেন দলের একাংশ]

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “এনআরসি হবে না। আমরা সবাই সুখে আছি, ভাল আছি। সুপ্রিম কোর্টের নজর থাকা সত্ত্বেও অসমে ৪০ লক্ষ বাঙালিকে অনিশ্চিতার মধ্যে ফেলে রেখে দিয়েছে কেন্দ্র সরকার। পাঁচজন বাঙালিকে খুন করা হয়েছে৷ কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। এখানে যদি অমিত শাহরা আবার অসমের মতো করতে আসে বাংলার মানুষ গুজরাটে আর তাঁদের ফিরতে দেবে না।মেরে অমিত শাহর ঠ্যাং ভেঙে দেবে।’’  বিস্ফোরক মন্তব্য করে বারবারই বিতর্কে জড়িয়েছেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল৷ তাঁর গড়ে গিয়ে আরও এক তৃণমূল নেতার এহেন মন্তব্যকে মোটেই ভাল চোখে দেখছে না বিরোধীরা৷ ইতিমধ্যেই কমিশনের বিরুদ্ধে আঙুল তোলা নিয়ে সুর চড়াতে শুরু করেছেন তাঁরা৷ 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement