BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

OMG! আচমকা দা হাতে মেখলিগঞ্জ থানার সামনে হাজির হয়ে এ কী করল যুবক?

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 4, 2020 4:33 pm|    Updated: July 4, 2020 9:50 pm

An Images

বিক্রম রায়, কোচবিহার: ঠিক যেন সিনেমার দৃশ্য। ফাঁকা থানা চত্বরে আচমকাই হাজির এক যুবক। তার হাতে দা। কী যে করবে তা বুঝতে পারা যায়নি। হঠাৎই থানার ভিতরে ভেসে এল কাচ ভাঙার শব্দ। প্রথমে কেউই সেভাবে গুরুত্ব দেননি। কিন্তু আওয়াজ যেন ক্রমশই বাড়ছে। তাই তো বাইরে বেরিয়ে আসেন সকলে। দেখেন এক যুবক রণমূর্তি ধারণ করে একের পর এক পুলিশের গাড়ির কাচ ভাঙছে। শনিবার এমনই ঘটনা দেখে প্রায় তাজ্জব কোচবিহারের (Cooch Behar) মেখলিগঞ্জ থানার পুলিশকর্মীরা। কেন যুবক আচমকা এমন কাণ্ড ঘটাল, তা নিয়ে চলছে জোর আলোচনা।

শনিবার তখন ঘড়ির কাঁটায় সকাল দশটা। কোচবিহারের মেখলিগঞ্জ থানার সামনে দাঁড়িয়ে রয়েছে একের পর এক পুলিশের গাড়ি। ওই গাড়ির সামনে আচমকা এসে দাঁড়াল এক যুবক। তার হাতে দা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই পুলিশের গাড়িতে দেদার ভাঙচুর চালাতে শুরু করে সে। গাড়ি ভাঙার শব্দ পেয়ে থানার ভিতর থেকে বাইরে বেরিয়ে আসেন পুলিশকর্মীরা। তবে ওই যুবকের রণমূর্তি দেখে অবাক হয়ে যান প্রায় প্রত্যেকেই।

[আরও পড়ুন: প্রেমে প্রত্যাখ্যানের প্রতিশোধ, ধারাল অস্ত্র নিয়ে শিক্ষকের বাড়িতে হামলা যুবকের]

যতই তাকে গাড়ি ভাঙচুর করতে বারণ করা হয়, ততই সে কাচ ভাঙতে থাকে। প্রথমে কিছুতেই তাকে রোখা সম্ভব হচ্ছিল না। পরে যদিও সাহস করে বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মী ওই যুবকের দিকে এগিয়ে যান। সুকৌশলে তার হাত থেকে কেড়ে নেওয়া হয় দা। এরপরই যুবককে পাকড়াও করা হয়। যুবককে আটকও করেছে পুলিশ। দা হাতে গাড়ির কাচ ভাঙচুর করায় হাতেও চোট লেগেছে তার। ওই যুবককে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য মেখলিগঞ্জ হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করার অভিযোগ ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হতে পারে।

কী কারণে যুবক আচমকা দা হাতে পুলিশের গাড়ির কাচ ভাঙতে শুরু করল, তা এখনও স্পষ্ট নয়। প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান, ওই যুবক মানসিক ভারসাম্যহীন। মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় এমন কাণ্ড ঘটিয়েছে বলে মনে করছে পুলিশ। যুবক মেখলিগঞ্জের কুচলিবাড়ির বাসিন্দা। তার পরিজনদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: বিজেপি শাসিত রাজ্যের তুলনায় বাংলায় বেকারত্ব কম, পরিসংখ্যান দিয়ে কেন্দ্রকে তোপ মমতার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement