৩ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নন্দন দত্ত, সিউড়ি: সিউড়ির আদালত চত্বরে টাইপ চলছে, মুহুরিরা হাঁকাহাকি করছে। ওদিকে আইনজীবীর সাদা পোশাকে হাতে চিত্রনাট্য নিয়ে ঘুরছেন বলিউড অভিনেতা নাসিরউদ্দিন শাহ। পুরোদমে শুটিং চলছে সিউড়িতে। তবে, কোনও বলিউড ছবির জন্য নয়। বহুদিন বাদে বাংলা ছবিতে অভিনয় করছেন নাসিরউদ্দিন। ফের আইনজীবির চরিত্রে দেখা যাবে তাঁকে। এবারও মানবতার জন্য আদিবাসীদের হয়ে মামলা লড়বেন অ্যান্ড্রু ডিসুজা ওরফে নাসিরুদ্দিন শাহ। ছবির নাম ‘দেবতার গ্রাস‘।

প্রায় উনিশ বছর আগে হিন্দি সিনেমা ‘আক্রোশ’-এ আইনজীবী ভাস্করের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন নাসিরউদ্দিন শাহ। গোবিন্দ নিহালানি পরিচালিত সেই সিনেমায় আদিবাসী এক দিনমজুরের স্ত্রীকে ধর্ষণ করা হয়। ঠিকাদারের বাংলোয় চারজন মিলে ধর্ষণ করেছিল। তরুণ আইনজীবী ভাস্করের চরিত্রে নাসিরউদ্দিন সেই ধর্ষিতা মহিলার দিনমজুর স্বামী ওম পুরির হয়ে আদালতে মামলা লড়েছিলেন নাসিরউদ্দিন। আইনজীবী ভাস্করের চরিত্রে অভিনয় করে ফ্লিম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিলেন নাসিরউদ্দিন শাহ। এবার ফের একবার আইনজীবীর ভূমিকায়। তবে, বাংলা ছবিতে। সৌজন্যে পরিচালক শৈবাল মিত্র।

[আরও পড়ুন: পর্দায় এবার ‘শেষের কবিতা’র কেতকী-লাবণ্য, প্রকাশ্যে ট্রেলার]

শুটিং শিডিউল মাফিক রবিবার সকালে সিউড়ির আদালত চত্বরে বসেছিল ‘দেবতার গ্রাস’ ছবির গোটা শুটিং ইউনিট। লাইট, ক্যামেরা, সাউন্ড.. ঘন ঘন-ই ভেসে আসছিল সেদিক থেকে। ব্রিটিশ আমলে তৈরি সিউড়ি আদালতের এই চত্বরে এর আগেও অনেক সিনেমার শুটিং হয়েছে। রবিবার সকালে সন্তর্পনে সেখানেই শুটিং এর জন্য তাঁবু ফেলেছিল পরিচালক শৈবাল মিত্রের ইউনিট। আদালত চত্বরে টাইপ চলছে। মুহুরিরা টাইপে ব্যস্ত। উপরে লেখা ‘এখানে স্ট্যাম্প পেপার পাওয়া যায়’। ঠিক এরকম একটা জায়গাতেই ‘শট রেডি’ বলে ঘোষণা করেন পরিচালক শৈবাল মিত্র। ঘড়িতে তখন সকাল আটটা। আদালত চত্বরেই গাড়ি থেকে নামলেন নাসিরউদ্দিন ওরফে ডিসুজা। পরনে সাদা জামা। কালো প্যান্ট। আস্তে আস্তে ক্যামেরা প্যান করা শুরু হল। নাসিরউদ্দিন মাটিতে পরে থাকা একটা স্ট্যাম্প পেপার কুড়িয়ে নিলেন। মুহুরির সঙ্গে কিছু কথা বললেন। ওদিক থেকে আওয়াজ এল ‘কাট’।

শুটিং ইউনিটের জনসংযোগ আধিকারিক অরিন্দম মুখোপাধ্যায় জানান, ঝাড়খণ্ড, বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমানের বেশ কিছু এলাকায় শুটিং চলবে। সকালে সিউড়িতে শুটিংয়ের পর পুরো ইউনিট চলে যায় ইলামবাজারে। রাতে পশ্চিম বর্ধমানের বনকাঠি গ্রামে থাকছে গোটা ইউনিট। ২৮ তারিখ পর্যন্ত বীরভূমের বিভিন্ন এলাকায় শুটিং চলবে।

[আরও পড়ুন: রাজনীতির ময়দানে বাজিমাতের পর নয়া ইনিংস, জুনেই বিয়ে নুসরতের]

ছবি: শান্তনু দাস

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং