BREAKING NEWS

১৭  মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

পিছোল মোদির বায়োপিক মুক্তির দিন, সোমবার ফের শুনানি সুপ্রিম কোর্টে

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: April 4, 2019 12:55 pm|    Updated: April 4, 2019 1:53 pm

Narendra Modi biopic have got a new release date

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের মোদির বায়োপিক মুক্তির দিন নিয়ে ধোঁয়াশা। কথা ছিল, নির্ধারিত দিনেই মুক্তি পেতে চলেছে বহু প্রতীক্ষিত এই ছবি। কিন্তু ছবির মুক্তি পিছোতে মামলা দায়ের হয় সুপ্রিম কোর্টে। বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট জানায়, এই বিষয়ে আদালত ফের ৮ এপ্রিল শুনবে। মনে করা হচ্ছে, পরবর্তী শুনানি ৮ এপ্রিল হলে নির্ধারিত দিন মানে ৫ এপ্রিল ছবি মুক্তি পাচ্ছে না। তাহলে ভোটের মরশুমে ১ সপ্তাহ পিছিয়ে যাচ্ছে মুক্তির দিন। নির্মাতারা এবার চেষ্টা করছেন ১২ এপ্রিল, প্রথম দফার ভোটের একদিন পর ছবি রিলিজ করতে। প্রসঙ্গত, গত সোমবার দিল্লি হাই কোর্টের নির্দেশে স্বস্তি পেয়েছিলেন ছবির নির্মাতারা। দিল্লি হাই কোর্ট যা রায় দেয় তাতে নির্ধারিত দিনেই মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ‘পিএম নরেন্দ্র মোদির’। কিন্তু এবার ছবির মুক্তির দিন পিছিয়ে গেল। 

[আরও পড়ুন: ‘নমো টিভি’ বিজ্ঞাপনের মাধ্যম, কমিশনের নোটিসের জবাবে জানাল তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রক]

৫ এপ্রিল মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’। কিন্তু সূত্রের খবর, এবার মুক্তি পিছিয়ে প্রেক্ষাগৃহে সেই ছবি আসছে ১২ এপ্রিল। অতএব লোকসভা নিবার্চনের প্রথম দফা ভোটের একদিন বাদেই মুক্তি পাবে মোদির বায়োপিক। ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’র মুক্তি নিয়ে জল্পনা-কল্পনা তো ছিলই। সূত্রের খবর অনুযায়ী, নির্মাতাদের কাছে নাকি সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্রই ছিল না। কিন্তু তার আগেই তাঁরা ছবি মুক্তির দিনক্ষণ ঘোষণা করে ফেলেছিলেন। ছবির মুক্তি আটকাতে তড়িঘড়ি সুপ্রিম কোর্টে জনৈক কংগ্রেস নেতার হয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন অভিষেক মনু সিংভি। সু্প্রিম কোর্টের বিচারপতিদের বেঞ্চ জানায়, ৮ এপ্রিল আবেদনের পরবর্তী শুনানি হবে। তাতেই যা জানা যাচ্ছে, দিল্লি এবং বম্বে হাই কোর্টে ছাড়পত্র দিলেও শুক্রবারই মুক্তি পাচ্ছে না মোদির বায়োপিক।

লোকসভা নির্বাচনের আগে এই ছবি মুক্তি পাওয়াকে একরকম ভোট প্রচারের অ্যাজেন্ডা হিসেবেই দেখছিল গেরুয়া শিবিরের বিরোধী দলগুলি। আর সেই সূত্রেই নির্বাচন বিধিভঙ্গের অভিযোগে একের পর এক জনস্বার্থ মামলা দায়ের করে এই ছবি মুক্তি বাতিল করার আবেদন জানিয়েছিল তারা, এমনটাই মত সিনেমহলের একাংশের। যদিও ছবির মুক্তি পিছোল, তবুও এর দোসর টেনে কেউ কেউ আবার দাবি করছেন, ১২ এপ্রিল মুক্তি মানে বাকি রইল আরও চার দফা ভোট। অতএব, এক্ষেত্রেও কি প্রচারের অ্যাজেন্ডা থেকে বিরত থাকছেন নির্মতারা? প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। প্রসঙ্গত, এর আগে বিরোধী দলগুলির তোলা অভিযোগ সম্পূর্ণ খারিজ করে দিয়ে ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’র প্রযোজকরা দাবি করেছিলেন, গেরুয়া শিবিরের কারও কোনও সাহায্য ছাড়া সম্পূর্ণ নিজেদের টাকাতেই তৈরি হয়েছে এই ছবি৷ অতএব চারদিকে এত শোরগোল তোলার কোনও মানেই হয় না এই ছবির মুক্তি নিয়ে, এমনটাই মত ছিল তাঁদের।

[আরও পড়ুন:  প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে প্রকাশ্যে ‘কলঙ্ক’-এর ট্রেলার, নজর কাড়লেন আলিয়া]

মোদির চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিবেক আনন্দ ওবেরয়। মোদির জীবনকাহিনি এই ছবির প্রতিপাদ্য বিষয়। ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’ ছবিতে বিবেকের লুক প্রকাশ পাওয়ার পর নেটিজেনরা প্রচুর ট্রোল করেছিলেন। এছাড়াও, অভিনয়ে রয়েছেন বরখা বিস্ত, মনোজ যোশী, বোমান ইরানি এবং জারিনা ওয়াহাব প্রমুখ। বিতর্কের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চড়ছে সেলুলয়েডের মোদিকে নিয়ে আগ্রহ৷ আদালতের রায়ের পর উমঙ্গ কুমার পরিচালিত ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’ সম্ভবত মুক্তি পাচ্ছে ১২ এপ্রিলই অর্থাৎ প্রথম দফা ভোটের পরদিনই। আপাতত ৮ এপ্রিল শুনানির দিকে চেয়ে রয়েছে টিম ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে