BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারতীয় সেনার ভুয়ো ছবি প্রচার করে বিতর্কে কিরণ-শ্রদ্ধা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 19, 2017 8:31 am|    Updated: September 18, 2019 3:48 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশপ্রেম ভাল। কিন্তু আগাপাশতলা খতিয়ে না দেখে দেশপ্রেমের প্রকাশ বিপজ্জনক বাঁক নিতে পারে। সেই ফাঁদেই পড়লেন বিজেপি সাংসদ তথা অভিনেত্রী কিরণ খের। সিয়াচেনে ভারতীয় সেনার একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন তিনি। কিন্তু আসলে তা ভারতীয় সেনার ছবিই নয়।

[ ভুল করে আফরাজুলকে খুন করেছি, পুলিশের জেরায় স্বীকারোক্তি শম্ভুর ]

দিনকয়েক ধরেই হোয়্যাটসঅ্যাপে ঘোরাঘুরি করছে এ ছবি। ভুয়ো খবর ছড়ানোর ক্ষেত্রে এই মেসেজিং সার্ভিসের বিকল্প নেই। গোপনে কোনও কিছুতে প্ররোচনা দেওয়াতে সিদ্ধহস্ত এই সার্ভিস। রীতিমতো কয়েকটি চক্র সক্রিয় এই ধরনের ভুয়ো খবর ছড়ানোয়। এমনকী গাজরের হালুয়াকে ইউনেসকো বিশ্বের সেরা হালুয়ার স্বীকৃতি দিচ্ছে, একম খবরও ছড়িয়েছে হোয়্যাটসঅ্যাপ মারফত। মানুষ সচেতন হয়েছেন। তাই যে কোনও কিছু ছড়িয়ে পড়লেই আজ আর কেউ বিশ্বাস করেন না। কিন্তু কেউ কেউ ফাঁদে পড়েন। সেরকমই ভুয়ো খবরের শিকার হলেন কিরণ খের। সিয়াচেনে ভারতীয় সেনার ছবি দেখেই তিনি তা শেয়ার করেন। একই কাজ করেন অভিনেত্রী শ্রদ্ধা কাপুরও। দুজনই ভারতীয় সেনার জন্য তাঁদের গর্বের কথা প্রকাশ করেন। কিন্তু ভুয়ো ছবিতে গর্ব কীসের? প্রশ্ন তোলেন নেটিজেনরা।

আসলে এ ছবি রাশিয়ার। পুরু বরফের স্তরে কোনক্রমে শুয়ে আছনে দু’জন সৈনিক। ছবিতে লেখা আছে, তাপমাত্রা -৫১ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। এক সংবাদমাধ্যমের সে ছবি বহুদিন আগেই ছড়িয়ে পড়েছিল। পরে সেগুলিকেই ভারতীয় সেনার ছবি হিসেবে চালানো হয়। উগ্র জাতীয়তাবোধ ছড়ানোর জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কিছু গ্রুপ সক্রিয়। নানারকম প্রোপাগান্ডামূলক পোস্ট করে মানুষকে উত্যক্ত করার চেষ্টা করা হয়। ভাবনা-চিন্তাকে একমুখি করার চেষ্টা করা হয়। এ ছবিকেও সেই একই বিকৃত উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হয়েছে। কোনওরকম কিছু খতিয়ে না দেখে তাকেই সত্যি বলে ধরে নিয়েছেন কিরণ ও শ্রদ্ধা।

সাধারণ মানুষকেই হোয়্যাটসঅ্যাপ ও সোশ্যাল মিডিয়ার ভুয়ো প্রচার থেকে দূরে সরে থাকতে বলা হয়। কিন্তু কিরণের মতো বর্ষীয়ান অভিনেত্রী এবং জনপ্রতিনিধিও যদি একই ভুল করেন, তবে তা অন্য অর্থ বহন করে। বিজেপির সাংসদ যখন ভুয়ো ছবিতে দেশপ্রেম প্রচার করেন, তখন তা আর সহজ শেয়ারের মধ্যে আটকে তাকে না। ফলে বেশ বিতর্ক বেধেছে কিরণের এই পোস্টকে কেন্দ্র করে। কিছুদিন আগেই এক ধর্ষিতাকে নিয়ে মন্তব্য করে বিপাকে পড়েছিলেন সাংসদ-অভিনেত্রী।  তিন পুরুষ দেখেও কেন নির্যাতিতা অটোয় উঠেছিলেন, সে প্রশ্ন করেছিলেন তিনি। দেশবাসী তীব্র নিন্দা জানান সেই ঘটনার। তার কদিন পরেই এই ছবি পোস্ট করে ফের বিতর্কের আঁচ বাড়িয়ে দিলেন কিরণ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement