BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মানুষকে সাহায্য করতে চান? সহজ সরল উপায় বাতলে দিলেন দেব

Published by: Suparna Majumder |    Posted: August 26, 2020 5:40 pm|    Updated: August 26, 2020 5:40 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা কালে একাধিকবার ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন দেব (Dev)। বিদেশ থেকে প্রবাসী ভারতীয়দের ফেরার বন্দোবস্ত করেছেন, করোনা আক্রান্তকে হাসপাতালে ভরতি করিয়ে দেওয়ার বন্দোবস্ত করেছেন, আবার গৃহবন্দি মানুষের আবেদনে সাড়া দিয়ে তাঁদের কাছে ওষুধপত্র এবং অন্যান্য সরঞ্জাম পৌঁছে দেওয়ারও ব্যবস্থা করেছেন। এর পাশাপাশি সাধারণ মানুষের কাছে আরেকটি আবেদন করে টুইট করলেন অভিনেতা-সাংসদ। অসুস্থ-পীড়িত মানুষের ছবি কিংবা ভিডিও তোলার বদলে আগে ফোন রেখে তাঁকে সাহায্য করার অনুরোধ জানালেন টলিউডের হার্টথ্রব।

[আরও পড়ুন: মাদক সেবন ছাড়ার কথা দিয়েছিলেন সুশান্ত! রিয়া-শ্রুতির WhatsApp চ্যাট ফাঁস]

বাড়ির ম্যানেজার করোনা (COVID-19) আক্রান্ত হওয়ায় পরিবার-সহ কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। সেখান থেকেই ক্রমাগত অনুরাগীদের সমস্যার সমাধান করে চলেছেন অভিনেতা-সাংসদ দেব। মঙ্গলবার অঙ্কিতা নামে এক তরুণী টুইট করেন, ২৭ ও ৩১ আগস্ট পশ্চিমবঙ্গে সম্পূর্ণ লকডাউন থাকায় BHU বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা দিতে যাওয়া নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন তাঁরা। বিষয়টি দেখার আশ্বাস দেন দেব। পরে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে পড়ুয়াদের গাড়ির জন্য বিশেষ অনুমতির ব্যবস্থা করে দেন।

 

সংগীতা সিম্মি নামে আবার একজন জানান, রাজারহাটের হজ হাউসে বেড খালি না থাকায় করোনা আক্রান্ত বাবাকে ভরতি করতে পারছেন না। তাঁর বাবার জন্য মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে বেডের ব্যবস্থা করে দেন অভিনেতা-সাংসদ।

 

[আরও পড়ুন: একগাল কাঁচা-পাকা দাড়ি, ভয়াল দৃষ্টি! দেখুন তো চিনতে পারছেন কিনা এই অভিনেতাকে?]

এরই মধ্যে আবার সংগীতা মজুমদার নামের এক অনুরাগী দেবকে ট্যাগ করে একটি ভিডিও আপলোড করেন। ভিডিওয় বরানগরের এক মহিলা জানান, কাজ না থাকায় তিনি ও তাঁর স্বামী অর্থাভাবে রয়েছেন। দাম দিয়ে ওষুধ কেনার ক্ষমতা নেই। এদিকে স্বামীর নার্ভের অসুখে ওষুধ খাওয়া খুবই প্রয়োজন। পরে সংগীতা জানান দেব ও তাঁর টিমের ব্যবস্থাপনায় ওষুধ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। সেই টুইট শেয়ার করে দেব লেখেন,

“আমি ও আমার টিম এই সমস্যার সমাধান করলেও সকলকে আমি একটি কথা বলতে এবং অনুরোধ করতে চাই, সকলেই যেন এগিয়ে আসেন এবং নিজেদের সাধ্য অনুযায়ী মানুষের সাহায্য করেন। অনেক সময় আমরা সামনের মানুষটার ভিডিও তুলতে এত ব্যস্ত হয়ে পড়ি যে তাঁদের সাহায্য করার কথাটাই ভুলে যাই। কাউকে সাহায্য করতে খুব পরিশ্রম করতে হয় না। এর জন্য আপনার অভিনেতা, চিকিৎসক কিংবা সাংসদ হওয়ার প্রয়োজন নেই। শুধু মানুষ হলেই যথেষ্ট। তাই ফোনটাকে নামিয়ে রেখে আগে সামনের মানুষটাকে সাহায্য করতে শিখুন, যদি সেই ইচ্ছে থাকে।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement