২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘ড্রামা ক্যুইন’ না ‘প্রতিবাদী’? কঙ্গনা রানাউত বিতর্কে মুখ খুললেন টলিউড তারকারা

Published by: Suparna Majumder |    Posted: September 18, 2020 7:12 pm|    Updated: September 18, 2020 7:12 pm

An Images

শম্পালী মৌলিক ও বিদিশা চট্টোপাধ্যায়: বলিউডের ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’ কঙ্গনা রানাউত (Kangana Ranaut)। কারও চোখে কঙ্গনা রানাউত ঝাঁসির রানির মতো প্রতিবাদী, কারও চোখে শুধুই ড্রামা ক্যুইন। কী বলছেন টলিউডের তারকারা?

যিশু সেনগুপ্ত (Jisshu Sengupta)

দেখুন এটা গণতান্ত্রিক দেশ, কঙ্গনা রানাউতের যেটা ভাল মনে হয়েছে সেটা তিনি বলেছেন। এবার ওঁর মতের সঙ্গে সকলের মত মিলবে, এমনটা নাও হতে পারে। এই নিয়ে আলাদা করে আমি কিছু বলতে চাই না।

অনির্বাণ ভট্টাচার্য (Anirban Bhattacharya)

গণতান্ত্রিক দেশে, কোন রাজনৈতিক দর্শনকে কঙ্গনা সমর্থন করবেন, আর কার বিরুদ্ধাচরণ করবেন সেই স্বাধীনতা তাঁর আছে। তবে যে কঙ্গনাকে গত দু’সপ্তাহে আমি দেখতে পেলাম, সেটা থেকে পরিষ্কার যে শিল্পের অস্তিত্ব এই দেশে এখন প্রবল সংকটে। কঙ্গনা, অনুরাগ কাশ‌্যপ (Anurag Kashyap) বা স্বরা ভাস্কর (Swara Bhaskar)– এঁরা সকলেই, আমাদের দেশে এই শিল্প-বিরোধিতার যে পরিবেশ তার শিকার। এই যে শিল্পীদের প্রতিবাদকে আতস কাচের আওতায় এনে বিচার করা, যাতে তাঁদের শিল্প-নির্মাণ তরল হয়ে যায়– এই প্রসেসটা একটা ষড়যন্ত্র, রাজনৈতিক চাল। এটা আসলে পয়সা দিয়ে, লোভ দেখিয়ে, ছলনা করে তৈরি করা। যে দেশে শিল্প বা শিল্পীদের এমন অবস্থায় পড়তে হয় সেই দেশের ভবিষ‌্যৎ নিয়ে আমার মনে প্রশ্ন আছে।

আবির চট্টোপাধ‌্যায় (Abir Chatterjee)

সোশ‌্যাল মিডিয়াতে সবারই নিজস্ব মত প্রকাশের স্বাধীনতা আছে। একটাই আশঙ্কা, এত মতামতের ভিড়ে আসল সমস‌্যাগুলো যেন চাপা না পড়ে যায়। এই কোলাহলে সব কেমন যেন গুলিয়ে যাচ্ছে। সেটা বেশি ভয়ের।

[আরও পড়ুন: ‘কলকাতার বদনাম চাই না’, ট্যাক্সি চালকের হাতে হেনস্তা মামলায় আদালতে সোচ্চার মিমি চক্রবর্তী]

পার্নো মিত্র (Parno Mittra)

কঙ্গনা রানাউতকে ‘ড্রামা ক্যুইন’ আমি বলব না। প্রতিটা মানুষেরই নিজের মত প্রকাশের অধিকার আছে এবং প্রত্যেকে সেটা নিজের মতো করেই প্রকাশ করে থাকেন। কেউ সেটা পছন্দ করবে, কেউ করবে না।

নুসরত জাহান (Nusrat Jahan)

অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত এখানে কেবল ‘মোহরা’ মাত্র। বর্তমানে দেশের প্রকৃত ইস্যু হল বেকারত্ব, GDP, সীমান্তে চিন-সমস‌্যা। সে সব থেকে নজর ঘোরাতেই এই ধোঁয়াশা। ওঁর ৪৮ কোটির অফিসের বিল্ডিং প্ল‌্যান ইস্যু আর বৃহন্মুম্বই পুরনিগমের (BMC) সঙ্গে ঝামেলা, আমার কাছে জাতীয় পর্যায়ের গুরুত্বের বিষয় বলে মনে হয় না।

রুদ্রনীল ঘোষ (Rudranil Ghosh)

কঙ্গনা রানাউতকে নিজের খেয়ালে চলা একটা মানুষ মনে হয়। আমরা সব মানুষকে এক-একটা ধরনের ফরম‌্যাটে ফেলতে ভালবাসি। উনি ফরম‌্যাটের বাইরের একটা মানুষ। নিজস্ব ধরনে কথা বলেন, সেটা ঠিক হোক বা ভুল। ওঁর কয়েকটা মতের সঙ্গে আমার মেলে, আবার কয়েকটার সঙ্গে মেলে না। উনি একজন ভাল অভিনেত্রী, বাকিটা তাঁর ব‌্যক্তিগতজীবন, তাঁর রাজনৈতিক ভাবনাচিন্তা– সেটা আমি জানি না।

গার্গী রায়চৌধুরি (Gargi Roychowdhury)

কঙ্গনা রানাউতকে অভিনেত্রী ছাড়া, অন‌্যভাবে আমি দেখতে চাই না। উনি যুক্তিবাদী, না ভাববাদী, আমি ভাবতে রাজি নই। অভিনেত্রী হিসাবে আমি ওঁকে আরেকজন কলিগ হিসাবেই দেখতে চাই। একজন অভিনেতার মাপবোধ থাকা খুব প্রয়োজন। কোথায় থামব সেটা জানতে হবে।

[আরও পড়ুন: মার্ভেলের জনপ্রিয় সুপারহিরো হাল্কের চরিত্রেও এবার মহিলা! দেখা যাবে এই অভিনেত্রীকে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement