৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মোদি ‘ক্যারিশম্যাটিক নেতা’, মন্তব্য উচ্ছ্বসিত রজনীর

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: May 29, 2019 4:38 pm|    Updated: May 29, 2019 4:38 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সম্প্রতি, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণপত্র পেয়েছেন তিনি। ৩০ মে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন বলেও জানিয়েছেন থালাইভা। দক্ষিণী মেগাস্টার রজনীকান্ত, যাঁর নামের সঙ্গে সর্বদাই জড়িয়ে থাকে ‘লার্জার দ্যান লাইফ’ সব ব্যাপার-স্যাপার। সিনেমা সংক্রান্ত বিষয়ই হোক, কিংবা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া মিম-রজনীকান্ত, সবেতেই থালাইভার জনপ্রিয়তার জুড়ি মেলা ভার। আর সেই রজনী-ই কি না এবার মুগ্ধ হয়েছেন মোদি মহিমায়। মোদিতে তিনি এতটাই মজেছেন যে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তুলনা টেনে ফেলেছেন একেবারে জওহরলাল নেহরু এবং রাজীব গান্ধীর মতো নেতাদের সঙ্গে। নমোতে মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে রজনী তাঁকে আখ্যা দিয়েছেন
‘ক্যারিশম্যাটিক নেতা’ হিসেবে।

[আরও পড়ুন:  গেরুয়া ঝড় বলিপাড়াতেও, সেলেবদের মধ্যে এগিয়ে বিজেপি প্রার্থীরাই

বৃহস্পতিবার, ৩০ মে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা নিশ্চিত করে দক্ষিণী এই সুপারস্টার মোদিকে একে একে ইন্দিরা গান্ধী, রাজীব গান্ধী, অটল বিহারী বাজপেয়ীর সঙ্গে মোদিকে একসারিতে বসান রজনী। এমনকী, নরেন্দ্র মোদি প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে তিনি দক্ষিণের বড়মাপের নেতা-নেত্রী এমজিএম, জয়ললিতা, কামরাজ, আন্না, কলাইনরের কথাও উল্লেখ করেন। রজনী বলেন, “মোদি একজন এলেমদার নেতা। তাঁর নেতৃত্বের মহিমা জওহরলাল নেহরু, ইন্দিরা গান্ধী, রাজীব গান্ধী কিংবা অটল বিহারী বাজপেয়ীর থেকে কোনও অংশে কম নয়। আর মোদিকে সামনে রেখেই লোকসভায় এই বিপুল জয়লাভ বিজেপির।” কেন্দ্রে দ্বিতীয় বারের জন্য ক্ষমতায় আসা জোট সরকারের অবিসংবাদী নেতা নরেন্দ্র মোদিকে এই
ঐতিহাসিক জয়ের জন্য শুভেচ্ছা জানিয়ে মঙ্গলবার চেন্নাইতে রজনীকান্ত সাংবাদিকদের বলেন, “এই জয় মোদিরই জয়।”

[আরও পড়ুন: লোকসভায় ভরাডুবির জের, পদত্যাগ রাজ বব্বর-সহ একাধিক কংগ্রেস নেতার

আগামী ৩০ মে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করতে চলেছেন নরেন্দ্র মোদি। ওই দিন প্রথা অনুযায়ী, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ তাঁকে শপথবাক্য পাঠ করাবেন। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে দক্ষিণ ভারতীয় দুই সুপারস্টার তথা রাজনীতির ময়দানে পা রাখা দুই নেতা রজনীকান্ত এবং কমল হাসানকে। রজনীকান্তের মতে, “আমাদের দেশে জাতীয় কিংবা রাজ্যস্তরের যে কোনও দল জয়ী হতে পারে, যদি তাদের নেতার তেমন জনপ্রিয়তা থাকে। নেহরু, ইন্দিরা, রাজীব, বাজপেয়ীর পর একমাত্র মোদির মধ্যেই নেতৃত্বের সেই এলেম দেখতে পেয়েছে ভারতবাসী। আর তার রেশ ধরেই এই বিরাট জয়লাভ করেছে বিজেপি।” 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement