BREAKING NEWS

১০ কার্তিক  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘দেশের সিংহভাগ মানুষই তো শ্যামলা, ফর্সা করার মিথ্যে স্বপ্ন দেখায় কী করে?’ বিস্ফোরক বিপাশা

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: June 26, 2020 3:28 pm|    Updated: June 26, 2020 3:45 pm

Bipasha Basu on being defined as dusky all her life

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘Fare’ আর ‘Lovely’, এতদিন এই দুই শব্দের সহাবস্থান হলেও, এবার সেই রীতিতে ছেদ পড়েছে। কিন্তু তাতে করে মানসিকতার কিছু পরিবর্তন হবে কিনা জানা নেই। তবে হিন্দুস্তান ইউনিলেবারের এই উদ্যোগে কিন্তু বেজায় খুশি বিপাশা বসু। এতদিন ‘Dusky Beauty’ অর্থাৎ শ্যামবর্ণা সুন্দরীর প্রসঙ্গ উত্থাপন হলেই বিপাশা বসুর (Bipasha Basu) নাম উল্লেখ করা হত! শৈশব থেকে তো বটেই এমনকী মডেলিং কেরিয়ারের গোড়ার দিকেও তাঁকে শুনতে হয়েছিল যে, “কলকাতার শ্যামবর্ণা তন্বী সুপার মডেল হয়েছে…। খুব অবাক হতাম ভেবে যে, আরে, এই ‘শ্যামবর্ণা’ বিশেষণটা কি ব্যবহার করা জরুরী!”

‘কলকাতার শ্যামবর্ণা তন্বী সুপার মডেল হয়েছে, শুনে অবাক হয়েছিলাম’, মন্তব্য বিপাশার

ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি (Fair & Lovely) প্রসাধনী পণ্যের এতদিনকার ফর্সা বানিয়ে দেওয়ার ঝুটো প্রতিশ্রুতিতে যে এবার দাঁড়ি পড়ল, তাতে উচ্ছ্বসিত এই বঙ্গতনয়া। ইনস্টাগ্রামে সেই মর্মে দীর্ঘ এক পোস্টও করেছেন। লিখেছেন, “ছোট থেকেই শুনতে হত সোনির থেকে বনি কালো। ওর গায়ের রং-টা একটু চাপা না? এধরণের অজস্র কথা। যদিও আমার মা-ও শ্যামাঙ্গী, আর আমি খানিক মায়ের মতোই দেখতে, তবুও বহুবার আমার গায়ের রং আত্মীয়-স্বজনদের আলোচ্য বিষয় হয়ে উঠেছে! আমি যখন ষোড়শী, মডেলিং কেরিয়ার শুরু করলাম, দেখলাম সুপার মডেল প্রতিযোগিতা জেতার পর সব কাগজে হেডলাইন বেরিয়েছে- কলকাতার শ্যামবর্ণা তন্বী সুপার মডেল প্রতিযোগিতা জিতেছে। কেন বলুন তো ‘শ্যামবর্ণা’ শব্দটা ব্যবহার করা হবে?”

 

“এরপর যখন নিউ ইয়র্কে গেলাম পেশার সুবাদে। বুঝলাম আমার গায়ের রং-কে সেখানে গুরুত্ব দেওয়া হল। অনেকেরই নডর কাড়তে সক্ষম হয়েছিলাম তখন। এরপর ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ শুরু করার পর দেখলাম, আমাকে সবাই পছন্দ করছে। এক নতুন ‘আমি’কে আবিষ্কার করলাম। কিন্তু ওই ‘Dusky Beauty’ কিংবা শ্যামবর্ণা সুন্দরীর তকমাটা আর ঘুচল না! বলা হল আমার গায়ের রঙের জন্যই নাকি আমার মধ্যে যৌন আবেদন রয়েছে। কিন্তু আমার মতে আমার ব্যক্তিত্বেই সেক্স এপিল রয়েছে”, বললেন মন্তব্য বিপাশা।

“দেখি অনেক অভিনেত্রীরাই একেকটি ছবি করছে আর তাঁদের গায়ের রং পরিবর্তন হচ্ছে, আরও ফর্সা হচ্ছে!- নন্দিতা দাস

[আরও পড়ুন: নেটদুনিয়ায় ক্রমাগত আক্রমণ, অভিমানে মুম্বই ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের বোর্ড থেকে ইস্তফা করণ জোহরের!]

পাশাপাশি তিনি এও বলেছেন যে কীভাবে গত ১৮ বছর ধরে তিনি কোটি কোটি টাকার ফর্সা হওয়ার প্রসাধনী পণ্যের বিজ্ঞানণের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন। “একটা দেশের সিংহভাগ মানুষের গায়ের রংই যেখানে শ্যামলা, সেদেশে ফর্সা করানোর মিথ্যে স্বপ্ন কী করে যে বিক্রি করে জানি না! এসব বন্ধ হওয়া দরকার। তবে দেরিতে হলেও প্রশংসনীয় উদ্যোগ সংস্থার। অন্য কোম্পানিগুলিরও দেখে শেখা উচিত”, মন্তব্য বিপাশার (Bipasha Basu)।

এই জায়গায় পৌঁছতে আমাদের কৃষাঙ্গহত্যা দেখতে হল, তারপর ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার মুভমেন্টও করতে হল।- অভয় দেওল 

অন্যদিকে, বিপাশার সঙ্গে সহমত অভিনেত্রী তথা পরিচালিকা নন্দিতা দাসও (Nandita Das)। তিনি বললেন, “দেখি অনেক অভিনেত্রীরাই একেকটি ছবি করছে আর তাঁদের গায়ের রং পরিবর্তন হচ্ছে, আরও ফর্সা হচ্ছে! আর তুমি যদি কালো হও, তাহলে তোমাকে এগুলো শুনেত হয়। কেরিয়ারে গোড়ার দিকে আমার প্রত্যেকটা সাক্ষাৎকারে আমার গায়ের রং-টাই কেমন ইস্যু হয়ে উঠত। কাজ-পরিশ্রম সবকিছুর উর্দ্ধে গিয়ে। তবে ধন্যবাদ মা-বাবাকে, ওঁরা কখনও আমাকে এসব বুঝতে দেয়নি।”  

একই ইস্যুতে মুখ খুলেছেন অভয় দেওলও (Abhay Deol)।  বললেন, “সত্যিই কী সুন্দর একটা দিনের শুরুয়াৎ! এই জায়গায় পৌঁছতে আমাদের কৃষাঙ্গহত্যা দেখতে হল, তারপর ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার মুভমেন্টও করতে হল। বর্ণ নিয়ে আমাদের দেশের সংস্কৃতিতে পরিবর্তনের নয়া পদক্ষেপটা এই অগণিত দেশবাসীর সরব হওয়ার ফলেই হয়েছে।আরও বহুদূর যেতে হবে আমাদের। এ তো সবে শুরু। জনতার শক্তি! “

[আরও পড়ুন: ‘ব্ল্যাকলিস্ট’ করে দেওয়ার হুমকি পেলেন গায়ক রূপঙ্কর!]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement