BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘লাভ জেহাদ’-এর শিকার, ধনিয়াখালিতে প্রেমিকার গলায় কোপ যুবকের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: January 21, 2020 8:51 pm|    Updated: January 21, 2020 8:51 pm

An Images

আসগর মল্লিক ও সৌমি পাল

দিব্যেন্দু মজুমদার, হুগলি: প্রেমের সম্পর্কে চিড় ধরেছিল। তাই সেই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে এসে নিজের ভবিষ্যতের দিকে মন দিয়েছিল প্রেমিকা। কিন্তু, তা মানতে পারেনি প্রেমিক। প্রতিশোধস্পৃহা জেগে উঠেছিল মনের মধ্যে। তাই সুযোগ পেয়ে সোমবার রাতে প্রেমিকার গলায় ছুরি দিয়ে কোপ মারল সে! আক্রান্ত যুবতী তৃণমূল ছাত্র পরিষদ করার পাশাপাশি স্থানীয় বিধায়ক অসীমা পাত্রের ঘনিষ্ঠ বলেও অসমর্থিত সূত্রে জানা গিয়েছে।

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে হুগলি জেলার ধনিয়াখালির কাছারিপাড়া এলাকায়। গতকাল রাতে আক্রান্ত মেয়েটির পরিবার ধনিয়াখালি থানায় প্রেমিক আসগর মল্লিকের নামে খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করেছে। তবে তাকে এখনও পর্যন্ত গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। অন্যদিকে গুরুতর জখম অবস্থায় কলকাতার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন যুবতীটি। তাঁর গলায় ১৬টি সেলাই পড়েছে বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘৫০ লক্ষ অনুপ্রবেশকারীকে দেশ ছাড়া করব’, কোচবিহারের সভা থেকে হুঁশিয়ারি দিলীপের ]

 

পুলিশ সূত্রে খবর, ধনিয়াখালির কাছারিপাড়ার সৌমি পালের সঙ্গে ঘনশ্যামপুরের আসগর মল্লিকের দীর্ঘদিনের ভালবাসার সম্পর্ক। বর্তমানে সৌমি ধনিয়াখালি শরৎ সেন্টেনারি কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী। পাশাপাশি কলেজে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সক্রিয় কর্মী হিসেবে পরিচিত। অন্যদিকে আসগর একটি মিলে শ্রমিকের কাজ করে।

[আরও পড়ুন: ডান দিকে অসহ্য যন্ত্রণা, বাঁ দিকের দাঁত তুলে দিলেন ডাক্তার, পুলিশের দ্বারস্থ গৃহবধূ ]

 

আক্রান্তের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার রাত সাড়ে আটটা নাগাদ বই চাওয়ার অজুহাতে আসগর তাদের বাড়ি যায়। তারপর কিছু না বলেই হঠাৎ সৌমির ঘরে ঢুকে পড়ে। তারপর সৌমির গলায় ছুরি কোপ মেরে পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় সৌমি মাটিতে লুটিয়ে পড়ে ছটফট করতে থাকেন। বিষয়টি দেখতে পেয়ে পরিবারের লোকজন তাঁকে প্রথমে ধনিয়াখালি গ্রামীণ হাসপাতালে ভরতি করেন। কিন্তু, অবস্থার অবনতি হলে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয় তাকে। এই ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত আসগর পলাতক। তার খোঁজে বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালাচ্ছে ধনিয়াখালি থানার পুলিশ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement