BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘ভোটে জিতলে গান শোনাব’, প্রচারে বাবুলকে খোঁচা মুনমুনের

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 13, 2019 9:13 am|    Updated: April 22, 2019 3:24 pm

An Images

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল: আমি অভিনয়ের মাধ্যমে তোমাদের অনেক আনন্দ দিয়েছি। সেই ভালবাসাটা ফেরত চাই এবার একটা ভোটের মাধ্যমে। শুক্রবার আসানসোলের কুলটির রাধানগর গ্রামে প্রচারে এসে এভাবেই ভোট দেওয়ার আরজি জানালেন তৃণমূলের তারকা প্রার্থী মুনমুন সেন। পাশাপাশি, বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়র গান নিয়ে কটাক্ষ করেছেন তিনি। বার্নপুরের রামবাঁধের সভায় তিনি বলেন, “গতবারের ভোটে একজন গান গেয়ে সাংসদ হয়ে যায়। তারপর আর কেউ তাঁর গান শোনেননি। এমনকি রেডিওতেও তাঁর এখন আর গান শোনা যায় না।” বৃহস্পতিবার রাতে মুনমুনের করা এই কটাক্ষের জবাব শুক্রবার দিয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেন, “আমার গানই এখন তৃণমূলের ঘুম কেড়ে নিয়েছে। এবছরের সেরা গান হিসাবে রেডিও মির্চি অ্যাওয়ার্ড পেয়েছি শিবু-নন্দিতার ‘হামি’ ছবির গানের জন্য। শুধু গান নয়, সৃজিতের ছবি ‘উমা’তে নেগেটিভ রোলের জন্য সেরা অভিনয়ের অনেকগুলি নমিনেশন পেয়েছি।” তৃণমূল প্রার্থীকেও পালটা কটাক্ষ করেছেন বাবুল। তিনি বলেন, “মুনমুন সেনকে আমি অভিনয় ও গান নিয়ে ব্যক্তিগত আক্রমণ করব না। শুধু পরামর্শ দেব, আসানসোলের এই গরমে মাথা ঠান্ডা রাখতে।”

[ আরও পড়ুন: আসানসোলে ভোটপ্রচারের ফাঁকে বেআইনি কয়লা ডিপোতে হানা বাবুলের]

শুক্রবার কুলটিতে প্রচারে গিয়ে নাম না করে গতবারের বিজেপি সাংসদের কড়া সমালোচনা করেন তৃণমূল প্রার্থী। তিনি বলেন, “পাঁচ বছর ধরে অনেক তো গান শুনলেন, কাজ কী হল? আমাকে ভোট দিন, আমার অভিনীত ছবির গানও  শুনতে পাবেন রেডিওতে৷ আবার উন্নয়নও দেখতে পাবেন। অন্য কারও কাছে গান শোনার প্রয়োজন নেই। রেডিওতে গান শুনুন।” বন্ধ কলকারখানা নিয়েও বিজেপির সমালোচনা করেছেন মুনমুন সেন। আসানসোলের মহিলাদের রোজগারের দিশাও দিয়েছেন তৃণমূলের তারকা প্রার্থী। তিনি জানান, বাড়িতে বসে অনেক ধরনের রুজি-রোজগারের প্রকল্প রয়েছে। সাংসদ কোটায় কীভাবে সেই সমস্ত কাজ করা যায়, তার তথ্য তুলে ধরেন। আশ্বাস দেন, দিল্লি গেলে আওয়াজ তুলবেন এখানকার সমস্যা নিয়ে।

MUNMUN-SEN

[ আরও পড়ুন: রাজনৈতিক বিভেদ ভুলে তৃণমূলপন্থী আইনজীবীদের সঙ্গে আড্ডা আলুওয়ালিয়ার]

পাশাপাশি, মুনমুন জানান, গ্রাম বাংলার মানুষ ভক্তিমূলক গান শুনতে ভালবাসেন। তিনি নিজেও অনেক সিনেমায় ভক্তিমূলক গানে লিপ দিয়েছেন। প্রচারে বেরিয়ে সেই সব সিনেমার স্মৃতিচারণাও করেন তৃণমূলের তারকা প্রার্থী। কিন্তু নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে এখন টিভিতে সেই সব সিনেমা দেখানো হচ্ছে না। রেডিওতেও শোনানো হচ্ছে না। মুনমুন এদিন জানান, ভোট পেরিয়ে যাওয়ার পর যখন তিনি আসবেন তখন কথা গল্পে সেইসব ভক্তিগীতি তিনি শোনানোর ব্যবস্থা করবেন। সভা শেষের পর দর্শকরা তাঁকে গান করার অনুরোধ করেন। তখন তিনি বলেন, “আমি গান গাইতে পারি না। কাজ করতে পারি। কোনও ভাল বাউলকে নিয়ে এসে তোমাদের গান শোনাব।” আসানসোলে দুই তারকা প্রার্থীর মধ্যে যে প্রতিযোগিতা বেশ হাড্ডাহাড্ডি, তা বোঝাই যাচ্ছে৷ 

দেখুন ভিডিও:

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement