Advertisement
Advertisement
COVID-19

COVID-19: স্টেরয়েড, মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি থেরাপি বাদ, করোনা চিকিৎসায় জারি নয়া স্বাস্থ্যবিধি

ব্যবহার করা যাবে না মলনুপিরাভির ট্যাবলেটও।

COVID-19 In West Bengal: New COVID-19 guidlines issued by Swasthya Bhaban to combat third wave | Sangbad Pratidin
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:January 4, 2022 3:49 pm
  • Updated:January 4, 2022 4:52 pm

ক্ষীরোদ ভট্টাচার্য: কোভিডের তৃতীয় ঢেউ আটকাতে রাজ্যে চিকিৎসা ব্যবস্থায় নয়া স্বাস্থ্যবিধি জারি করল স্বাস্থ্যভবন। স্টেরয়েড, মলনুপিরাভির (Molnupiravir) ট্যাবলেট দিয়ে আর চিকিৎসা নয়। বদলে জ্বর, শ্বাসকষ্ট কমাতে ইনহেলার ব্যবহার, মন্টিয়ার LC বা মন্টিকক ট্যাবলেট ব্যবহারে জোর দেওয়া হয়েছে। মনোক্লোনাল অ্য়ান্টিবডি থেরাপিও (Monoclonal Antibody Therapy) সব করোনা রোগীর ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা যাবে না। স্বাস্থ্যভবন থেকে জারি করা নয়া নির্দেশিকায় এমনই কয়েকটি বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে। এবার থেকে রাজ্যের কোভিড রোগীদের চিকিৎসায় এই নতুন প্রোটোকল মেনে চলতে হবে। 

কোভিড রোগীদের চিকিৎসা এতদিন যেভাবে হচ্ছিল, এবার তৃতীয় ঢেউ এবং নয়া স্ট্রেন ওমিক্রন রুখতে সেই ব্যবস্থায় বেশ কিছু বদল আনা হয়েছে। রাজ্যের স্বাস্থ্যভবনেরে তরফে নয়া গাইডলাইনে তা বিশদে বলা হয়েছে –

Advertisement
  • সামান্য জ্বর, সর্দি-কাশি হলে প্যারাসমিটামল জাতীয় ওষুধ খেতে হবে।
  • ইনহেলার ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • মন্টিয়ার LC বা মন্টিকক ট্যাবলেট খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া যাবে।
  • কাশির ওষুধ খাওয়া একেবারেই চলবে না।
  • অসুস্থতা বেশি হলেও স্টেরয়েড প্রয়োগ করা যাবে না।
  • উপসর্গহীন বা মৃদু উপসর্গযুক্ত রোগীদের বাড়িতে আইসোলেশনে রাখার পরামর্শ।
  • অক্সিজেনের মাত্রা কমতে থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

নয়া স্বাস্থ্যবিধিতে বলা হয়েছে, সব করোনা রোগীকে হাসপাতালে ভরতি নেওয়া যাবে না। যাঁদের শরীরের তাপমাত্রা ১০২ ডিগ্রি বা তার বেশি, বারবার জ্বর আসছে, পালস রেট কম, তাঁদেরই চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে হাসপাতালে ভরতির সুপারিশ করা হয়েছে নতুন গাইডলাইনে। 

Advertisement

[আরও পড়ুন: করোনা পরিস্থিতিতে খোলা থাকবে তারাপীঠের মন্দির, দর্শনার্থীদের জন্য জারি একাধিক নিয়ম

কীভাবে বুঝবেন, কোভিডের ধাক্কায় আপনি কতটা কাবু?  প্রাথমিক উপসর্গ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বরের কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্যভবন। শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক আছে কি না, তা বুঝতে হলে ৬ মিনিট টানা হাঁটার পরও কোনওরকম হাঁপানি বা শ্বাসকষ্ট না হলে বুঝতে হবে, সব ঠিক আছে। সামান্য সমস্যা হলে ইনহেলার ব্যবহার করতে হবে রোগীদের। অক্সিজেনের মাত্রা ৯৪ এর নিচে নামলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। যেসব করোনা রোগী বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন, তাঁদের অবশ্যই ইনহেলার এবং প্যারাসিটামল মজুত রাখতে হবে। 

[আরও পড়ুন: ভিড়ের চাপে লোকাল ট্রেন থেকে ছিটকে পড়ে মৃত্যু যাত্রীর, উত্তেজনা ডানকুনিতে]

সূত্রের খবর, মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি এবং মলনুপিরাভির নিয়ে কেন্দ্রের তরফে কোনও নির্দেশ আসেনি। এমনকী কেন্দ্রীয় গাইডলাইনেও এর উল্লেখ নেই। তাই এই দুটি পদ্ধতি করোনার চিকিৎসা থেকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য়ের স্বাস্থ্যভবন।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ