২ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ১৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

২ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ১৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিন সাতেক পরই সাত পাকে বাঁধা পড়বেন নুসরত জাহান। দেশে নয়, বিদেশের মাটিতেই প্রেমিক নিখিল জৈনের সঙ্গে বিয়ে সারবেন। অর্থাৎ ডেস্টিনেশন ওয়েডিং। বলিউড সেলেবদের মধ্যে ডেস্টিনেশন ওয়েডিং বর্তমানে একটা ট্রেন্ড হয়ে দাঁড়ালেও, টলিউডে নুসরতই কিন্তু বিদেশের মাটিতে বিয়ে করার চল শুরু করলেন। প্রথমটায় শোনা গিয়েছিল, নুসরত-নিখিলের বিয়ে হবে ইস্তানবুলে।

তবে, এবার প্রকাশ্যে এল আসল ভেন্যু। সূত্রের খবর ইস্তানবুল নয়, নুসরতের বিয়ে হচ্ছে তুরস্কের বোদরুম নামে এক শহরে। তা হবু বরের সঙ্গে কবে শহর ছাড়ছেন নুসরত? মেহেন্দি-সংগীতের অনুষ্ঠান-ই বা কোথায় হবে? কার্ডের ডিজাইন থেকে নৈশভোজের মেনু, নুসরতের বিয়ের যাবতীয় তথ্য রইল।

[আরও পড়ুন: ‘কুরুচিকর রাজনৈতিক পোস্ট’, তৃণমূল সমর্থকদের পেজের মিম নিয়ে সমালোচনা রুদ্রনীলের]

তুরস্কের দক্ষিণে অবস্থিত বোদরুমকে তার রোম্যান্টিক পরিবেশের জন্য প্রেমের শহর বললেও ভুল হবে না বইকী! যা বিশ্বের জনপ্রিয় পর্যটন গন্তব্যগুলোর মধ্যে অন্যতম। অবারিত নীল জলরাশি, পাহাড়… নিঃসন্দেহে বোদরুমে এক মায়াবী পরিবেশ। আর এখানেই সম্পন্ন হবে নুসরত-নিখিলের শুভবিবাহ। কেমন যেন বিরুষ্কা এবং দীপবীরের তাসকানি-লেক কোমো গোছের ঠেকছে না? বোদরুম শহরের ছবি দেখলে সেই রাজকীয় বিবাহানুষ্ঠানের স্বপ্নে ভাসবেন আপনিও। নুসরতের মা, বাবা, বোন-সহ দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠ আত্মীয়স্বজন উপস্থিত থাকছেন। থাকছেন অভিনেত্রী স্কুলের বান্ধবীরাও। নুসরতের টলিউড এবং রাজনীতির ময়দানের সতীর্থ মিমি চক্রবর্তীও যাচ্ছেন বোদরুমে তাঁর বিবাহ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে। শোনা গিয়েছে, ১৫ তারিখ রাতেই নাকি হবু বরকে নিয়ে শহর ছাড়ছেন অভিনেত্রী। ১৭ তারিখ থেকে শুরু মেহেন্দি-সংগীত-গায়ে হলুদ অনুষ্ঠান।

এবার আসা যাক সাজের প্রসঙ্গে। শোনা গিয়েছে, এতগুলো অনুষ্ঠানের জন্য পোশাকের পাহাড় জড়ো করেছেন নুসরত। নতুন গয়নার সঙ্গে উত্তরাধিকরা সূত্রে পাওয়া গয়নাতেও সাজবেন তিনি। এমনকী, বাড়ির কে কীভাবে সাজবেন, সেটাই ঠিক করে ফেলেছেন নিজেই। নুসরতের সঙ্গে বোদরুম উড়ে যাচ্ছেন তাঁর নিজস্ব স্টাইলিং টিম। মেক-আপে সায়ন্ত, কেশসজ্জায় শর্মিষ্ঠা এবং থাকবেন স্টাইলিস্ট স্যান্ডিও। হালকা রঙের পোশাকেই সাজবেন কনে নুসরত।

[আরও পড়ুন: মহিলাদের স্বপ্নপূরণের গল্প বলবে ‘শ্রীময়ী’]

শেষে আসি বিয়ের কার্ড এবং মেনু প্রসঙ্গে। বিশেষভাবে কাস্টমাইজড এই বিয়ের কার্ড ডিজাইন করেছেন মুম্বইয়ের এক শিল্পী। বর-কনের পেশা এবং পছন্দের কথা মাথায় রেখে তৈরি করা হয়েছে বিয়ের আমন্ত্রণপত্র। যিনি রেঁধে খাওয়াতে ভালবাসেন তাঁর বিয়েতে যে রাজকীয় মেনুই হবে, তা বলাই বাহুল্য।

তবে নুসরতের এই রাজকীয় বিয়েতে কাঁটা হয়ে থাকছেই – সন্দেশখালি। বসিরহাট কেন্দ্রের সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পর অভিনেত্রীর দায়িত্ব বেড়েছে। নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পরই তাঁর এলাকায় রাজনৈতিক সংঘর্ষ, রক্তাক্ত এলাকা, মৃত্যু। এই অবস্থায় স্রেফ দূর থেকে শান্তির বার্তা দিয়েই দায় সারতে পারেন না তিনি। কাজেই সমালোচনায় বিদ্ধ হতেই হচ্ছে নুসরতকে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং