১৬ চৈত্র  ১৪২৬  সোমবার ৩০ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

বিশ্বভারতীকে সোনার ডিম পাড়া হাঁসের সঙ্গে তুলনা, ভাষা দিবসে বিস্ফোরক উপাচার্য

Published by: Sayani Sen |    Posted: February 21, 2020 1:50 pm|    Updated: February 21, 2020 2:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বিতর্কে জড়ালেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। ‘অমর একুশের’ অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে একের পর এক বেফাঁস মন্তব্য করে বসলেন তিনি। বিশ্বভারতীকে সোনার ডিম পাড়া হাঁসের সঙ্গে তুলনা করেন উপাচার্য। তাঁর দাবি, এই বিশ্ববিদ্যালয় বর্তমানে কৃত্রিম উপায়ে শ্বাসপ্রশ্বাস নিচ্ছে। নিজের ক্ষোভ উগরে দিতে কেন ভাষা দিবসের অনুষ্ঠান মঞ্চকে ব্যবহার করলেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য, তা নিয়ে উঠেছে সমালোচনার ঝড়।

দুই বাংলার পড়ুয়ারা বিশ্বভারতীতে পড়াশোনা করেন। তাই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার সকাল থেকে সাজো সাজো রব বিশ্বভারতীতে। নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সকালে শহিদবেদীতে ফুল, মালা দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। ওই মঞ্চে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়েই বিতর্কে জড়ালেন তিনি। উপাচার্য বলেন, “আমি মনে করি বিশ্বভারতী এখন অসুস্থ। কৃত্রিম শ্বাসপ্রশ্বাস নিয়ে চলতে হচ্ছে। আমরা যাচ্ছে প্রশাসনিক দায়িত্বে আছি তারা জানে কী আর্থিক সংকট চলছে। এটা শুনতে খারাপ লাগলেও আমি বলতে বাধ্য হচ্ছি, বিশ্বভারতী বহু লোকের রোজগারের জায়গা হয়ে গিয়েছে। অনেকেই এখান থেকে পেট চালান। বিশ্বভারতী হচ্ছে সেই হাঁস, যে হাঁস সোনার ডিম দিচ্ছে।” 

অনেকেই মনে করছেন, কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিতেই এমন ‘বিতর্কিত’ করেছেন উপাচার্য।  তবে ‘অমর একুশে‘র অনুষ্ঠান মঞ্চে দাঁড়িয়ে কেন এমন মন্তব্য করে বিতর্ক বাড়ালেন সে বিষয়ে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে ভাষা শহিদ স্মরণ মঞ্চে উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর বিস্ফোরক মন্তব্যকে মোটেও ভাল চোখে দেখছেন না কেউই। 

[আরও পড়ুন: ‘অমর একুশে’র মঞ্চেও CAA-NRC বিরোধী স্লোগান জ্যোতিপ্রিয়র]

এর আগেও একাধিকবার বিতর্কে জড়িয়েছেন বিশ্বভারতীয় উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। পৌষমেলা শেষের পরে ব্যবসায়ীরা দোকান তুলতে না চাওয়ার ঘটনাতে অশান্তিতে জড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি। মহিলাদের হেনস্তা করার অভিযোগও ওঠে উপাচার্যের বিরুদ্ধে। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ভাষা দিবসে অনুষ্ঠান মঞ্চে ফের বিস্ফোরক উপাচার্য।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement